BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা আতঙ্কে বাড়ি বসেই কাজ বিজেপির আইটি সেলের, ফাঁকা সদর দপ্তর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: March 20, 2020 9:02 pm|    Updated: March 20, 2020 9:05 pm

An Images

ফাইল ফটো

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: করোনা সতর্কতায় গেরুয়া শিবিরেও ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’। দলের মিডিয়া ও আইটি সেলের সমস্ত কর্মীদেরই বাড়ি থেকে কাজ করতে বলা হয়েছে। রাজ্য বিজেপি দপ্তরও কার্যত ফাঁকা। রাজ্য নেতৃত্বকেও যতটা সম্ভব বাড়িতে থেকেই কাজ চালাতে বলা হয়েছে। যতটা সম্ভব যাতায়াত কম করা এবং ভিড় এড়ানোর পরামর্শও দেওয়া হয়েছে দলীয় সাংসদ ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের। বিমানের বদলে দিল্লি থেকে ট্রেনেই কলকাতা ফিরছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ(Dilip Ghosh)।

শুক্রবার থেকেই বিজেপির রাজ্য দপ্তর কার্যত শুনশান। ক’দিন আগের সেই চেনা ছবিটা উধাও। দলের রাজ্য মিডিয়া সেলের ইনচার্জ সপ্তর্ষি চৌধুরির বক্তব্য, “ওয়ার্ক ফ্রম হোম হলেও মিডিয়া সেল তাদের সমস্তরকম দায়িত্ব সঠিকভাবেই পালন করবে। মিডিয়ার সঙ্গে কমিউনিকেশন ঠিকঠাক থাকবে।” রাজ্য বিজেপি দপ্তরে যারা আসছেন তাদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে হচ্ছে। নেতারা পার্টি অফিসে বেশি এলে কর্মীদের ভিড় হয়। তাই ভিড় এড়াতে নেতারা যতটা সম্ভব বাড়িতেই থাকছেন। শুক্রবার কিছুক্ষনের জন্য দলীয় দপ্তরে এসেছিলেন দলের কেন্দ্রীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা, রাজ্য সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

[আরও পড়ুন: ‘পশ্চিমবঙ্গের জনঘনত্ব বিপজ্জনক’, করোনা সংক্রমণ নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ রাজ্যপালের]

‘জনতা কারফিউ’ পালনের জন্য দেশবাসীর কাছে আবেদন করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি (Narendra Modi)। আগামী রবিবার, ২২ মার্চ সকাল ৭ টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত দেশের মানুষকে ঘরবন্দি থাকার জন্যই অনুরোধ করেছেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, “প্রত্যেক দেশবাসীর কাছে একটি বিষয়ে সমর্থন চাইছি। যা হল জনতা কারফিউ। যা হল জনতার জন্য, জনতার দ্বারা নিজেদের উপর লাগু করা কারফিউ। এই রবিবার অর্থাৎ ২২ মার্চ সকাল ৭টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত সমস্ত দেশবাসীকে জনতা কারফিউ পালন করতে হবে। একই সঙ্গে জরুরি পরিষেবার সঙ্গে যাঁরা যুক্ত, প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন, রবিবার বিকেল পাঁচটায় পাঁচ মিনিট ধরে হাততালি দিয়ে, থালা-ঘণ্টা বাজিয়ে তাঁদের অভিনন্দন জানান সকলে।” জনতা কারফিউয়ে শামিল হওয়ার জন্য দলের সমস্ত জেলার নেতা-কর্মী থেকে শুরু করে রাজ্য কমিটির সদস্যদের নির্দেশ দিয়েছে বঙ্গ বিজেপির শীর্ষ নেতৃত্ব। পাশাপাশি জরুরি পরিষেবায় যারা প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে কাজ করছেন তাদেরকে অভিনন্দন জানাতে শঙ্খ ও উলুধ্বনি দেবে বঙ্গ বিজেপির মহিলা মোর্চা। শুক্রবার কলকাতায় ফিরে এমনটাই জানিয়েছেন মহিলা মোর্চার রাজ্য সভানেত্রী তথা সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। রবিবার জনতা কারফিউ-এর সময় দিল্লিতে বাড়িতেই থাকবেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরি।

[আরও পড়ুন: জীবাণু সংক্রমণের আশঙ্কায় ফাঁকা চিনে রেস্তরাঁ, ব্যবসা চালাতে নয়া উদ্যোগ মালকিনের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement