১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৯  রবিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পেটিএম জালিয়াতির তদন্তে বড়সড় সাফল্য গোয়েন্দাদের, গ্রেপ্তার জামতাড়া গ্যাংয়ের পাঁচ সদস্য

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: February 29, 2020 8:44 am|    Updated: February 29, 2020 8:44 am

five members from jamtara gang arrested for paytm fraud case in kolkata

ছবি: প্রতীকী।

অর্ণব আইচ: কিছুদিন ধরেই শহরে একের পর এক পেটিএম (Paytm) জালিয়াতির। গোয়েন্দা পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হল জামতাড়ার পাঁচ ব্যাংক জালিয়াত। তাদের মধ্যে একজনকে ঝাড়খণ্ডের দুমকা থেকে ধরা হয়। বাকি চারজনকে ধরা হয় জামতাড়া থেকেই। জামতাড়ায় বসে এই যুবকরা পেটিএমের সাহায্যে কলকাতার একের পর এক বাসিন্দার অ্যাকাউন্ট থেকে উধাও করে দেয় পুরো টাকা।

পুলিশ জানিয়েছে, রাজেন কিসকু নামে এক যুবককে প্রথমে দুমকা থেকে ধরা হয়। তাকে গ্রেপ্তার করেই জামতাড়ায় তল্লাশি চালিয়ে আরও চার জালিয়াতির অভিযুক্ত রাজেশ দত্ত ওরফে শিবনাথ, শঙ্কর প্রসাদ, সুরেন্দ্র বার্নওয়াল ও অমৃত সাউকে লালবাজারের গোয়েন্দারা গ্রেপ্তার করেন।

[আরও পড়ুন: মুক্তিপণের মোটা টাকা নিয়ে কলকাতায় চম্পট, STF-এর জালে ৫ মণিপুরী জঙ্গি ]

 

আরও জানা গিয়েছে, এরা নিজেদের একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের ম্যানেজার বলে পরিচয় দিয়ে ফোন করে শহরের বহু মানুষের এটিএমের তথ্য জেনে তাঁদের অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা উধাও করে দেয় তারা। ওই টাকা উধাও করার জন্য পেটিএম ও আরও কয়েকটি ই ওয়ালেটের সাহায্য নেয় এই জালিয়াতরা। বাঁশদ্রোণীর এক বাসিন্দার কাছ থেকে ৫৫ হাজার টাকা, ওয়াটগঞ্জের বাসিন্দার অ্যাকাউন্ট থেকে ২ লাখ ৭০ হাজার ও পর্ণশ্রীর বাসিন্দার কাছ থেকে ৮৫ হাজার টাকা নিয়ে নেয়।

[আরও পড়ুন: সেজে উঠছে শহিদ মিনার, অমিত শাহর সভায় রেকর্ড ভিড়ের আশায় বঙ্গ বিজেপি]

 

তদন্ত নেমে গোয়েন্দারা বুঝতে পারেন, এর পিছনে রয়েছে জামতাড়া গ্যাং। তারপর অনেক বাধা সত্ত্বেও ওই পাঁচজনকে গোয়েন্দারা গ্রেপ্তার করেন। ধৃতদের কেউ বা মোবাইল ফোন রিচার্জ করে, কেউ বা ওয়ালেটের সাহায্যে টাকা তুলে নেয়। বাকিরা নিজেদের অ্যাকাউন্টে টাকা রাখে। ধৃতদের জেরা করে জামতাড়া গ্যাংয়ের বাকিদের সন্ধান চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে