BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

করোনা পরীক্ষার কিট ত্রুটিপূর্ণ, টুইটারে ICMR-এর দিকে আঙুল তুলল রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 20, 2020 10:31 am|    Updated: April 20, 2020 10:41 am

An Images

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা আক্রান্তদের দ্রুত চিহ্নিত করতে রাজ্যের ব়্যাপিড টেস্ট কেন শুরু হচ্ছে না? এ নিয়ে বারবারই নানা মহলে প্রশ্ন উঠেছে। এবার ধীরগতিতে পরীক্ষার গোটা দায়ভার ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর মেডিক্যাল রিসার্চের (ICMR) উপর চাপাল রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তর। ধারাবাহিক টুইটারে তাদের অভিযোগ, ICMR ত্রুটিপূর্ণ টেস্ট কিট পাঠিয়েছে, তাতেই সমস্যা বাড়ছে। এদিকে, রাজ্যে করোনা পরীক্ষার ভার মূলত যাদের উপর, সেই নাইসেডের সংক্ষিপ্ত তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া, বিষয়টি দুর্ভাগ্যজনক।

রবিবার রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে অন্তত ৫টি টুইট করা হয়েছে। যাতে তাদের অভিযোগ, ICMR-এর পাঠানো টেস্ট কিটগুলি অধিকাংশই ত্রুটিপূর্ণ। তাই ফলাফল পেতে দেরি হচ্ছে, ব়্যাপিড টেস্ট করা সম্ভব হচ্ছে না। এই মুহূর্তে চিন্তা বাড়িয়েছে করোনার বাহকরা। অর্থাৎ যাঁদের শরীরে জীবাণুর অস্তিত্ব রয়েছে সুপ্ত অবস্থায়। একমাত্র ‘পুল টেস্টিং’এর মাধ্যমেই তাঁদের চিহ্নিত করা সম্ভব। সেকথা মাথায় রেখে শনিবার রাতেই রাজ্যে ‘পুল টেস্টিং’ চালু হওয়ার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছিল নবান্ন। তবে ICMR-এর পাঠানো কিটে এই সমস্যা দেখা দেওয়ায় তা কতটা বাস্তবায়িত করা যাবে, গোড়াতেই সেই চিন্তা দেখা দিল।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে বাড়ছে খাদ্য সংকট, বিবাহ বার্ষিকীর জন্য জমানো টাকায় খাদ্যসামগ্রী বিলি দম্পতির]

রাজ্য স্বাস্থ্য দপ্তরের এই অভিযোগ উড়িয়ে দেয়নি নাইসেডও। অধিকর্তা শান্তা দত্ত বিষয়টিকে ‘দুর্ভাগ্যজনক’ বলে অ্যাখ্যা দিয়েছেন। তাঁর ব্যাখ্যা, দেশজুড়ে সংক্রমণ বাড়তে থাকায় এই মুহূর্তে রেডিমেড টেস্ট কিট কিনে পরীক্ষার জন্য পাঠাচ্ছে ICMR. নিয়ম অনুযায়ী, পরীক্ষার আগে এই কিটগুলিকে ‘স্ট্যান্ডার্ডাইজড’ করতে হয়। বিভিন্ন ল্যাবে পাঠানোর আগেই তা করা উচিত। রাজ্যের অন্যান্য মেডিক্যাল কলেজগুলিতে এই পরিকাঠামো নেই, একমাত্র নাইসেডেই তা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংস্থার এক আধিকারিক। ফলে গোটা চাপ পড়ছে এই নাইসেডের উপর। এই মুহূর্তে করোনা পরীক্ষার চাহিদা বাড়তে থাকায়, তা করে ওঠা সম্ভব হচ্ছে না সবসময়। ফলে ত্রুটি দেখা দিচ্ছে পরীক্ষার ফলাফলে। এ অবস্থায় রাজ্যের স্বাস্থ্য দপ্তরের প্রত্যাশা, ICMR আরও একটু দায়িত্ব নিয়ে টেস্ট কিটগুলিকে ‘স্ট্যান্ডার্ডাইজড’ করুক তা বিভিন্ন ল্যাবে পাঠানোর আগে।

[আরও পড়ুন: থানাগুলিকে সতর্ক বার্তা স্বরাষ্ট্র দপ্তরের, পুলিশের জন্য এল পিপিই, মাস্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement