১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  শুক্রবার ৬ ডিসেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাটমানি বিক্ষোভের আঁচ এবার নবান্নেও। বৃহস্পতিবার সকালে রাজ্যের প্রশাসনিক সদর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভে শামিল হন বিজেপির মহিলা মোর্চার কুড়ি থেকে পঁচিশজন সদস্য। পুলিশ অবশ্য দ্রুত বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেয়।

[আরও পড়ুন: টার্গেট ২০২১, শাসকদলকে চাপে রাখতে লাগাতার আন্দোলনের পথে বিজেপি]

অভিযোগটা ছিলই। কিন্তু খোদ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কড়া বার্তা দেওয়ার পর কাটমানি ফেরতের দাবিতে রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ চলছে। বিড়ম্বনায় পড়েছেন তৃণমূল কংগ্রেসের জনপ্রতিনিধি, এমনকী নেতারাও। বেশ কয়েকটি জায়গায় চাপের মুখে পড়ে টাকা ফেরতও দিয়েছেন তৃণমূল কংগ্রেস নেতারা। কিন্তু, তাতেও সন্তুষ্ট নন রাজ্যের বিজেপি নেতারা। বরং নবান্ন থেকে কাটমানি ফেরতের দাবি তুলেছেন তাঁরা। গেরুয়া শিবিরের নেতাদের অভিযোগ, সরকারি প্রকল্পে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তে কাটমানি নিয়েছেন স্থানীয় তৃণমূল নেতারা। কিন্তু সেই টাকার সিংহভাগই জমা পড়েছে নবান্নে। তাই রাজ্যের প্রশাসনিক সদর দপ্তর থেকে কাটমানি ফেরতের ব্যবস্থা করতে হবে সরকারকে। এই ইস্যুতে বৃহস্পতিবার রাজ্যজুড়ে বিক্ষোভ কর্মসূচি নিয়েছে রাজ্য বিজেপি। সেই বিক্ষোভেরই আঁচ পৌঁছে গেল নবান্নেও।

জানা গিয়েছে, বৃহস্পতিবার সকালে নবান্নের সমানে জড়ো হন বিজেপির মহিলা মোর্চার সদস্যরা। বিজেপি যে রাজ্যের প্রশাসনিক সদর দপ্তরের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে পারে, সেই খবর পুলিশের কাছে ছিল বলে জানা গিয়েছে। নিরাপত্তাও আঁটসাঁট করা হয়েছিল। কিন্তু, সেই নিরাপত্তা বেষ্টনী ভেদ করে নবান্নের মূল ফটকের সামনে পৌঁছে যান গেরুয়া শিবিরের মহিলা সদস্যরা। শুরু হয় তুমুল বিক্ষোভ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে দ্রুত পদক্ষেপ করে পুলিশও। মহিলা পুলিশের সাহায্যে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেওয়া হয়। সকলকেই গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে খবর। মিনিট দশেকের মধ্যে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যায়।

[আরও পড়ুন: পোস্তা উড়ালপুল ভাঙতে টেন্ডার ডাকল কেএমডিএ, পুজোর আগেই শুরু পুনর্নির্মাণ]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং