২৬  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ১৬ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দুর্বল শাখা সংগঠন, দক্ষ নেতৃত্বের অভাবে চিন্তায় সিপিএম, লক্ষ্যমাত্রা বেঁধে দিল আলিমুদ্দিন

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 27, 2022 10:25 am|    Updated: June 27, 2022 10:31 am

Bengal CPM focuses to strenghthen branch committees for regain supports | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: শাখা সংগঠনই পার্টির মূল স্তম্ভ। শাখা শক্তিশালী হলে তবেই নিচুতলায় দলের জনসমর্থন বাড়ে। আর তা গড়ে তুলতে দক্ষ নেতৃত্ব ও কর্মীদের প্রয়োজন। আর কোনও শাখা কমিটি সচল রাখতে দরকার দক্ষ সেনাপতির অর্থাৎ সেই শাখা কমিটির সম্পাদক। কিন্তু বঙ্গ সিপিএমে (CPM) কি দক্ষ শাখা সম্পাদকের অভাব? আর তাই দক্ষ শাখা সম্পাদক গড়ে তুলতে চাইছে আলিমুদ্দিন? এবার এর জন্য স্পষ্ট নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য সিপিএমের সদর দপ্তর।

পার্টি ক্ষমতায় নেই, তাই নিচুস্তরে দক্ষ নেতৃত্বের অভাবে ভুগছে সিপিএম। আলিমুদ্দিনের (Alimuddin) এক নির্দেশিকায় অন্তত সেরকমই স্পষ্ট। পার্টির জেলা কমিটিকে নিচুতলায় দক্ষ নেতৃত্ব গড়ে তোলার বার্তা দিয়েছে সিপিএম রাজ্য কমিটি। নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, দক্ষ শাখা সম্পাদক গড়ে তোলার লক্ষ্যে জেলা কমিটিকে দুই থেকে পাঁচভাগে ভাগ করে ছ’মাস অন্তর ১ থেকে ২ দিন ব্যাপী কর্মশালা বা প্রশিক্ষণ শিবির করতে হবে। আগামী আগস্ট-সেপ্টেম্বর মাস জুড়ে এই ধরনের কর্মশালা হবে প্রতিটি জেলায়।

[আরও পড়ুন: ‘মধু খেতে অনেকেই তৃণমূলের পতাকা নিতে চাইছেন’, ফের বিস্ফোরক বিধায়ক আশিস বন্দ্যোপাধ্যায়]

পার্টির নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, পার্টির সাংগঠনিক ভিত হচ্ছে শাখা। সেই শাখার কার্যধারার (Branch Committee) উপর বিশেষ গুরুত্ব প্রদান করতে হবে। শক্তিশালী শাখা ও যোগ্য-দক্ষ শাখা সম্পাদক গড়ে তোলার কাজ সমগ্র পার্টির সামনে গুরুত্বপূর্ণ সাংগঠনিক কাজ। শাখার দুর্বলতা হচ্ছে উচ্চতর কমিটির দুর্বলতা। শুধু তাই নয়, পার্টি সদস্যদের সেভাবে প্রশিক্ষিত করার কাজ জেলা কমিটিগুলি যে করছে না, সেটাও নজরে এসেছে সিপিএম রাজ্য নেতৃত্বের। পার্টির তরফে বলা হয়েছে, সমস্ত পার্টি সদস্যকে ন্যূনতম ছ’টি বিষয়ে প্রশিক্ষিত করার কাজে ব্যাপক ঘাটতি রয়েছে। সেই ঘাটতি দ্রুত অতিক্রম করতে হবে। প্রয়োজনে নতুন পার্টি শিক্ষক গড়ে তুলে এই কাজে অগ্রসর হতে হবে।

[আরও পড়ুন: দুর্মূল্যের বাজারে ওপার বাংলায় রপ্তানি, এপার বাংলায় হু হু করে বাড়ছে চালের দাম]

আগামী ডিসেম্বর মধ্যে এই কাজ কতটা বাস্তবায়িত হল, তার মূল্যায়ন করা হবে বলে পার্টি নির্দেশিকায় বলা হয়েছে। কোন কোন বিষয়ে প্রশিক্ষণে ঘাটতি সেগুলিও বলা হয়েছে। যেমন, কমিউনিস্ট পার্টি কী ও কেন, মার্কসীয় দর্শন, মার্কসীয় অর্থনীতি, পার্টি কর্মসূচি, সংগঠন ও আরএসএসের বিপদ ও তার মোকাবিলা। সম্প্রতি প্রকাশিত পার্টি চিঠিতে কার্যত স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে যে, পার্টি সদস্যদের গুণগত মানোন্নয়ন ঠিকমতো হচ্ছে না। বলা হয়েছে, সদস্যদের গুণগত মানোন্নয়নের বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। পার্টির সর্বস্তরের নেতৃত্বের রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক নেতৃত্বদানের দক্ষতা অর্জন করতে হবে। পাঁচটি ন্যূনতম কাজ প্রতিটা পার্টি সদস্যের ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক, সাংগঠনিক প্লেনামের সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে