BREAKING NEWS

১৩  আষাঢ়  ১৪২৯  মঙ্গলবার ২৮ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

Anubrata Mandal: জেরা শেষের আগেই অনুব্রতকে ছাড়ল সিবিআই, SSKM গেলেন অসুস্থ তৃণমূল নেতা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: May 19, 2022 2:28 pm|    Updated: May 19, 2022 5:40 pm

CBI enquiry incomplete, Anubrata Mandal released for treatment at SSKM

সুব্রত বিশ্বাস: পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের পর অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। গরু পাচার মামলায় বীরভূমের তৃণমূল সভাপতিকে বৃহস্পতিবার ঘণ্টা চারেক নিজাম প্যালেসে থাকলেও তাঁকে জেরাপর্ব সম্পূর্ণ হয়নি বলেই খবর সিবিআই সূত্রে। দুপুর ২ টো নাগাদ অনুব্রত মণ্ডল নিজাম প্যালেস থেকে বেরিয়ে সোজা চলে গেলেন এসএসকেএম (SSKM) হাসপাতালে। সেখানে তাঁর রুটিন চেকআপের সময় দিয়েছিলেন চিকিৎসক। সেই পরামর্শ মেনেই এদিন সময়মতো হাসপাতালের এমার্জেন্সি বিভাগে গেলেন অনুব্রত। প্রত্যক্ষদর্শীদের মতে, তাঁকে দেখে যথেষ্ট অসুস্থ বলে মনে হচ্ছিল। কারও সঙ্গে কথা বলেননি তিনি। হাসপাতাল সূত্রে খবর, অনুব্রতকে উডবার্ন ওয়ার্ডের ২১১ নম্বর কেবিনে ভরতি করিয়ে শারীরিক পরীক্ষা হয়। বিকেল ৫টা নাগাদ তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হয় হাসপাতাল থেকে। 

বৃহস্পতিবার সকাল ৯ টা ৫০ নাগাদ নিজাম প্যালেসে সিবিআই (CBI) দপ্তরে হাজিরা দেন বীরভূমের তৃণমূল সভাপতি অনুব্রত মণ্ডল (Anubrata Mandal)। গরু পাচার কাণ্ডে ৬ বার সিবিআই তলব এড়ানোর পর অবশেষে এদিন তিনি হাজিরা দেন। তবে সিবিআই সূত্রে খবর, অনুব্রত নাকি সিবিআইয়ের সামনে হাজির হয়েই জানান, তিনি অসুস্থ, দুপুর ২টোয় এসএসকেএমে ডাক্তার দেখানোর কথা তাঁর। সেই সময়ের মধ্যে অনুব্রতকে কয়েকদফায় প্রশ্ন করেন তদন্তকারী অফিসার সুশান্ত ভট্টাচার্য। এরপর জেরা অসমাপ্ত রেখেই কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা তাঁকে ছেড়ে দেন। আগামী সপ্তাহে অনুব্রতকে ব্যাংক, সম্পত্তির নথি নিয়ে ফের সিবিআই দপ্তরে যাওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়।

[আরও পড়ুন: ‘করোনা টিকার মতো মজুত করতে দেব না খাদ্যশস্য’, ইউরোপকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ভারতের]

গত ৬ এপ্রিল গরু পাচার মামলায় হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল অনুব্রতর। সেই মতো ঠিক তার আগের দিনই কলকাতায় চলে আসেন তৃণমূল নেতা। ৬ তারিখ নিজাম প্যালেসে হাজিরা দিতে যাওয়ার পথে অসুস্থ হয়ে পড়েন। এসএসকেএম (SSKM) হাসপাতালে ভরতি হন। একাধিক শারীরিক সমস্যা ছিল তাঁর। টানা ১৭ দিন ওই হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন বীরভূমের দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতা। চিকিৎসকদের পরামর্শমতো চিনার পার্কের ফ্ল্যাটেই বিশ্রামে ছিলেন তিনি। তারই মাঝে একাধিকবার সিবিআইয়ের (CBI) তদন্তকারী আধিকারিকদের কাছে আইনজীবী মারফৎ লম্বা চিঠি পাঠান দোর্দণ্ডপ্রতাপ তৃণমূল নেতা। জানান, ২১ মে’র পর তিনি জিজ্ঞাসাবাদের জন্য প্রস্তুত।

[আরও পড়ুন: হিন্দু মেয়েকে বিয়ে করার ‘অপরাধ’! বুলডোজারে গুঁড়িয়ে দেওয়া হল মুসলিম যুবকের বাড়ি]

তবে নির্দিষ্ট ডেডলাইন শেষ হওয়ার আগেই বুধবার সিবিআই দপ্তরে ফের আইনজীবী মারফৎ চিঠি পাঠান অনুব্রত। গরুপাচার কাণ্ডে জিজ্ঞাসাবাদে রাজি হন তিনি। সেই মতো বীরভূমের তৃণমূল নেতাকে সময় দেয় সিবিআই। বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটার মধ্যে নিজাম প্যালেসে হাজিরার কথা ছিল। সকাল ৯টা ৫০ মিনিট নাগাদ চিনার পার্কের বাড়ি থেকে নিজাম প্যালেসে এসে পৌঁছন তিনি। ১০ টা ১০ থেকে শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। এরপর এসএসকেএমের উডবার্ন ওয়ার্ডে আড়াই ঘণ্টা ধরে নানা শারীরিক পরীক্ষা করার পর ৫ টা নাগাদ বেরিয়ে যান অনুব্রত মণ্ডল। তারপর তিনি সোজা চিনার পার্কের ফ্ল্য়াটে চলে যান। 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে