BREAKING NEWS

৮ আষাঢ়  ১৪২৮  বুধবার ২৩ জুন ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

চেতলা অগ্রণী ক্লাবের উদ্যোগে এবার ‘দুয়ারে অক্সিজেন’, বাড়ি বাড়ি পৌঁছে যাবে কনসেন্ট্রেটর

Published by: Sulaya Singha |    Posted: May 12, 2021 2:06 pm|    Updated: May 12, 2021 4:36 pm

Corona Crisis: Firhad Hakim's Chetla Agrani Club will provide Oxygen concentrator | Sangbad Pratidin

কৃষ্ণকুমার দাস: সরকারের ‘দুয়ারে সরকার’ প্রকল্পে উপকৃত হয়েছেন রাজ্যবাসী। এবার করোনা কালে সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াতে অভিনব উদ্যোগ নিল চেতলা অগ্রণী ক্লাব। শুরু হল ‘দুয়ারে অক্সিজেন’। অক্সিজেন সংকট মেটাতে বিনামূল্যে বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দেওয়া হবে অক্সিজেন কনসেন্ট্রটর।

বুধবারই এই অভিযানের সূচনা করেন চেতলা অগ্রণী (Chetla Agrani) ক্লাবের প্রধান তথা পরিবহণ মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানান, চেতলা এলাকায় যাতে কাউকে অক্সিজেনের অভাবে না ভুগতে হয়, সে কারণেই ক্লাবের তরফে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় বাসিন্দারা অক্সিজেন চাইলেই তা বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া হবে। আপাতত ১০টি অক্সিজেন কনসেন্ট্রটর নিয়ে কাজ শুরু করছে ক্লাব। পরবর্তীতে এই সংখ্যা আরও বাড়ানো হবে বলেই জানান তিনি। এই কনসেন্ট্রটরগুলি ১০ লিটার পর্যন্ত অক্সিজেন সাপোর্ট দিতে সক্ষম।

[আরও পড়ুন: ‘প্রচণ্ড বৃষ্টি, গাড়িতে বাড়ি ফিরব’, বাবাকে কথা দিয়েও ফেরা হল না ঋষভের, গাফিলতি কার?]

করোনা (Corona Virus) মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে পুজো কমিটিগুলিও। জানিয়ে দেয়, তাদের ক্লাব বা কমিউনিটি হলে তৈরি হবে সেফ হোম অথবা অক্সিজেন বুথ। ইতিমধ্যে সেই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এবার চেতলা অগ্রণীও নিল নতুন উদ্যোগ। এতে এলাকার মানুষদের অক্সিজেনের সমস্যা অনেকটাই মিটবে বলে আশা করা হচ্ছে।

শপথ নিয়েই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (CM Mamata Banerjee) জানিয়েছিলেন, কোভিড পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ এখন সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এই পরিস্থিতির মোকাবিলাই আপাতত তাঁর এবং তাঁর মন্ত্রিসভার প্রাথমিক এবং সর্বাধিক গুরুত্বপূর্ণ কর্তব্য। করোনা সংক্রমণ রুখতে এবং অক্সিজেন সরবরাহ স্বাভাবিক করতে সরকারের তরফে একাধিক উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। এদিনই যেমন দুয়ারে অক্সিজেন অভিযানের কথা ঘোষণার পাশাপাশি ফিরহাদ হাকিম জানান, সাধারণ মানুষের সাহায্যার্থে কলকাতা পুরসভা দেড়শোটি অক্সিজেন কনসেন্ট্রটর এনেছে। যেগুলি সেফ হোমে থাকা করোনা আক্রান্তদের জন্য ব্যবহার করা হবে। তাছাড়া কেউ চাইলে ৭ হাজার টাকা জমা রেখে পুরসভা থেকে কনসেন্ট্রটর নিয়ে যেতে পারবেন। কাজ মিটে গেলে আবার পুরো টাকাটাই ফেরত পেয়ে যাবেন। এতে অক্সিজেনের চাহিদা অনেকটা পূরণ করা সম্ভব হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: অনেক আসনেই দু’হাজারের কম ভোটে হার, পুনর্গণনা চেয়ে কোর্টে যাবে বিজেপি]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement