৩১ আষাঢ়  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

স্টাফ রিপোর্টার: প্রথমে এনআরএসে জুনিয়র ডাক্তারকে হেনস্তা এবং তারপর প্রাক্তন মিস ইন্ডিয়া উষসী সেনগুপ্তকে কটূক্তির ঘটনায় যে দুষ্কৃতীদের নাম জড়িয়েছে, তারা বেশিরভাগই সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের৷ এটি প্রকাশ্যে আসার পর  দুঃখ ও লজ্জা প্রকাশ করলেন কলকাতার বিশিষ্ট মুসলিম নাগরিকরা। এই দুই ঘটনায় তাঁদের উদ্বেগের কথা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে তাঁরা বুধবার একটি খোলা চিঠি দিয়েছেন।

[আরও পড়ুন: উষসী নিগ্রহ কাণ্ডে কড়া পদক্ষেপ লালবাজারের, সাসপেন্ড চারু মার্কেট থানার এসআই]

চিঠিতে তাঁরা এই দুই ঘটনায় জড়িত দুষ্কৃতীদের বিরুদ্ধে যেমন কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি জানিয়েছেন, তেমনই সরকারকে শহরের মুসলিম যুবক ও তাঁদের পরিবারের জন্য এমন কর্মসূচি নিতে অনুরোধ করেছেন, যাতে সমাজের এই অংশের মানুষের মধ্যে নারীদের প্রতি আচরণের ক্ষেত্রে সংবেদনশীলতা, আইনের অনুশাসন মেনে চলার প্রবণতা ও নাগরিক সচেতনতা বাড়ে। বিশিষ্ট সমাজকর্মী মুদার পাথেরিয়ার ফেসবুকে ওই খোলা চিঠিটি শেয়ার করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীকে দেওয়া চিঠিটিতে শহরের বিশিষ্ট মুসলিম নাগরিকরা লিখেছেন, “সম্প্রতি এনআরএসে ডাক্তারদের উপর হামলা ও অভিনেত্রী উষসী সেনগুপ্তর উপর আক্রমণ, দুটি ঘটনার ক্ষেত্রেই আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে দেখেছি, আক্রমণকারীরা আমাদেরই সম্প্রদায়ের। এতে আমরা দুঃখিত ও লজ্জিত। আমাদের মতে এই সমস্যা মোকাবিলার দুটি পথ খোলা রয়েছে।”

দুটি পথ কী কী?  চিঠিতে বিশিষ্টরা লিখেছেন, শুধু এই দুটি ঘটনা নয়, সরকারের প্রথম কাজ হওয়া উচিত প্রতিটি ঘটনার ক্ষেত্রেই, যেখানে মুসলিম সম্প্রদায়ের দুষ্কৃতীরা জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া। যাতে সমাজে এই বার্তা না পৌঁছায় যে, ‘মুসলিম’ বলে অপরাধ করেও সমাজবিরোধীরা ছাড়া পেয়ে যাচ্ছে। মুসলিম সম্প্রদায়ের দুষ্কৃতীদের সরকার আড়াল করছে, এমন একটা ধারণা অধিকাংশ মানুষের মনে গড়ে উঠছে বলেও এই নাগরিকরা তাঁদের চিঠিতে উল্লেখ করেছেন। দ্বিতীয় পদক্ষেপ হিসাবে তাঁরা মুসলিম যুবক ও তাঁদের পরিবারের সংবেদনশীলতা ও সচেতনতা বাড়ানোর জন্য সরকারকে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন। চিঠিটিতে স্বাক্ষর করেছেন কলকাতার বহু বিশিষ্ট মুসলিম নাগরিক। তাঁদের আশা, মুখ্যমন্ত্রী তাঁদের পরামর্শ মেনে এবং পরিস্থিতির সংবেদনশীলতা বিচার করে দ্রুত পদক্ষেপ করবেন।

[আরও পড়ুন: সপ্তাহ শেষেই দক্ষিণবঙ্গে ঢুকছে বর্ষা, সুখবর হাওয়া অফিসের]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং