Advertisement
Advertisement
Central Force

রাজ্যের ৪ বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনেও আসছে বাহিনী

আগামী ১০ জুলাই রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন।

Central Force to be deployed by election commission for by election

ফাইল ছবি

Published by: Sayani Sen
  • Posted:June 12, 2024 11:34 pm
  • Updated:June 13, 2024 2:32 pm

সুদীপ রায়চৌধুরী: লোকসভার পর বিধানসভা উপনির্বাচনেও কেন্দ্রীয় বাহিনীর (Central Force) নজরদারিতেই হবে ভোটাভুটি। আগামী ১০ জুলাই রাজ্যের চার বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচন। তার আগে রাজ্যে আসছে ৫৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী।

নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, বাগদা বিধানসভা উপনির্বাচনে সবচেয়ে বেশি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে। সেখানে ১৬ কোম্পানি জওয়ান থাকার কথা। দ্বিতীয় স্থানে রানাঘাট দক্ষিণ। সেখানে ১৫ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে। রায়গঞ্জ এবং মানিকতলা ১২ কোম্পানি করে কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন করা হবে। বলে রাখা ভালো, এর আগে লোকসভা নির্বাচনের সময়েও দফায় দফায় বাংলায় আসে কেন্দ্রীয় বাহিনী। এমনকী ভোট মিটে যাওয়ার পরেও বাংলায় মোতায়েন রয়েছে বাহিনী। কলকাতা হাই কোর্টের বিচারপতি হরিশ ট্যান্ডনের ডিভিশন বেঞ্চ বুধবার কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকার মেয়াদ বাড়ান। তিনি জানিয়ে দেয়, ১৯ জুনের পরিবর্তে আগামী ২১ জুন পর্যন্ত রাজ্যে থাকবে বাহিনী। তবে ছাত্রছাত্রীদের পঠনপাঠনের কথা মাথায় রেখে স্কুলে জওয়ানদের থাকার ব্যবস্থা করা যাবে না বলেই জানান বিচারপতি। থাকার জন্য বিকল্প ব্যবস্থার নির্দেশও দেন তিনি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: ঘরে-বাইরে প্রবল আক্রমণ, চাপের মুখে বঙ্গ বিপর্যয়ের দায় ঝাড়ছেন শুভেন্দু!]

উল্লেখ্য, আগামী ১০ জুলাই মানিকতলা, রানাঘাট দক্ষিণ, বাগদা এবং রায়গঞ্জ বিধানসভায় উপনির্বাচন। ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে মৃত্যু হয় সাধন পাণ্ডের। তার পর থেকেই মানিকতলা বিধায়কহীন। পরাজিত বিজেপি প্রার্থী আদালতের দ্বারস্থ হন। নানা জটিলতার মাঝে দুমাসের মধ্যে উপনির্বাচনের সময়সীমা বেঁধে দেয় সুপ্রিম কোর্ট। সেইমতো গত ৩১ মে মুখবন্ধ খামে মানিকতলা উপনির্বাচনের প্রস্তাবিত দিনক্ষণ জানায় কমিশন। সেখানে আগামী ১০ জুলাই ভোটাভুটি। উত্তর দিনাজপুরের রায়গঞ্জে একুশের বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে জয়ী হন কৃষ্ণ কল্যাণী। পরে তিনি তৃণমূলে যোগ দেন। এবার লোকসভা নির্বাচনে শাসক শিবির টিকিটও দেয় তাঁকে। ফলে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন তিনি। ওই বিধায়ক শূন্য আসনেও উপনির্বাচন।

Advertisement

রানাঘাট দক্ষিণ কেন্দ্রও একইভাবে বিধায়ক শূন্য। সেখানে বিজেপির টিকিটে লড়ে বিধায়ক হয়েছিলেন মুকুটমণি অধিকারী। তিনি সম্প্রতি তৃণমূলে যোগ দেন। লড়েন লোকসভা নির্বাচনে। সে কারণে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন। তাই এবার রানাঘাট দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্রেও নির্বাচন। বনগাঁর বাগদা বিধানসভা কেন্দ্রেও উপনির্বাচন। কারণ, বিধায়ক বিশ্বজিৎ দাসও দলবদল করে লোকসভা নির্বাচনে তৃণমূলের হয়ে লড়াই করেন। সে কারণে বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন। তাই বিধায়কশূন্য বাগদাতেও আগামী ভোটাভুটি। ১৩ জুলাই ভোটগণনা। যদিও নৈহাটি, হাড়োয়া,মেদিনীপুর, বাঁকুড়ার তালড্যাংরা, মাদারিহাটে কবে হবে বিধানসভা উপনির্বাচন, তা এখনও কমিশনের তরফে জানানো হয়নি। 

[আরও পড়ুন: বাংলায় বার্ড ফ্লু আক্রান্ত ৪ বছরের শিশু! উদ্বেগ প্রকাশ WHO-এর]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ