BREAKING NEWS

২৩  শ্রাবণ  ১৪২৯  মঙ্গলবার ৯ আগস্ট ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

করোনা সন্দেহে কলকাতার হাসপাতালে ভরতি বেহালার প্রৌঢ়া, নাইসেডে পাঠানো হল নমুনা

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: March 10, 2020 8:20 pm|    Updated: March 10, 2020 8:20 pm

An elderly woman admitted to beleghata ID suspecting cororna

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা সন্দেহে এবার বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে ভরতি হলেন বেহালার এক প্রৌঢ়া। বেশ কিছুদিন জয়পুরে থাকার পর সোমবারই বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি। রাত থেকে শুরু হয় শ্বাসকষ্ট। এরপরই তাঁকে জোকা ইএসআই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। সেখানে গোটা রাত রাখা হলেও কোনও চিকিৎসা করা হয়নি। পরে সকালে স্থানান্তরিত করা হয় বেলেঘাটা আইডিতে। বর্তমানে সেখানেই চিকিৎসাধীন ওই প্রৌঢ়া। ইতিমধ্যেই তাঁর নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে নাইসেডে।

এছাড়াও মঙ্গলবার করোনা সন্দেহে তিনজনকে ভরতি করা হয়েছে বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে। তাঁদের মধ্যে একজন হাওড়ার বাসিন্দা। কয়েকদিন আগেই ফিরেছেন দিল্লি থেকে। একজন যাদবপুরের বাসিন্দা। তিনি শীঘ্রই ফিরেছেন ইন্দোনেশিয়া থেকে। কয়েকদিন ধরেই জ্বরে ভুগছিলেন তিনি। এরপরই তাঁকে ভরতি করা হয় হাসপাতালে। বর্তমানে আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হয়েছে তাঁকে। এছাড়াও পিকনিক গার্ডেনের এক ব্যক্তিও ভরতি সেখানে। সকলেরই নমুনা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হলেও রিপোর্ট এখনও হাতে আসেনি। রিপোর্ট পাওয়ার পরই জানা যাবে চিকিৎসাধীনা আদৌ করোনা আক্রান্ত কি না।

[আরও পড়ুন: জয় হিন্দ ধাবায় শ্লীলতাহানির শিকার মহিলা, প্রতিবাদ করতে গিয়ে আহত ৩ বন্ধু]

প্রসঙ্গত, এর আগেও বেশ কয়েকজনকে করোনা সন্দেহে ভরতি করা হয়েছিল বেলেঘাটা আইডিতে। প্রাথমিক চিকিৎসাও শুরু হয়। যদিও পরে রিপোর্ট নেগেটিভ আসায় তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হয়। তবে তাঁদের প্রত্যেককেই ১৫ দিন বাড়িতে পর্যবেক্ষণে রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। প্রসঙ্গত, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মতোই এদেশও থাবা বসিয়েছে করোনা। আতঙ্ক ছড়িয়েছে কলকাতাতেও। ইতিমধ্যেই শহরের রাস্তায় মাস্ক পড়ে বের হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। সচেতনতাও অবলম্বন করছেন কমবেশি প্রত্যেকেই। 

[আরও পড়ুন: করোনা নয়, সোয়াইন ফ্লুতে আক্রান্ত মুর্শিদাবাদের যুবক, রিপোর্ট বেলেঘাটা আইডি’র]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে