৩ কার্তিক  ১৪২৬  সোমবার ২১ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যাদবপুর কাণ্ডে এবার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর পাশে দাঁড়ালেন সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। বললেন, ‘ছাত্ররা একশো বার ভুল করতে পারে। অভিভাবক হিসেবে আমরা তাঁদের বোঝাব।’ এর আগে অভিযুক্ত ছাত্র দেবাঞ্জন বল্লভ চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেবেন না বলে তাঁর মাকে আশ্বস্ত করেছেন বাবুল সুপ্রিয়। এবার আসানসোলের সাংসদের সুরেই বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘ওঁরা ছাত্র, ভুল করতেই পারে। একশো বার ভুল করবে। অভিভাবক হিসাবে আমরা যেভাবে ছেলেমেয়েদের বোঝাই সেটাই করতে হবে।’

[আরও পড়ুন: বাবুলের কাছে ক্ষমা চাইল হেনস্তাকারী দেবাঞ্জন! পড়ুয়ার ফেসবুক পোস্ট ঘিরে জল্পনা]

গত বৃহস্পতিবার প্রায় টানা ছয় ঘণ্টা আটকে রেখে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে হেনস্তা করা হয় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে। সেই ঘটনার একাধিক ছবি এবং ভিডিও বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল। তাতেই নাম জড়িয়েছে সংস্কৃত কলেজের ভাষা বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র দেবাঞ্জন বল্লভ চট্টোপাধ্যায়ের। অভিযোগ, বহিরাগত হওয়া সত্ত্বেও বিশ্ববিদ্যালয়ে ঢুকে বাবুলের চুলের মুঠি ধরে বেধড়ক মারধর করে সে। ওই ছবি সংবাদমাধ্যম এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রায় ভরে গিয়েছে। তারপর থেকেই আশঙ্কায় ভুগছেন দেবাঞ্জনের ক্যানসার আক্রান্ত মা এবং স্কুলশিক্ষক বাবা। যদিও ওই ছাত্র এই ছবির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল। প্রযুক্তির মাধ্যমে ছবি বিকৃত করে তার বিরুদ্ধে কুৎসা করা হচ্ছে বলেও দাবি করে দেবাঞ্জন।

লকেটের মতে, ‘ওঁদের বারবার ক্ষমা করতে হবে। ভুলটা আমাদেরই শুধরে দিতে হবে। বাবুল সুপ্রিয় অত্যন্ত ভাল করেছেন। ওই ছাত্রর মা যেভাবে সন্তানের ভবিষ্যতের কথা ভেবে তাকে ক্ষমা করে দিতে বলেছেন সেটা দেখেছি। বিজেপির আদর্শ হল, আমরা কাউকে মারি না। পড়ুয়ারা ভুল করলে শুধরে দিই।’

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং