৭ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২১ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার : ক’টা থেকে ক’টা, এখনও ঠিক হয়নি। তা স্থির হবে রাজ্য প্রশাসনের একেবারে শীর্ষস্তরে। তবে যাই হোক না কেন, মেয়াদ দু’ঘণ্টা। কালীপুজোর রাতে দু’ঘণ্টার এক মিনিট বেশিও আতশবাজি পোড়ানো যাবে না বলে সাফ জানিয়ে দিল লালবাজার।

বুধবার কলামন্দিরে আয়োজিত কলকাতার কালীপুজো উদ্যোক্তা ও পুলিশ-প্রশাসনের সমন্বয় সভায় পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমার বলেন, “বাজি ফাটানো নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নতুন নির্দেশ এসেছে। এ ব্যাপারে সবার সহযোগিতা কামনা করি।” অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সুপ্রতিম সরকার বিষয়টি ব্যাখ্যা করে বলেন, “শীর্ষ আদালতের নির্দেশ, দু’ঘণ্টার বেশি বাজি পোড়ানো যাবে না। কোন দু’ঘণ্টা, তা সংশ্লিষ্ট রাজ্য প্রশাসনের সিদ্ধান্তের উপর ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। সেটা রাত সাতটা থেকে ন’টা হতে পারে। আটটা থেকে দশটা হতে পারে।” কিন্তু যাই হোক না কেন, নির্ধারিত সময়সীমার বাইরে বাজি ফাটানো কোনওমতেই যাবে না বলে সতর্কবার্তা দিয়েছেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার।

শহরে মাদকের চোরকারবার চালাচ্ছে দুই নাইজেরীয় ফুটবলার! ]

এমতাবস্থায় আমজনতা থেকে পরিবেশকর্মী সকলেই আশাবাদী। তাঁদের বক্তব্য, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশনামা নিয়ে পুলিশ কঠোর পদক্ষেপ করলে কালীপুজোয় শব্দ ও পরিবেশ দূষণে লাগাম পড়বে। এদিন রাজীব কুমার জানান, কালীপুজোয় শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে উদ্যোক্তারা স্বেচ্ছাসেবকদের যতটা সম্ভব কাজে লাগান। কিন্তু আত্মতুষ্টির কোনও জায়গা নেই। অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে পুরো বিষয়টিকে দেখতে হবে। একটা টিমের মতো কাজ করতে হবে, যাতে প্রত্যেকের সহযোগিতায় উৎসব ভালভাবে সম্পন্ন হতে পারে।

দুর্গাপুজোর মতো কালীপুজোর কার্নিভাল আয়োজনের আবেদন প্রসঙ্গে পুলিশ কমিশনার উদ্যোক্তাদের জানিয়েছেন, প্রশাসনের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা হচ্ছে। উদ্যোক্তাদের অনুরোধও প্রশাসনকে জানানো হবে। দু’একদিনের মধে্য প্রশাসনের সিদ্ধান্ত তাঁদের জানিয়ে দেওয়া হবে। লালবাজারের পক্ষে জানানো হয়েছে, ৬ নভেম্বর কালীপুজো। ৭ থেকে ১০ নভেম্বর এই চারদিন বিসর্জনের দিন নির্ধারিত হয়েছে। দমকলের তরফ থেকে আতশবাজির সঙ্গে ফানুস নিয়েও সতর্ক করা হয়। কালীপুজো ও দীপাবলিতে অগ্নিকাণ্ড আয়ত্তে আনতে কলকাতা ও তার আশপাশের অঞ্চলে বেশ কিছু পয়েন্টে থাকবে দমকলের ইঞ্জিন। কলকাতা পুরসভার পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, কালীপুজোয় পরিষেবার জন্য প্রস্তুত থাকছে কন্ট্রোলরুম। দূষণ নিয়ন্ত্রণ পর্ষদের পক্ষে বলা হয়, বাজি থেকে দূষণ   রোধে প্রত্যেকদিন শহরের বায়ুদূষণ মাপা হবে।

কনফার্ম টিকিটেও মেলেনি সিট, ট্রেনের শৌচালয়ের সামনে বসে সফর পরিবারের ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং