BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দুর্ঘটনা ঘিরে তৃণমূলের ‘দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষ’ বেলুড়ে, থানার ভিতরেই চলল গুলি

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: April 22, 2019 5:57 pm|    Updated: April 22, 2019 6:07 pm

An Images

অরিজিৎ গুপ্ত, হাওড়া: সামান্য পথ দুর্ঘটনাকে কেন্দ্র করে প্রকাশ্যে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব। দু’পক্ষের সংঘর্ষে  রণক্ষেত্র বেলুড়। সোমবার সকালে একটি বাইকে ধাক্কা দেয় একটি পুলকার।এই দুর্ঘটনা ঘিরে স্থানীয়দের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। অশান্তির পরিবেশ সৃষ্টি হয়। দ্রুত সেই অশান্তি রাজনৈতিক রং নেয়। অভিযোগ জানাতে গিয়ে থানার ভিতরেই হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়ে তৃণমূলের দুই গোষ্ঠী। ইট-বৃষ্টির পাশাপাশি থানা চত্বরেই চলে গুলি। ইট বৃষ্টিতে আহত হন কর্তব্যরত একাধিক পুলিশ আধিকারিক।পুরো ঘটনায় প্রশ্নের মুখে পুলিশের ভূমিকা।  

[আরও পড়ুন: দীর্ঘদিন বাদে জনসমক্ষে ‘ডিস্কো ডান্সার’, তারাপীঠ মন্দিরে পুজো দিলেন মিঠুন]

ঘটনার সূত্রপাত সোমবার সকালে। জানা গিয়েছে, এদিন সকালে বেলুড় চত্বরে একটি বাইকে ধাক্কা দেয় একটি পুলকার। তা নিয়ে দুই চালকের মধ্যে শুরু হয় বচসা। অভিযোগ, এরপর বাইক চালককে আক্রমণ করেন গাড়ির চালক।বিবাদ মেটাতে বেলুড় থানার দ্বারস্থ হয় বিবাদমান দু’পক্ষ। সেসময় থানায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ৬২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর কৈশাল মিত্র। তিনি ও তাঁর দলবল গাড়ি চালকের পক্ষ নেয়।  অন্যদিকে, বাইক আরোহীর সমর্থন করেন ৬১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। এরপরই, থানার ভিতরে হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন দুই কাউন্সিলরের অনুগামীরা। প্রতিপক্ষকে লক্ষ্য করে থানার ভিতরেই ইট ছোঁড়ে দু’পক্ষ।  অভিযোগ, সেই সময় আহত হন পুলিশকর্মীরাও। পরিস্থিতি ক্রমেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। থানার ভিতরেই ২ রাউন্ড গুলি চালানোর অভিযোগ ওঠে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে। লাঠি, রড ও পিস্তল নিয়ে এলাকায় দাপাদাপি করে অভিযুক্তরা। আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। দীর্ঘক্ষণ পর স্বাভাবিক হয় পরিস্থিতি। 

[আরও পড়ুন: টার্গেট হিন্দু ভোটব্যাংক, উলুবেড়িয়ার সভায় মেরুকরণের অস্ত্রেই শান অমিতের]

জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন ধরেই ওই এলাকায় তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীর মধ্যে অশান্তি চলছিল। অনুমান, সেই অশান্তিই এদিন বিশাল আকার নেয়। তবে, আপাতত নিয়ন্ত্রণে পরিস্থিতি। যদিও গোষ্ঠী সংঘর্ষের কথা অস্বীকার করেছে তৃণমূল নেতৃত্ব। এদিনের ঘটনায় কেবল দর্শকের ভূমিকায়  ছিলেন পুলিশ, এমনই অভিযোগ প্রকাশ্যে এসছে।  

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement