BREAKING NEWS

২৮ আশ্বিন  ১৪২৭  শুক্রবার ২৩ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

‘সাবধানে থাকবেন’, ভিডিও কনফারেন্সে মুখ্যমন্ত্রীর জন্য উদ্বেগ প্রকাশ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 7, 2020 8:04 pm|    Updated: April 7, 2020 9:48 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সারল্য আর আন্তরিকতাই তাঁর সম্পদ। যে কারণে তিনি জননেত্রী। আর তাঁর এই সারল্যের ছোঁয়ায় অনেক দূরত্ব হয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে সেভাবেই কলকাতা আর বোস্টনের দূরত্ব ঘুচে গেল স্রেফ কয়েকটি কথায়। “আপনি সাবধানে থাকবেন। যেখানে সেখানে যাচ্ছেন, আপনার জন্যই চিন্তা হয় আমার।” চিন্তিত স্বরে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য কথাগুলি বললেন নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ বঙ্গসন্তান অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধানের জন্য উদ্বেগ প্রকাশ করলেন তিনি। যাঁকে কেন্দ্রে রেখে এই সংকটের সময় মুখ্যমন্ত্রী তৈরি করে ফেলেছেন গ্লোবাল অ্যাডভাইজরি বোর্ড। সোমবার এই বোর্ডে তৈরির কথা ঘোষণা করেছিলেন তিনি। মঙ্গলবার প্রথম বৈঠকেই ভিডিও কনফারেন্সে হাজির হলেন অভিজিৎবাবু। সেই বোস্টন থেকে। সেখানে তখন সবে সকাল। যখন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী তাঁর উপর এতখানি নির্ভর করছেন, তখন তিনিও নিজের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিতে বিন্দুমাত্র দ্বিধা করলেন না। ঘুম ভাঙার পরই যোগ দিলেন গুরুত্বপূর্ণ বৈঠকে।

[আরও পড়ুন: লকডাউনের জেরে আটকে রোগীদের ভেলোর যাওয়া, বাজারে অমিল প্রয়োজনীয় ওষধুও]

Mamata-Abhijit

প্রথমার্ধে মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে সবিস্তারে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি জানিয়ে দেন। তারপর শুনতে চাইলেন তাঁর মতামত। নোবেলজয়ীর মতে, সাবধানে, সতর্ক হয়ে থাকাই রোগ মোকাবিলার সবচেয়ে বড় হাতিয়ার। তবে নমুনা পরীক্ষা আরও বাড়ানো প্রয়োজন। এখনই random testing শুরু করলে সংক্রমণ অনেকটা রোখা যাবে বলে আশাবাদী অভিজিৎ বন্দোপাধ্যায়। এই মতামত আদানপ্রদানের পর মুখ্যমন্ত্রী তাঁকে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, “আপনার পরামর্শ মেনে চলব আমরা। আপনি সাবধানে থাকবেন।” জবাবে অভিজিৎ তাঁকে কিছুটা শাসনের সুরেই বলে উঠলেন, “আপনি সাবধানে থাকবেন। আপনি তো এদিক-ওদিক যাচ্ছেন। আপনার জন্যই চিন্তা হয়…।” এই আপনজন সুলভ শাসনে, উদ্বেগের কাছে এ রাজ্যের শাসক কার্যত থমকে গেলেন। সামান্য হেসে একে অপরকে বিদায় জানালেন।

সামান্য এই ক’টি কথা থেকেই বোঝা গেল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পর্ক ঠিক মুখ্যমন্ত্রী আর পরামর্শদাতার নয়। একেবারে নিখাদ একজন কর্মপ্রাণ মানুষের সঙ্গে আরেক কর্মপ্রাণ মানুষের অন্তরের সম্পর্ক।

[আরও পড়ুন: ‘আপনারাও কম বেতন নিন’, রাজ্যের মন্ত্রী-বিধায়কদের অনুরোধ জগদীপ ধনকড়ের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement