১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সাতসকালে রাস্তার ধারে উদ্ধার গৃহবধূর রক্তাক্ত দেহ, বেহালার ঘটনায় ঘনীভূত রহস্য

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: February 11, 2021 10:55 am|    Updated: February 11, 2021 10:57 am

Deadbody of a woman rescued from Jaysri Park, Behala, police starts investigation |SangbadPratidin

অর্ণব আইচ: সাতসকালে রাস্তার ধারে গৃহবধূর রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার ঘিরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ল বেহালায় (Behala)। জয়শ্রী পার্ক এলাকার পদ্মপুকুরের কাছে তাঁর মৃতদেহ দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। চোখে-মুখে রক্তের চিহ্ন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে দেহটি উদ্ধার করে বেহালা থানার পুলিশ। মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে তা বিদ্যাসাগর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে ময়নাতদন্তের জন্য।

স্থানীয় সূত্রে খবর, মৃত মহিলা নীলাক্ষি ভট্টাচার্য বেহালার আনন্দপল্লির বাসিন্দা। তাঁর বয়স আনুমানিক পঁয়তাল্লিশ বছর। বুধবার সন্ধের দিকে তাঁকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা গিয়েছিল বলে প্রতিবেশীরা জানাচ্ছেন। আরও জানা যাচ্ছে, ওই মহিলার নেশার অভ্যাস ছিল। তার টানেই তিনি বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতেন মাঝেমধ্যে। বুধবার সন্ধের পর আর বাড়ি ফেরেননি নীলাক্ষিদেবী। এরপর বৃহস্পতিবার সকালে জয়শ্রী পার্কের ধারে তাঁর মৃতদেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, মহিলাকে ভারী কিছু দিয়ে আঘাত করে হত্যা করা হয়েছে। কারণ, তাঁর মাথার পিছনে এবং বাঁ-দিকের চোখে কাছে আঘাত রয়েছে।

[আরও পড়ুন: পঠনপাঠন চালুর পর পড়ুয়ারা কোভিড পজিটিভ হলে দায় নেবে না বেসরকারি স্কুলগুলো]

প্রাথমিক পর্যবেক্ষণের পর পুলিশের অনুমান, খুন হয়েছেন নীলাক্ষিদেবী। তবে অন্যান্য সম্ভাবনার কথাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তিনি নিজেও কোনওভাবে পিছন দিকে পড়ে যেতে পারেন। তাতেও তাঁর মাথায় আঘাত লাগতে পারে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে না পাওয়া পর্যন্ত নির্দিষ্টভাবে কিছুই বলা যায় না। তবে গৃহবধূর এই রহস্যমৃত্যুতে স্তম্ভিত পরিবার। প্রাথমিক ধাক্কা সামলে এখনও এ নিয়ে মুখ খোলেননি পরিবারের কোনও সদস্য। পুলিশ তদন্তে নেমে জেরা শুরু করেছে তাঁদের সকলকে।

[আরও পড়ুন: বন সহায়ক পদে নিয়োগ তরজা গড়াল হাই কোর্টে, রাজ্যের কাছে হলফনামা চাইল আদালত]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে