২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: কলকাতায় ফিরলেই সম্মান ও সংবর্ধনা দেওয়া হবে সদ্য বিজেপিতে যোগ দেওয়া কলকাতা কর্পোরেশনের প্রাক্তন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়কে৷ শুক্রবার এমনই ঘোষণা করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ শোভন চট্টোপাধ্যায়ের মতো পোড় খাওয়া রাজনীতিক তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করায় গেরুয়া শিবির যে আরও চাঙ্গা হবে, এদিন একবাক্যে সেকথাও স্বীকার করে নেন মেদিনীপুরের সাংসদ৷

[ আরও পড়ুন: স্ত্রী’র জন্মদিনে বেড়াতে গিয়ে গৃহকর্তার মৃত্যু, বিপর্যস্ত বজ্রপাতে নিহত ব্যক্তির পরিবার ]

জল্পনার অবসান ঘটিয়ে বুধবার কাননে ফুটেছে পদ্ম৷ তৃণমূলের সঙ্গে দীর্ঘদিনের সম্পর্কের অবসান ঘটিয়ে বান্ধবী বৈশাখী বন্ধ্যোপাধ্যায়কে সঙ্গে নিয়ে গেরুয়া চাদর গায়ে চড়ান শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ পঞ্চায়েত নির্বাচনে রিগিং হয়েছে বলে প্রাক্তন দলের বিরুদ্ধে তোপও দাগেন তিনি৷ বর্তমানে দিল্লিতেই রয়েছেন শোভন ও বৈশাখী৷ সূত্রের খবর, দু-একদিনের মধ্যেই কলকাতায় ফিরবেন তাঁরা৷ আর তারপরই জাঁকজমকের সঙ্গে দলের নয়া সদস্যকে সংবর্ধনা দেওয়া হবে বলে জানান রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷ তিনি বলেন, ‘‘এত বড় নেতা দলে এসেছেন। তিনি পার্টি অফিসে আসবেনই। আমরা তাঁকে সন্মান জানাব।’’

[ আরও পড়ুন: জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা, রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের ছেলেকে পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ আদালতের ]

অন্যদিকে, এদিন জেলা সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠকে সদস্য সংগ্রহ অভিযানে দলের সব কার্যকর্তার ভূমিকা নিয়ে ক্ষোভপ্রকাশ করেন বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতা শিবপ্রকাশ। জানা গিয়েছে, এখনও পর্যন্ত এ রাজ্যে ৬৭ লক্ষ সদস্য সংগ্রহে সমর্থ হয়েছে বিজেপি। পূরণ হয়নি ১ কোটি সদস্যের লক্ষ্যমাত্রা৷ তাই সদস্য সংগ্রহের দিন ২০ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ানো সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গেরুয়া শিবিরের শীর্ষ কর্তারা৷ পাশাপাশি, কলকাতার নেতাদেরও বেশি করে বাড়ি বাড়ি যেতে বলেন শিবপ্রকাশ। একই কথা বলেন ক্ষুব্ধ রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষও। তাঁর বক্তব্য, অনেক কার্যকর্তা পর্যাপ্ত সময় দেননি। কম সময় দিয়েছেন। তারা যাতে সময় দেন, সেই বিষয়ে কথা হয়েছে। এদিকে, আগামী সেপ্টেম্বর থেকেই শুরু হচ্ছে দলের সাংগঠনিক নির্বাচন। এদিনের বৈঠকে সেই ঘোষণা করেন দিলীপ ঘোষরা। এছাড়া, ২০২১ এর বিধানসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে বিধানসভা ভিত্তিক কমিটি তৈরির কথাও এদিন ঘোষণা করেন তাঁরা৷

পাশাপাশি, সদস্যতা অভিযান ও ভারতমাতার পুজোতে তৃণমূলের বাধাদানের সমালোচনা করেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি। তাঁর বক্তব্য, “ভারতমাতার মূর্তি ভেঙে দেওয়া হচ্ছে। বিজেপি বিরোধিতা করতে গিয়ে দেশ বিরোধিতা করছে তৃণমূল। দেশ বিরোধীদের সঙ্গে তৃণমূল আছে। পাকিস্তানের হয়ে কথা বলছেন মুখ্যমন্ত্রী।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং