১৪ মাঘ  ১৪২৬  মঙ্গলবার ২৮ জানুয়ারি ২০২০ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: বিজেপি করার ‘অপরাধে’ বেধড়ক মার স্থানীয় যুবককে। রবিবার এই অভিযোগ তুলে রত্না চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর সঙ্গীদের বিরুদ্ধে থানায় এফআইআর দায়ের করল বিজেপি।

শনিবার সন্ধ্যায় বেহালার ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডের কালীমাতা কলোনির ঘটনা। শুভজিৎ মজুমদার নামে স্থানীয় এক যুবক তাঁর বন্ধুদের সঙ্গে সম্প্রতি বিজেপিতে নাম লিখিয়েছেন। দলের নানা কর্মসূচিতেও থাকছেন। তাঁরাই শনিবার সন্ধ্যায় ওই এলাকায় বসে আড্ডা দিচ্ছিলেন। সেই পথেই গাড়ি করে যাচ্ছিলেন তৃণমূলনেত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়। স্থানীয় ওই যুবকদের দেখে গাড়ি থামিয়ে তিনি জিজ্ঞাসা করেন কেন তাঁরা বিজেপি করছেন? পালটা ওই যুবকরা জানতে চান, বিজেপি কেন করা যাবে না? সেটা করা কি অপরাধ? সাউথ সাব-আর্বান জেলা বিজেপির সাধারণ সম্পাদক অনুপম ভট্টাচার্যর অভিযোগ, তাতেই খেপে যান রত্নাদেবী। ফিরে আসেন জনা ষাটেক তৃণমূল সমর্থককে সঙ্গে নিয়ে। স্থানীয় ওই যুবকদের উপর চড়াও হয়ে বেধড়ক মারধর করে তারা। ঘটনার প্রতিবাদে রবিবার সকালে পর্ণশ্রী থানা ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখান বিজেপি কর্মীরা। তাঁদের দাবি, পুলিশ ঘটনা খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছে।

[আরও পড়ুন: দুর্ঘটনায় হারিয়েছেন পা, ‘দিদিকে বলো’র উদ্যোগে শিক্ষা দপ্তরে চাকরি পেলেন যুবক ]


উল্লেখ্য, বেশ কিছুদিন ধরেই তৃণমূলে সক্রিয় ভূমিকায় দেখা যাচ্ছে রত্না চট্টোপাধ্যায়কে। এর আগে রাজ্যের শাসকদলের হয়ে ভোটপ্রচারেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। লোকসভা নির্বাচনের সময়ও বেহালার বিভিন্ন ওয়ার্ডে তাঁকে তৃণমূলের প্রচারে দেখা গিয়েছিল। বেহালা অঞ্চলে দলের সংগঠনের হাল অনেকটাই নিজের হাতে তুলে নিয়েছেন তিনি। আগামী পুর নির্বাচনে রাজ্যের শাসকদল তাঁকে কাজে লাগাতে পারে বলেই রাজনৈতিক মহলের ধারণা।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং