BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জল সংরক্ষণে এগিয়ে আসুন, বিধানসভায় দাঁড়িয়ে আহ্বান উদ্বিগ্ন মুখ্যমন্ত্রীর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: June 28, 2019 4:03 pm|    Updated: June 28, 2019 4:43 pm

CM Mamata Bannerjee speaks on growing water crisis

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ক্যালেন্ডারের হিসেবে বর্ষা প্রবেশ করেছে বঙ্গে৷ তবে ঝেঁপে বৃষ্টির দেখা নেই এখনও৷ মৌসম ভবনের আবার পূর্বাভাস, এ মরশুমে বর্ষার দাপট তেমন থাকবে না৷ বৃষ্টিপাতের পরিমাণ কিছুটা কমই হবে৷ ফলে কৃষিজমিতে ফলনে তার প্রভাব তো থাকছেই, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষাও খানিকটা বিপাকে পড়বে৷ ইতিমধ্যেই চারপাশে জলসংকট দেখা যাচ্ছে৷ এই পরিস্থিতিতে উদ্বেগ প্রকাশ করে পরিবেশ রক্ষার ডাক দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷

[আরও পড়ুন: বাঙুর হাসপাতালে নিখোঁজ রোগীর সন্ধান এসএসকেএমে, তদন্তের দাবি পরিবারের]

শুক্রবার বিধানসভার অধিবেশন জলসংকট এবং ভবিষ্যতের পরিবেশের বিপদ সম্পর্কে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ বলেন, ‘বিশ্ব উষ্ণায়নের জন্য বিশ্বের বিভিন্ন জায়গায় পানীয় জলের সমস্যা দেখা দিয়েছে৷ আমরা এনিয়ে পরীক্ষা করে দেখেছি, কয়েকটি ব্লকে সমস্যা আছে৷ ভূগর্ভের উপরিতলের জলস্তর বাড়াতে হবে৷ আরও বেশি পুকুর খনন করতে হবে৷’ পাশাপাশি, সকলের কাছে জলের অপচয় বন্ধ করার আবেদনও জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ রাজ্য সরকারের পরিবেশ কল্যাণমূলক প্রকল্পগুলির মধ্যে অন্যতম ‘জল ধরো, জল ভরো’৷ যার মাধ্যমে বৃষ্টির জল সঞ্চয় করে কৃষিকাজে লাগানো হয়৷ উদ্ভুত পরিস্থিতিতে এই প্রকল্পকে আরও জোর দেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি৷ এছাড়া জলের অভাবে জমিগুলিতে বিকল্প কৃষিকাজের কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী৷ শুক্রবার বিধানসভার আলোচনায় পরিবেশ সচেতনতার বার্তা দিয়ে তিনি ‘জল বাঁচাও, বিদ্যুৎ বাঁচাও, পরিবেশ বাঁচাও’ স্লোগানও তোলেন৷

এদিন নদী সংস্কারের কথাও বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ যেসব নদী মজে গিয়েছে, নতুন করে সেগুলো সংস্কারের কাজে ইতিমধ্যেই হাত দিয়েছে রাজ্য সরকার৷ বাঁকুড়া, বর্ধমান, বীরভূম, হুগলির বিভিন্ন নদী সংস্কারের জন্য ২৭০০ কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়৷ পরিবেশ সচেতনতায় মুখ্যমন্ত্রীর এই বার্তাকে স্বাগত জানিয়েছেন বিরোধীরা৷

[আরও পড়ুন:৮০০ কোটি টাকার সম্পত্তি শুনে ব্যবসায়ীকে অপহরণ, ধৃত পারিবারিক বন্ধু]

চলতি মরশুমে মহারাষ্ট্র, গুজরাট, তামিলনাডুর মতো রাজ্যে প্রবল জলসংকট দেখা দিয়েছে৷ পরিবেশবিদদের গবেষণা বলছে, ভূগর্ভের উপরিতলের জলভাগই শুকিয়ে যাচ্ছে৷ আসন্ন বিপদ৷ এখনই সচেতন না হলে, আগামী বছরের মধ্যে কলকাতাতেও এর প্রভাব পড়বে৷ সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে মুখ্যমন্ত্রীরও আবেদন, এখনই যেন পরিবেশ সচেতনতায় ইতিবাচক পদক্ষেপ নেওয়া হয়৷     

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে