২ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এবার কলকাতার দমকল কেন্দ্রে করোনা আতঙ্ক, কোয়ারেন্টাইনে ৩২ কর্মী

Published by: Sulaya Singha |    Posted: April 22, 2020 3:18 pm|    Updated: April 22, 2020 4:41 pm

An Images

ক্ষীরোদ ভট্টাচার্য: এবার শহরের দমকল কেন্দ্রে ছড়াল করোনার আতঙ্ক। মানিকতলা দমকলের ৩২ জন কর্মীকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠাল প্রশাসন।

মানিকতলার এই দমকল কেন্দ্রের এক আধিকারিকের স্ত্রী কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে কর্মরত। দিন কয়েক আগে তিনি করোনায় আক্রান্ত হয়েছিলেন। ফলে ওই মহিলার স্বামী দমকল কেন্দ্রে আসতেই আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছিল যে কর্মীরা দমকল কেন্দ্রে ঢুকতেই চাইছিলেন না। তাই বিলম্ব না করে সেখানকার কর্মরত ৩২ জনকেই হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। দমকল মন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবেই কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে তাঁদের। মঙ্গলবারই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু এই অবস্থায় তো দমকল কেন্দ্রটি বন্ধ করে দিলে চলে না। তাই অন্যান্য কেন্দ্র থেকে কিছু কিছু কর্মী এনে কাজ চালানো হচ্ছে। প্রতিটা কেন্দ্রেই সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। কর্মীদের স্যানিটাইজার, মাস্ক, গ্লাভস দেওয়া হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: অহযোগিতার প্রশ্নই নেই, কেন্দ্রীয় দল নিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রককে পালটা চিঠি রাজ্যের মুখ্যসচিবের]

কর্মীদের অবশ্য দাবি ছিল, কর্মক্ষেত্রেই কোয়ারেন্টাইন করে রাখা হোক তাঁদের। তাহলে অন্তত পরিবারের সদস্যরা নিরাপদে থাকতে পারবেন। কিন্তু দমকলকে আগের মতোই সচল রাখতে হবে। তাই সেখানে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে সমস্যা হবে কর্মীদের। ফলে শেষমেশ হোম কোয়ারেন্টাইনেই যেতে হয় তাঁদের।

যতদিন যাচ্ছে, রাজ্যে বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। সোমবার বিকেল পর্যন্ত বাংলায় অ্যাকটিভ কেস ২৭৪। মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের। এমন পরিস্থিতিতে করোনা মোকাবিলায় শহরের বিভিন্ন এলাকা স্যানিটাইজ করা হচ্ছে। স্বাস্থ্যদপ্তর সেই ক্ষেত্রে দমকলেরই সাহায্য নিচ্ছে। তাই দমকলকে আরও বেশি সক্রিয় করার জন্য সবরকম তৎপরতা শুরু হয়ে গিয়েছে। কর্মীদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে মাস্ক-স্যানিটাইজার ইত্যাদি দেওয়া হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: করোনা আক্রান্ত বিআর সিং হাসপাতালের চিকিৎসক, বিক্ষোভ কর্মীদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement