BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

বিজেপির স্বাস্থ্য অভিযানকে ঘিরে ধুন্ধুমার, পুলিশের লাঠিচার্জ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 23, 2017 12:46 pm|    Updated: October 23, 2017 12:46 pm

BJP protest rally in Kolkata turns violent

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যে ডেঙ্গু প্রতিরোধে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে পথে নামল বিজেপি। সোমবার বিজেপির স্বাস্থ্যভবন অভিযানকে কেন্দ্র করে ধুন্ধুমার কাণ্ড সল্টলেকে। স্বাস্থ্যভবনের সামনে মিছিল আটকালে পুলিশের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের ধস্তাধস্তি শুরু হয়। ভাঙা হয় ব্যারিকেড। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে বিক্ষোভকারীদের উপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ।  এরপর রাস্তাতেই মশারি টাঙিয়ে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা।

[ডেঙ্গু নিয়ে অপপ্রচার নয়, ল্যাবগুলির ভুল বোঝানোতে কান দেবেন না: মুখ্যমন্ত্রী]

বিজেপির অভিযোগ, গোটা রাজ্যে ডেঙ্গু ক্রমশই ভয়াবহ আকার ধারণ করছে। প্রতিদিন ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর খবর পাওয়া যাচ্ছে। উত্তর ২৪ পরগনার দেগঙ্গা, বসিরহাট, বাদুড়িয়ার মতো এলাকায় এখন কার্যত ঘরে ঘরে ডেঙ্গু রোগী। আতঙ্কে ঘরছাড়া বহু মানুষ।  খাস কলকাতাতেও ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু, সরকারি হাসপাতালে পরিকাঠামোর অভাব ও পুর ক্নিনিকগুলির বেহাল দশা নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে সাধারণ মানুষের। যদিও রাজ্যে ডেঙ্গুতে মৃত্যুর কথা মানতে রাজি নন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর বক্তব্য, ডেঙ্গু নিয়ে গুজবে অকারণে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে। তাই রাজ্যবাসীকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ, বেসরকারি ল্যাবগুলি  মানুষকে ভুল বোঝানোর চেষ্টা করছে। যেকোনও মৃত্যুকেই ডেঙ্গুতে মৃত্যু বলে চালানো চেষ্টা করা হচ্ছে। তবে অভিযোগ উঠেছে, মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর পরিস্থিতি ঘোরালো হয়ে উঠেছে। বেসরকারি ল্যাবগুলি তো বটেই, চিকিৎসকরাও মৃতের ডেথ সার্টিফিকেটে ডেঙ্গু লিখতে ভয় পাচ্ছেন। ফলে রাজ্যে ঠিক কতজন ডেঙ্গিকে আক্রান্ত হয়েছেন?  কতজনই বা মারা গিয়েছেন?  সে বিষয়ে কোনও তথ্য পাওয়া যাচ্ছে না।

[চরিত্র বদলে নয়া বেশে হানা ডেঙ্গুর]

এই পরিস্থিতিতে সোমবার রোগ প্রতিরোধে প্রশাসনিক ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে স্বাস্থ্যভবন অভিযানের ডাক দিয়েছিল বিজেপি। দুপুরে সল্টেলেকের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে মিছিল করে স্বাস্থ্যভবনের দিকে যাচ্ছিলেন দলের কর্মী-সমর্থকরা।  ছিলেন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু, স্বাস্থ্যভবনের সামনে বিজেপির মিছিল আটকায় পুলিশ। এরপরই পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বিক্ষোভকারীদের পুলিশের ধস্তাধস্তি শুরু হয়ে যায়। বিক্ষোভকারীরা ব্যারিকেড ভেঙে এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে, লাঠিচার্জ করে পুলিশ। শেষপর্যন্ত মশারি টাঙিয়ে রাস্তাতেই বসে পড়েন তাঁরা। ডেঙ্গু প্রতিরোধে ব্যর্থতার দায় নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি করেছেন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায়।

 

[ইন্টারনেটেই খোঁজ মিলছে হোটেলের, পা বাড়াচ্ছে সাহসী যৌবন]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে