BREAKING NEWS

৮ মাঘ  ১৪২৮  শনিবার ২২ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

চাকরির ভুয়ো নিয়োগপত্র পাঠিয়ে টাকা আর্থিক প্রতারণা! মাথায় হাত যুবতীর

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: February 12, 2021 9:19 am|    Updated: February 12, 2021 9:19 am

Financial fraud by sending fake job appointment letters, investigation underway | Sangbad Pratidin

ছবি: প্রতীকী।

স্টাফ রিপোর্টার: ফোনে দু’ঘণ্টার ইন্টারভিউ। উৎসাহ নিয়ে বিমান সংস্থার ‘কর্তা’র সব প্রশ্নের উত্তর দেন কলকাতার (Kolkata) যুবতী। জানানো হয়, তাঁকে নিয়োগ করা হচ্ছে। শুধু বিশেষ কিছু কারণে চাওয়া হয় কিছু টাকা। চাকরি দেওয়ার নামে শেষ পর্যন্ত যুবতীর কাছ থেকে ৮৬ হাজার ৭৫০ টাকা হাতিয়ে নিল প্রতারণা চক্র।

পুলিশ জানিয়েছে, পূর্ব কলকাতার সার্ভে পার্ক এলাকার বাসিন্দা চাকরিপ্রার্থী ওই যুবতীর অভিযোগ অনুযায়ী, বিমান সংস্থায় কাজ করার ইচ্ছা ছিল তাঁর। সেই কারণে একটি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে চাকরির আবেদন করেন। সম্প্রতি সৌরভ নামে এক ব্যক্তি তাঁকে ফোন করে নিজেকে একটি বিমান সংস্থার কর্মী বলে পরিচয় দেয়। যুবতীর কাছে ছবি চায়। তাঁকে ওই বিমান সংস্থার ওয়েবসাইটে ছবি পাঠাতে বলে। ফর্মের জন্য তাঁকে ৮২০ টাকা পাঠাতে বলা হয়। পরে অনলাইনে কিছু নথি পাঠানো হয় ওই যুবতীকে। পরিবর্তে দিতে বলা হয় ১ হাজার ১৮০ টাকা। তাঁকে একটি ভুয়ো বিলও পাঠানো হয়। এরপর এক মহিলা ওই যুবতীকে ফোন করে। এর পর ফোন আসে বিশাল নামে এক ব্যক্তির কাছ থেকে, যে নিজেকে সংস্থার এইচআর বিভাগের কর্তা বলে পরিচয় দেয়। সে ওই যুবতীর ইন্টারভিউ নিতে শুরু করে। নিজের সম্পর্কে তাঁকে বলতে বলা হয়। এ ছাড়াও আরও কিছু প্রশ্ন করা হয়। ইন্টারভিউর শেষে তাঁকে প্রশিক্ষণ কিট বাবদ ৭ হাজার ৯২৫ টাকা, ইউনিফর্ম ফি বাবদ ১৫ হাজার ৬০০ টাকা, অফার লেটার ও পরিচয়পত্রের জন্য ২২ হাজার ৫০০ টাকা, কোভিড কিট ও গেট পাস বাবদ ৩৮ হাজার ৭০০ টাকা  দিতে বলা হয়।

[আরও পড়ুন: বিজ্ঞানে আগ্রহী ছাত্রীদের জন্য সুখবর, এবার একাদশ-দ্বাদশেও মিলবে সরকারি বৃত্তি]

এরপরও নতুন অ্যাকাউন্ট তৈরির জন্য ১৮ হাজার ৫০০ টাকা ও মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য ৪২ হাজার ২৫ টাকা পাঠাতে বলা হয় বলে জানা গিয়েছে। চাকরি দেওয়ার জন্য কোনও বিমান সংস্থা এত টাকা চাইছে তা নিয়ে ওই যুবতীর সন্দেহ হয়। তিনি আর টাকা পাঠাতে চাননি। তখন বিষয়টি বিশ্বাসযোগ্য করে তোলার জন্য তাঁকে বিমান সংস্থার ভুয়ো অফার লেটার ও অন্যান্য নথি মেল করে পাঠানো হয়। তিনি ওই নথিগুলি সংশ্লিষ্ট সংস্থায় পাঠাতেই ওই চাকরিপ্রার্থী জানতে পারেন যে, এগুলি জাল। এরপরই তিনি সার্ভে পার্ক থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

এদিকে, প্রায় একই পদ্ধতিতে প্রতারণার শিকার হয়েছেন বেহালার এস এন রায় রোডের বাসিন্দা এক যুবক। ওই চাকরিপ্রার্থী বিদেশে চাকরি খুঁজছিলেন। একইভাবে তাঁর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করে দু’জন। নিজেদের বিদেশি সংস্থার কর্মী বলে পরিচয় দেয়। ফোনেই তাঁর ইন্টারভিউ নেওয়া হয়। বিভিন্ন নথি, ভিসা, মেডিক্যাল করানোর নামে তাঁর কাছ থেকে এক লক্ষ টাকা চাওয়া হয় বলে অভিযোগ। ওই যুবক অনলাইনে ওই টাকা পাঠান। তাঁকে ভুয়া নথি পাঠানো হয়। শেষ পর্যন্ত তিনি পরীক্ষা করে বুঝতে পারেন যে, নথিগুলি জাল। তিনি লালবাজারের সাইবার থানায় এই ব্যাপারে অভিযোগ দায়ের করেন। অন্যদিকে, মানিকতলার সিআইটি রোডের বাসিন্দা এক যুবককে নিয়োগ পোর্টালের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ফোন করে এক ব্যক্তি। রেজিস্ট্রেশনের জন্য তাঁর কাছ থেকে ১০০ টাকা চাওয়া হয়। একটি অ্যাপও ডাউনলোড করতে বলা হয় তাঁকে। ওই ১০০ টাকার ব্যাংক লেনদেনের ভিত্তিতে তাঁর অ্যাকাউন্ট থেকে ৯৮ হাজার ৫৬৩ টাকা তুলে নেওয়া হয়। এই জালিয়াতিগুলির তদন্ত হচ্ছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: বামেদের হরতাল হলেও শুক্রবারই খুলছে স্কুল, জানিয়ে দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে