৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি ‘বিরক্তিকর’, মমতাকে খোলা চিঠি বঙ্গের প্রবাসী চিকিৎসকদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: April 23, 2020 9:18 pm|    Updated: April 23, 2020 9:18 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মীদের উপর হামলার ঘটনায় উদ্বেগ ছড়িয়েছে নানা মহলে। এবার সহযেদ্ধাদের প্রতি উদ্বেগ প্রকাশ করে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে খোলা চিঠি লিখলেন প্রবাসী চিকিৎসকরা। এই পরিস্থিতিকে ‘চূড়ান্ত বিরক্তিকর’ বলে উল্লেখ করা হয়েছে তাঁদের সেই চিঠিতে। যে দুটি বিষয় নিয়ে উদ্বেগের কথা প্রকাশ করেছেন তাঁরা, তা পশ্চিমবঙ্গে কম নমুনা পরীক্ষা এবং করোনা মৃত্যু নিয়ে তথ্যদান বেঠিকভাবে পরিবেশন করা। যা তাঁদের চিন্তা বাড়িয়েছে বলে খোলা চিঠিতে লিখেছেন।

কেউ নিজেকে ডাক্তার, কেউ চিকিৎসাবিজ্ঞানী, কেউ আবার স্বাস্থ্যকর্মী বলে পরিচয় দিয়েছেন চিঠিতে। সকলেরই শিকড় এই বাংলা, একথা উল্লেখ করেই তাঁরা চিঠিতে লিখেছেন, নির্দিষ্ট দুটি বিষয় নিয়ে তাঁরা মুখ্যমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চান। প্রথমত, বাংলায় করোনার নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা অতি কম। দ্বিতীয়ত, মৃত্যু নিয়ে যে রিপোর্ট দেওয়া হচ্ছে, তা কিছুটা বিভ্রান্তিমূলক বলে মনে হচ্ছে তাঁদের। তাঁরা লিখেছেন, “পশ্চিমবঙ্গের করোনা পরিস্থিতি গত দেড় সপ্তাহ ধরে আমরা খেয়াল করছি। রয়টার্সের একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রতি মিলিয়নে এ রাজ্যে পরীক্ষা হচ্ছে ৩৩.৭, যেখানে রাজ্যে এই হার ১৫৬.৯। পশ্চিমবঙ্গে দিনে গড়ে হাজার জনের পরীক্ষা সম্ভব, কিন্তু তা হচ্ছে না। এছাড়া মৃত্যুর ক্ষেত্রে সঠির পরিসংখ্যান না জানানো হলে তাতে দুটি অসুবিধা হতে পারে। প্রথমত, মানুষ এই মহামারির প্রকৃত ভয়াবহতা বুঝতে পারবেন না। দ্বিতীয়ত, এর মোকাবিলায় সঠিক পথও অজানা থেকে যাবে।”

[আরও পড়ুন: ফি না দিলে অনলাইন ক্লাসে ঠাঁই নেই! অভিযোগ পেয়ে বেসরকারি স্কুলগুলিকে হুঁশিয়ারি পার্থর]

তাঁদের আরও বক্তব্য, “করোনা আক্রান্তদের মৃত্যু নিয়ে অডিট কমিটি যে রিপোর্ট দিচ্ছে, তাও বিভ্রান্তিমূলক। COVID-19 পজিটিভ রোগীর যদিও অন্য কোনও কারণে মৃত্যু হয়, রিপোর্ট তা স্পষ্ট করতে হবে।” চিঠিতে এই প্রবাসী চিকিৎসকরা মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানান, স্বাস্থ্যক্ষেত্রে কাজ করার অভিজ্ঞতা থেকে তাঁদের পরামর্শ, এ রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় দুটি বিষয়ে যেন নজর দেওয়া হয়। নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধি এবং আরও নিখুঁতভাবে পরীক্ষার ফলাফল নির্ধারণ করা। প্রবাসী চিকিৎসকদের এই উদ্বেগপূর্ণ খোলা চিঠিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখলে আখেরে রাজ্যেরই পরিস্থিতির উন্নতি হবে, এমনই মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

[আরও পড়ুন: ৩ দিনের মধ্যে টাকা না দিলে হোটেল থেকে তাড়ানোর হুমকি, ভেলোরে অসহায় বাঙালি পরিবার]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement