BREAKING NEWS

২৩ শ্রাবণ  ১৪২৭  রবিবার ৯ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

আপাতত খুলছে না জি ডি বিড়লা, বুধবার বিকেল পর্যন্ত সময় চাইল কর্তৃপক্ষ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: December 5, 2017 12:51 pm|    Updated: September 20, 2019 7:37 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  জি ডি বিড়লা কাণ্ডে অভিভাবকদের চাপের মুখে কিছুটা হলেও নতিস্বীকার করল স্কুল কর্তৃপক্ষ। তবে আপাতত স্কুল খুলছে না। মঙ্গলবার অভিভাবক ফোরামের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছিল স্কুল কর্তৃপক্ষ। বৈঠকে ছিলেন শিশুরক্ষা কমিশনের প্রতিনিধি ও পুলিশও। ঘণ্টা তিনেক বৈঠকের পর অভিভাবকরা জানিয়েছেন, বৈঠকে প্রিন্সিপালের অপসারণ ও গ্রেপ্তারির দাবিতেই অনড় ছিলেন তাঁরা। স্কুল খোলারও দাবি জানানো হয়েছে। বুধবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সময় চেয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। নির্ধারিত সময়সীমার পর, ফের স্কুলেই বৈঠক হবে। যদিও এদিনের বৈঠকে যোগ দেননি নির্যাতিতা শিশুর বাবা। তাঁর সাফ কথা, ‘নো অ্যারেস্ট, নো মিটিং।’

[গোয়েন্দাদের জেরায় ভেঙে পড়লেন ‘ডাকাবুকো’ প্রিন্সিপাল শর্মিলা]

জি ডি বিড়লা কাণ্ডে অভিযুক্ত দুই শিক্ষককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তবে এই ঘটনায় প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথের বিরুদ্ধেও অভিযোগ দায়ের হয়েছে। মঙ্গলবারই লালবাজারে ডেকে পাঠিয়ে তাঁকে জেরা করেন গোয়েন্দারা। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ জি ডি বিড়লা স্কুল। অনিশ্চিত পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ। গার্ডিয়ান ফোরামের দাবি, অভিযুক্ত প্রিন্সিপালকে স্কুল থেকে বরখাস্ত করতে হবে এবং তাঁকে গ্রেপ্তার করতে হবে। যত দ্রুত সম্ভব খুলতে হবে স্কুলও। স্কুলের অচলাবস্থা কাটাতে মঙ্গলবার স্কুলেই গার্ডিয়ান ফোরামের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন স্কুল কর্তৃপক্ষ। তিন ঘণ্টার ম্যারথন বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন শিশুরক্ষা কমিনের প্রতিনিধি ও পুলিশও। সূত্রের খবর, বৈঠকে মূলত প্রিন্সিপাল শর্মিলা নাথকে বরখাস্ত করা ও গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিয়েই আলোচনা হয়েছে। অভিভাবকরা জানিয়েছেন, প্রিন্সিপালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য যদি আরও কিছুদিন স্কুল বন্ধ রাখতে হয়, তাতেও তাঁদের আপত্তি নেই। বৈঠকের পর অভিভাবকদের দাবি, প্রিন্সিপালকে কেন বরখাস্ত করা প্রয়োজন, তা স্কুল কর্তৃপক্ষকে বোঝাতে পেরেছেন তাঁরা। বিষয়টি বিবেচনার করার জন্য বুধবার বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত সময় চেয়েছে স্কুল কর্তৃপক্ষ। নির্ধারিত সময়ীমার পর, বুধবার ফের বৈঠকে হবে।

[নির্যাতিতার নাম প্রকাশ, ফের বিতর্কে জি ডি বিড়লার প্রিন্সিপাল

এদিকে,  লালবাজার সূত্রে খবর,  জেরায় প্রিন্সিপালের বক্তব্যে বেশ কিছু অসঙ্গতি পাওয়া গিয়েছে । মঙ্গলবার যাদবপুর থানায় জি ডি বিড়লা স্কুলের লেডি অ্যাটেনডেন্টকেও জেরা করা হয়। তাঁর বয়ানে সঙ্গে প্রিন্সিপালের বয়ান মিলিয়ে দেখেন তদন্তকারীরা।

[ছাত্রীদের সঙ্গে অভব্য আচরণ করলেই জানিয়ে দেবে নয়া যন্ত্র

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement