BREAKING NEWS

১২  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ২৭ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অযথা সাম্প্রদায়িকতার তাস খেলছেন, বৈশাখীর অভিযোগের পালটা পার্থর

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: August 7, 2019 8:24 pm|    Updated: August 7, 2019 8:24 pm

Dont play communal card, Partha Chatterjee slams Baisakhi Banerjee

ফাইল চিত্র

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শোভন-বৈশাখীর অভিযোগে ব্যথিত। রাজ্যের মন্ত্রী নন, একজন দাদা হিসাবেই ভাই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে গত ২৩ জুলাই গিয়েছিলেন। কিন্তু তাঁর সঙ্গে বৈশাখীদেবীর অভিযোগের কী সম্পর্ক তা নিয়ে রীতিমতো হতবাক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। বুধবার বৈশাখীদেবীর অভিযোগ করেন, মিথ্যা অভিযোগ তুলে হেনস্তা করছেন ওই কলেজেরই প্রাক্তন টিচার-ইন-চার্জ সাবিনা নিশাত ওমার। ওই শিক্ষিকা নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতা, দুর্নীতি-সহ একাধিক অভিযোগ এনেছেন। বৈশাখীর দাবি, ওমারের আনা সব অভিযোগই ভিত্তিহীন। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের ইন্ধনে তাঁকে হেনস্তা এবং অপদস্থ করা হচ্ছে। একথা বলার সময়ই কান্নায় ভেঙে পড়েন মিলি আল আমিন কলেজের অধ্যাপিকা। রীতিমতো ফুঁপিয়ে কেঁদে ওঠেন তিনি। এরই প্রেক্ষিতে এদিন পালটা সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুললেন পার্থবাবু। বললেন, বাড়িতে যাওয়ার সঙ্গে এই অভিযোগের কী সম্পর্ক? আর কেনই বা সাম্প্রদায়িকতার অভিযোগ উঠছে তা নিয়ে তিনি হতবাক।

[আরও পড়ুন: ‘দয়া করে শিক্ষাঙ্গনে সাম্প্রদায়িক রং লাগাবেন না’, দিদিকে আরজি জানিয়ে ইস্তফা বৈশাখীর]

বৈশাখী বলেন, “যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে আমি এত শ্রদ্ধা করতাম, তাঁর ইন্ধনেই এমনটা হচ্ছে। আমি হতবাক। পার্থদা ২৩ জুলাই শোভনদার সঙ্গে দেখা করতে তাঁর বাড়িতে এসেছিলেন। সেদিনই আমি পদত্যাগের ইচ্ছাপ্রকাশ করি। উনি আমাকে আশ্বস্ত করেন। বলেন, আমি থাকতে কোনও অপমান হবে না, কেন তুমি পদত্যাগ করতে চাইছ? অথচ তাঁর নির্দেশেই এসব হচ্ছে! আমি হিন্দু হয়েও এতদিন এই কলেজে রয়েছি, কোনওদিন সাম্প্রদয়িকতার অভিযোগ ওঠেনি। এখন হঠাৎ কেন উঠবে? কালই আমি ভিসির কাছে পদত্যাগপত্র পাঠাচ্ছি।” এই অভিযোগ অস্বীকার করে পার্থবাবু এদিন বলেন, ”যাতে বৈশাখীর অপমান নাহয় সেইজন্য এই সিদ্ধান্ত নিয়েছিলাম। কিন্তু ২৩ জুলাই শোভনের বাড়িতে গিয়েছিলাম দাদা হিসাবে। কোনও শর্ত চাপিয়ে দিতে নয়। কেন শর্ত দিতে যাব? আর শর্ত দিলেও তার সঙ্গে ওই অধ্যাপিকার অভিযোগের কী সম্পর্ক।” একইসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আদালত তো এই অধ্যাপিকার পক্ষেই রায় দিয়েছিল। উনিও তো আদালতেই যেতে পারেন। মাথা ঠান্ডা করে কাজ করুন, কেউ বাধা দেয়নি আপনাকে। অযথা সাম্প্রদায়িকতার তাস খেলছেন।’

গত ২৩ জুলাই শোভনবাবুর সাউথ এন্ড পার্কের ফ্ল্যাটে যান পার্থবাবু। সেখানে ছিলেন বৈশাখীদেবীও। তিনজনের দীর্ঘক্ষণ বৈঠক চলে সেদিন। প্রায় রাত দেড়টা নাগাদ সেখান থেকে বেরোন পার্থবাবু। সেদিনের বৈঠক নিয়ে বুধবার বিস্ফোরক অভিযোগ করেন বৈশাখীদেবী। তার পালটা পার্থবাবু বলেন, ‘শিক্ষাদপ্তর থেকে কোনও পদক্ষেপ হয়নি। সেদিন পার্থদা হিসাবে গিয়েছিলাম, মন্ত্রী হিসাবে নয়। দলে না ফিরলে চাকরিতে রাখা হবে না, এমন শর্ত আমি কেন রাখব?’

কী অভিযোগ করেছেন বৈশাখীদেবী, দেখুন ভিডিও-

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে