BREAKING NEWS

৪ মাঘ  ১৪২৮  মঙ্গলবার ১৮ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

প্রিন্সেপ ঘাটে নৌসেনার বোটে রহস্যজনক আগুন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 4, 2016 6:04 pm|    Updated: October 4, 2016 6:04 pm

Fire on speed boat used by navy near princep ghat

স্টাফ রিপোর্টার: প্রিন্সেপ ঘাটের কাছে নৌসেনা বাহিনীর স্পিডবোটে রহস্যজনকভাবে আগুন লেগে গেল মঙ্গলবার৷ আগুনে কোনও হতাহতের খবর নেই৷ তবে সাম্প্রতিক ভারত-পাক সম্পর্কের জেরে প্রাথমিকভাবে এমন ঘটনায় নাশকতা বা অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা করা হয়েছিল৷ পরে জানা যায় তেমন কোনও কারণ নেই৷ অবশ্য বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা হয়েছে গঙ্গার তীরবর্তী এলাকায়৷

এদিন সকাল সাতটা নাগাদ প্রিন্সেপ ঘাটের কাছে গঙ্গায় ভাসমান একটি স্পিডবোটে স্টার্ট করার সময়ই আগুন লেগে যায়৷ কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় এলাকা৷ ভস্মীভূত হয়ে যায় প্রায় গোটা নৌকোটি৷ কিছুক্ষণের মধ্যেই অবশ্য জানা যায়, সেটি নৌবাহিনীর৷ খবর পেয়েই দ্রুত নৌবাহিনীর পদস্থ কর্তারা সেখানে যান৷ নৌবাহিনীর আগুন নেভানোর ইঞ্জিনও যায়৷  নৌকোটিকে পাড়ে নিয়ে আসা হয়৷

নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, স্পিডবোটটি ভাড়া করা হয়েছিল৷ নদীতে টহল দিচ্ছিল সেটি৷ আরও একটি ভাড়া করা নৌকো গঙ্গায় নজরদারি করছিল৷ দু’টি স্পিডবোটই ভাড়া করেছিল নৌবাহিনী৷ একটি নৌকো অবশ্য অপ্রত্যাশিতভাবে আগুনের কবল থেকে রেহাই পেয়েছে৷ নৌসেনা কর্তারা স্বাভাবিকভাবেই আগুন লাগার দায় নৌকোর মালিকের উপর চাপিয়েছেন৷ অবশ্য তদন্ত করে দেখা হবে বলেও জানানো হয়েছে৷

নৌবাহিনীর পূর্বাঞ্চলের জনসংযোগ আধিকারিক এস এস বিরডি জানিয়েছেন, আগুন লাগার সময় কোনও জওয়ান বা পদস্থ কর্তা স্পিডবোটে ছিলেন না৷ পেট্রোলিংয়ের স্বার্থেই তা ভাড়া নেওয়া হয়েছিল৷ নৌকোটির রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বও ঠিকাদারের বলে দাবি করা হয়েছে৷

তবে, বিশেষজ্ঞদের মতে যেহেতু নৌবাহিনীর পক্ষ থেকে তা ব্যবহার করা হচ্ছিল, তাই তাঁদেরও দায়িত্ব থেকে যায়৷ এই প্রেক্ষিতেই জলপথে সুরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্নও উঠেছে৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে