১৪ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

১৪ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 

BREAKING NEWS

সুব্রত বিশ্বাস: নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের প্রতিবাদে জ্বলছে অসময পশ্তিমবঙ্গের উলুবেড়িয়া, বেলডাঙা-সহ একাধিক জায়গায় ভাঙচুর চালানো হয়েছে ট্রেনে। হামসফর এক্সপ্রেস ও করমণ্ডল এক্সপ্রেসে ছোঁড়া হয়েছে পাথর। এমন পরিস্থিতিতে উত্তর-পূর্ব ভারতের একাধিক ট্রেন বাতিল করল ভারতীয় রেল। আগামিকাল, ১৪ ডিসেম্বর থেকে ১৬ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে আপ ও ডাউন কামরূপ এক্সপ্রেস। ১৪ ডিসেম্বর বাতিল হয়েছে শিয়ালদহ-শিলচর কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস। ১৫ ডিসেম্বরের জন্য বাতিল হয়েছে আগরতলা-শিয়ালদহ কাঞ্জনজঙ্গা এক্সপ্রেস। আগামিকাল ডিব্রুগড়-কন্যাকুমারী এক্সপ্রেসও বাতিল করা হয়েছে।

CAB নিয়ে এখনও উত্তপ্ত অসম। রাজ্যে ২৬ কলাম কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। গোটা রাজ্যে স্কুল-কলেজ আগামী ২২ ডিসেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে। কার্যত গোটা রাজ্যেই কারফিউ জারি করা হয়েছে। ডিব্রুগড়ে কারফিউ কিছুটা শিথিল হলেও, রাজ্যের বাকি অংশে তা বলবৎ। একই পরিস্থিতি মেঘালয়ের রাজধানী শিলংয়েও। বৃহস্পতিবার রাত থেকে শিলংয়ে কারফিউ জারি করা হয়েছে। আজ কারফিউ কিছুটা ঢিলে হতেই রাস্তায় বিক্ষোভ দেখানো শুরু করেন স্থানীয়রা। তাঁদের নিয়ন্ত্রণে আনতে নিরাপত্তাকর্মীদের গুলি পর্যন্ত চালাতে হয়েছে বলে খবর। কার্যত সেই কারণে উত্তর-পূর্ব ভারতে ট্রেন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে রেল মন্ত্রক।

[ আরও পড়ুন: অবৈধ সম্পর্ক জেনে ফেলায় করুণ পরিণতি! গড়িয়াহাটে বৃদ্ধা খুনে গ্রেপ্তার পুত্রবধূ ও নাতনি ]

অবশ্য অসমের পাশাপাশি উত্তেজনা ছড়িয়েছে এ রাজ্যেও। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরোধিতায় শুক্রবার জায়গায় জায়গায় বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন স্থানীয়রা। বিক্ষোভের আঁচে উত্তপ্ত উলুবেড়িয়া স্টেশন চত্বরও। অভিযোগ, বিক্ষোভকারীরা ট্রেন লক্ষ্য করে পাথর ছোঁড়ে। তাতে ট্রেনের চালক গুরুতর জখম হন। উলুবেড়িয়া স্টেশনে রেললাইনের উপরে বসে পড়ে বিক্ষোভকারীরা। CAB বিরোধী আন্দোলনের জেরে উলুবেড়িয়া স্টেশনে বন্ধ হয়ে যায় ট্রেন চলাচল। একাধিক প্ল্যাটফর্মে দাঁড়িয়ে পড়ে বেশ কয়েকটি লোকাল এবং এক্সপ্রেস ট্রেন।

CAB বিরোধী আন্দোলনে ধুন্ধুমার পরিস্থিতি তৈরি হয় মুর্শিদাবাদের বেলডাঙা স্টেশনেও। রেল অবরোধে বাধা দিতে গেলে বেধড়ক মারধর করা হয় আরপিএফ কর্মীদের। তাতে গুরুতর জখম হন একজন। কেবিনম্যানকে মারধরের পাশাপাশি স্টেশনে ভাঙচুর এবং আগুনও লাগিয়ে দেওয়া হয়। উলুবেড়িয়া, মুর্শিদাবাদের পাশাপাশি ডায়মন্ড হারবার শাখার বাসুলডাঙা রেল স্টেশন এবং বারুইপুর-ডায়মন্ড হারবার শাখায় রেল অবরোধ করেন CAB বিরোধীদের একাংশ।

[ আরও পড়ুন: আড়াআড়িভাবে চিরে দেওয়া হয় তলপেট, গড়িয়াহাটে বৃদ্ধা খুনের নৃশংসতায় তাজ্জব পুলিশ ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং