BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

‘শীর্ষ নেতার কথায় মুখ খুলেছিলাম’, ফের বিস্ফোরক হাওড়া সদরের বহিষ্কৃত বিজেপি নেতা সুরজিৎ সাহা

Published by: Sayani Sen |    Posted: November 11, 2021 10:49 am|    Updated: November 11, 2021 1:45 pm

BJP leader Dilip Ghosh opens up over Surajit Saha's expulsion । Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বহিষ্কারের পর চব্বিশ ঘণ্টা কাটতে না কাটতেই ফের বিস্ফোরক হাওড়া সদরের বহিষ্কৃত বিজেপি সভাপতি সুরজিৎ সাহা। বৃহস্পতিবার তিনি বলেন, “রাজ্যের এক শীর্ষ নেতা বলায় সাংবাদিকদের সামনে মুখ খুলেছিলাম। সেই নেতারাই আমাকে বলির পাঁঠা করল।” তবে কার নির্দেশে শুভেন্দু অধিকারী (Suvendu Adhikari) সম্পর্কে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন তিনি, সে বিষয়ে এখনও কিছুই জানাননি সুরজিৎ। 

সুরজিৎ সাহার বহিষ্কারের সিদ্ধান্তে বৃহস্পতিবার ইকোপার্কে প্রাতঃভ্রমণের সময় মুখ খোলেন দিলীপ ঘোষ (Dilip Ghosh)। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি বলেন, “কেউ শৃঙ্খলা ভাঙলে দল তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে। দলের পক্ষে এটাই যুক্তিসঙ্গত কাজ। দল একটা নিয়মশৃঙ্খলার মধ্যে কাজ করে। দলে হাজার হাজার কার্যকর্তা আছেন। এর আগেও অনেকেই দল ছেড়ে চলে গিয়েছেন। এতে খুব একটা সমস্যা হবে না। বুথ স্তরের কার্যকর্তারাই লড়াই করে দলকে জেতাবেন।”

[আরও পড়ুন: মজাই মজা! অফিস ছুটির পর আর ফোন করতে পারবেন না বস! জারি নয়া নিয়ম]

দলের অন্দরে শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে যে অসন্তোষ রয়েছে তা কার্যত মেনে নেন বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “শুভেন্দু অধিকারীকে নিয়ে দলের মধ্যে অসন্তোষ আগে থেকেই ছিল। এর জন্য অনেকে দল ছেড়েও চলে গিয়েছে। অনেকের মধ্যে সন্দেহ দানা বেঁধেছে। অনেকে অনেকরকম ধারণার বশবর্তী হয়ে ভুলভাল কথাবার্তা বলছে। দলের মধ্যে অসন্তোষ থাকলেও তা ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হচ্ছে।”

উল্লেখ্য, বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীর বিরুদ্ধে তোপ দেগেছিলেন হাওড়া সদরের বিজেপি সভাপতি সুরজিৎ সাহা (Surajit Saha)। তৃণমূল থেকে বিজেপিতে আসা নেতাদের অধীনে কাজ করতে আপত্তিও জানিয়েছিলেন। শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে হাওড়া (Howrah) সদরের বিজেপি সভাপতি সুরজিৎ সাহাকে বহিষ্কার করে দল। বুধবার বিকেলে দলের এই সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে দেওয়া হয় তাঁকে। দলের এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করেছেন সুরজিৎবাবু। বলেন, “আমাকেও কো-চেয়ারম্যান করা হয়েছে। কিন্তু দলের নিয়ম অনুযায়ী জেলায় যে কোনও কমিটির মাথায় থাকেন জেলা সভাপতি। এক্ষেত্রে আমাকে সেই দায়িত্ব দেওয়া হয়নি। এভাবে দলের তৃণমূলীকরণ মানব না। নবগঠিত নির্বাচন কমিটিকেও মানব না।” তবে শেষ সিদ্ধান্ত দল নেবে বলেই জানিয়েছিলেন তিনি। বহিষ্কারের পরও তিনি বিজেপির সঙ্গে থাকবেন বলে জানিয়েছেন সুরজিৎবাবু। বহিষ্কার নিয়ে রাজনৈতিক মহলে তুঙ্গে চাপানউতোর।

[আরও পড়ুন: রাতারাতি অ্যাকাউন্টে ঢুকল ১০ কোটি টাকা! আচমকা অর্থপ্রাপ্তিতে আতঙ্কিত যুবক]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে