BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

শক্তি প্রদর্শনে সাহসী পদক্ষেপ বিজেপির, ব্রিগেডের দিন উত্তরবঙ্গেও সভা মোদির

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 24, 2019 4:51 pm|    Updated: April 17, 2019 5:10 pm

BJP to organise two rallies of PM Modi on the same day

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: ব্রিগেডের পাশাপাশি একই দিনে শিলিগুড়িতে জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী ৩ এপ্রিল মোদির এই জোড়া জনসভার কর্মসূচি ঘোষণা করলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়। তিনি জানান, দল এখন সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী, তাই জোড়া সভা ভরাতে কোনও অসুবিধা হবে না। তবে, রাজ্য রাজনীতিতে এই ঘটনা নজিরবিহীন।

[আরও পড়ুন:  চড়া রোদেই হেঁটে প্রচার তৃণমূল প্রার্থী মালা রায়ের, রং-তুলিতে দেওয়াল লিখন শোভনদেবের]

একই দিনে ব্রিগেডের মতো মেগা জনসভার পাশাপাশি রাজ্যের অন্য প্রান্তে বড় জনসভা করার ঝুঁকি এর আগে কোনও দল নিয়েছে বলে জানা নেই। কিন্তু এবার সেটাই করতে চলেছে রাজ্য বিজেপি। আগামী ৩ এপ্রিল ব্রিগেডের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে দিয়ে জনসভা করাতে চাইছে গেরুয়া শিবির। বিজেপি নেতা মুকুল রায় জানিয়ে দিয়েছেন, ব্রিগেডে জনসভা শুরু হবে দুপুর ৩টেয়। শিলিগুড়ির জনসভা হবে দুপুর ১টায়।

এহেন পদক্ষেপের পিছনে বিজেপি নেতাদের যুক্তি, বিজেপি সাংগঠনিকভাবে এতটাই শক্তিশালী যে ব্রিগেড ভরাতে শুধু দক্ষিণবঙ্গই যথেষ্ট। উত্তরবঙ্গের কর্মীদের কষ্ট করে আনার প্রয়োজন নেই। তাছাড়া, উত্তরবঙ্গে প্রথম দফাতেই ভোট আছে দুটি কেন্দ্রে। বাকি কেন্দ্রগুলির ভোটও দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার মধ্যেই। তাই ভোটের আগে আগেই উত্তরবঙ্গ থেকে সময় নষ্ট করে কর্মীদের কলকাতায় আনতে চাইছে না গেরুয়া শিবির। তাই শিলিগুড়িতেই প্রধানমন্ত্রীকে সভা করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। দুপুর ১টার সময় সেখানে সভা করবেন মোদি। তার ঘণ্টা দুই পরে অর্থাৎ দুপুর ৩টের সময় সভা ব্রিগেডে। বিজেপি নেতা মুকুল রায় বলেন, “বিজেপি সাংগঠনিকভাবে এতটাই শক্তিশালী যে একই দিনে দুটি সভা করতেও প্রস্তুত। খালি দক্ষিণবঙ্গের কর্মীরাই ব্রিগেড ভরাতে যথেষ্ট।”

[আরও পড়ুনপ্রচারে ঝড় তুলতে এপ্রিলের শুরুতেই ব্রিগেডে সভা প্রধানমন্ত্রীর]

উল্লেখ্য, প্রার্থী বাছাইয়ে দেরি এবং প্রার্থী নিয়ে অসন্তোষ যখন চরমে তখন প্রচারে ঝড় তুলতে মোদি অমিতই ভরসা বঙ্গ ব্রিগেডের। প্রার্থী নিয়ে যাবতীয় অসন্তোষ একমাত্র দলীয় সভাপতি এবং প্রধানমন্ত্রীকে দফায় দফায় প্রচারে এনেই দমিয়ে রাখা সম্ভব বলে মনে করছে গেরুয়া শিবির। আর সেকারণেই সিদ্ধান্ত হয়েছে, আগামিদিনে বাংলায় ২০টিরও বেশি জনসভা করবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, অমিত শাহ-রা৷ কিন্তু প্রধামন্ত্রীর ব্যস্ত কর্মসূচির জন্য বারবার তাঁকে বাংলায় আনা সম্ভব নয়। তাই একদিনেই একাধিক সভা করাতে হবে তাঁকে দিয়ে। তাই কর্মসূচির শুরুতেই জোড়া সভা করানো হবে মোদিকে দিয়ে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে