Advertisement
Advertisement
CM Mamata Banerjee

‘গন্ডগোলের ছক করতে পারে অনেকে, পা দেবেন না’, ছটপুজোয় গিয়ে সতর্কবার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

'আপনাদের ছেলেমেয়েদের চাকরি হোক', ছটপুজোর শুভেচ্ছা জানালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

CM Mamata Banerjee warns devotees who celebrate Chhath puja to avoid chaos | Sangbad Pratidin
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:October 30, 2022 6:51 pm
  • Updated:October 30, 2022 8:04 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ধর্ম যার যার, উৎসব সবার। বঙ্গে বারো মাসের তেরো পার্বণে এখন এটাই প্রচলিত কথা হয়ে দাঁড়িয়েছে। কী ঈদ, কী ক্রিসমাস, কী ছটপুজো – বাঙালি সবেতেই উৎসবমুখর। তবে এসব উৎসবের মাঝেই গন্ডগোল পাকানোর ছক করে কেউ কেউ। তাদের থেকে সাবধান। রবিবার বিকেলে গঙ্গাতীরে ছটপুজোয় অংশ নিয়ে জনগণকে সাবধান করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee)। বললেন, ”এই সময় গন্ডগোলের ছক করছে অনেকে, তাতে পা দেবেন না। সকলে ধীরেসুস্থে, সাবধানে পুজো করুন।” এরপর তিনি পোস্তাবাজারের ব্যবসায়ীদের আয়োজিত জগদ্ধাত্রী পুজোর (Jagaddhatri Puja) উদ্বোধন করে সেখান থেকেও সর্বধর্ম সমন্বয়ের বার্তা দিয়েছেন।

Advertisement

প্রতি বছরের মতো এবারও ছটপুজোয় (Chhath Puja) দইঘাট ও তক্তাঘাটে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। দইঘাটে প্রদীপ জ্বালিয়ে, উপচার সাজিয়ে পুজো দেন। জনতার উদ্দেশে বার্তা দিয়ে বলেন, ”সব ধর্মই আমাদের ধর্ম। সমস্ত উৎসবে বাংলা শামিল হয়। আগে ছটপুজোয় একদিন সরকারি ছুটি থাকত। কিন্তু আমি পরে জানতে পেরেছি, এটা দু’দিনের উৎসব। তাই গত বছর থেকে ২ দিন সরকারি ছুটি।” এরপর তিনি দইঘাটে পুজো দিতে আসা মহিলাদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, ”প্রার্থনা করি, আপনাদের সন্তানদের চাকরি হোক, সকলে ভাল থাকুন।” এদিন ছটপুজোর অনুষ্ঠানে তাঁর সঙ্গে ছিলেন ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত বক্সি।

Advertisement

[আরও পড়ুন: মহারাষ্ট্র ছেড়ে গুজরাটে TATA, ‘সরকারে আস্থা নেই বণিক মহলের’, দাবি আদিত্য ঠাকরের]

এরপর মুখ্যমন্ত্রী চলে যান পোস্তাবাজারে। সেখানে মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের জগদ্ধাত্রী পুজোয়। প্রতি বছর এই পুজোর উদ্বোধন করে থাকেন মুখ্যমন্ত্রী। এদিন তাঁর সঙ্গে দেখা গেল শশী পাঁজা, সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, নয়না বন্দ্যোপাধ্যায়। ছিলেন পুলিশ কমিশনার বিনীত গোয়েলও। মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রীকে উত্তরীয় দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়। তিনি প্রদীপ জ্বালিয়ে পুজোর উদ্বোধন করেন।

 

এরপর সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ”একই সময়ে ছটপুজো আর জগদ্ধাত্রী পুজো এল এবার। আমি এর আগে ছটপুজোও করেছি হেস্টিংসের ঘাটে গিয়ে। সব ধর্মই আমাদের। দুর্গাপুজো, দিওয়ালি, ছটপুজো আমরা একসঙ্গে সব পালন করি। মনে রাখবেন, আপনার ভারত, আমারও ভারত। সবাই একসঙ্গে থাকি। একসঙ্গে আনন্দে মেতে উঠি। শত অন্ধকারেও আমি আপনাদের পাশেই আছি।” তাঁকে কাছে পেয়ে আপ্লুত পুজো উদ্যোক্তারা।

[আরও পড়ুন: ‘পরিস্থিতি খারাপ হচ্ছে, মানুষের কান্না শুনুন, গণতন্ত্রকে বাঁচান’, বিচারব্যবস্থার কাছে আরজি মুখ্যমন্ত্রীর]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ