BREAKING NEWS

১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ৫ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুজোর ছুটিতে বিমানে যাতায়াত? সাবধান, বিমানবন্দরের ভিড়ে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 25, 2020 8:58 pm|    Updated: October 25, 2020 9:07 pm

Fear increases of rising corona infection at Dumdum Airport as many people return at festive season| Sangbad Pratidin

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: উৎসবের মরশুমে বাড়িতে ফেরার ঢল। দমদম বিমানবন্দরে (Dumdum Airport) বিমানযাত্রী সংখ্যা ক্রমশ ঊর্ধ্বমুখী। বিমানবন্দর সূত্রে খবর, অষ্টমীর দিন মোট ৩০ হাজার যাত্রী ওঠানামা করেছেন দমদম থেকে। বিমানের সংখ্যা ছিল ২৫৭টি। নবমীতে তিনটি আন্তর্জাতিক বিমান দমদমে নেমেছে দোহা, দুবাই এবং লন্ডন থেকে। তিন দেশ থেকে কলকাতায় এসেছেন ৩৭৪ জন যাত্রী। বিভিন্ন রাজ্য ও ভিনদেশ থেকে কলকাতায় ফেরা বিমানযাত্রীদের থেকে করোনা সংক্রমণ (Coronavirus)  যাতে কোনওভাবে ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্য অতিরিক্ত সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে রাজ্য সরকার। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকেও যাত্রীদের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে একাধিক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

চলতি সপ্তাহে অর্থাৎ পুজোর সময়ে রাজ্য সরকারের তরফে বিমানযাত্রীদের জন্য নয়া নির্দেশিকা জারি হয়েছিল। তাতে আন্তর্জাতিক যাত্রীদের ক্ষেত্রে আলাদা নিয়ম, ঘরোয়া উড়ানে যাঁরা যাতায়াত করবেন, তাঁদের জন্য বেশ কয়েকটি বিধিনিষেধ কঠোরভাবে পালন করার নির্দেশ ছিল। যার মধ্যে অন্যতম, প্রতি যাত্রীকে নিজের শারীরিক অবস্থার খতিয়ান জানাতে হবে সরকার এবং বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে। তার জন্য রাজ্য সরকার একটি ‘সেল্ফ ডিক্লারেশন ফর্ম’ ইস্যু করেছে। যাত্রীদেরকেই তা পূরণ করতে বলা হচ্ছে।

[আরও পডুন: অতিমারীর হাত থেকে রক্ষা করুক আনন্দের উৎসব, ‘বিজয়া’র শুভেচ্ছা জানিয়ে টুইট রাজ্যপালের ]

এর সঙ্গে দমদমে নামার পর প্রতি যাত্রীকে কয়েকটি শারীরিক পরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হবে। যে যাত্রী সম্পূর্ণ করোনা উপসর্গহীন, একমাত্র তাঁদেরই সহজে শহরে প্রবেশের ছাড়পত্র দেওয়া হচ্ছে। যাঁদের অল্প কিংবা বেশি উপসর্গ রয়েছে তাঁদেরকে তৎক্ষণাৎ স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করা হবে। যাত্রীর লালারসের নমুনা সংগ্রহ করে কোভিড পরীক্ষার রিপোর্ট পজিটিভ এলে তাঁকে হাসপাতাল কিংবা ইনস্টিটিউশন্যাল কোয়ারান্টিনে পাঠানো হচ্ছে। যাঁদের শরীরে করোনার লক্ষণ মৃদু, তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে যাওয়া নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। এরপর পরীক্ষার রিপোর্ট অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করবে স্বাস্থ্যদপ্তর।

অন্যদিকে, আন্তর্জাতিক বিমান যাত্রীদের ক্ষেত্রে বিমানে ওঠার ৯৬ ঘণ্টা আগে আরটিপিসিআর (RT-PCR) টেস্ট বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। তবে লন্ডন থেকে সরাসরি কলকাতায় নামা যাত্রীদের এই পরীক্ষার ক্ষেত্রে ছাড় আছে। লন্ডন ফেরত যেসব যাত্রী পরীক্ষা না করিয়ে ওই দেশ থেকে দমদমে এসে নামবেন, তাঁদের জন্য দমদম বিমানবন্দরেই নমুনা সংগ্রহ করার কাজ শুরু হয়েছে। যাত্রীরা একটি নির্দিষ্ট জায়গায় ৬ থেকে ৮ ঘণ্টা অপেক্ষা করবেন। তার মধ্যে তাঁদের নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট এসে যাবে। সেই রিপোর্টের ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে। এতে খরচ পড়বে প্রায় ১৫০০ টাকা।

[আরও পডুন: সাবধান! এবার রান্নার গ্যাসের KYC আপডেটের নামে প্রতারণা, শহরে সক্রিয় নতুন গ্যাং]

দমদম বিমানবন্দরে লন্ডন ছাড়া অন্য দেশ থেকে আসা যাত্রীদের RT-PCR টেস্ট রিপোর্ট সঙ্গে থাকা বাধ্যতামূলক। সেই রিপোর্ট বিমানে ওঠার আগেই কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া পোর্টালে আপলোড করতে হবে যাত্রীদের। এর পাশাপাশি সেই রিপোর্টের অরিজিনাল কপি বিমানবন্দরে নেমে রাজ্য স্বাস্থ্য আধিকারিকদের এবং বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষকে দেখাতে হবে। লন্ডন-সহ অন্যান্য দেশ থেকে আসা আন্তর্জাতিক বিমানযাত্রীদের ১৪ দিনের জন্য বাধ্যতামূলক হোম কোয়ারেন্টাইনে যেতে হবে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে