BREAKING NEWS

১৫ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জনসংযোগে বিজেপির টার্গেট দুর্গাপুজো, উদ্বোধনে আসছেন গম্ভীর-সানি দেওলরা!

Published by: Tanujit Das |    Posted: August 3, 2019 7:56 pm|    Updated: August 3, 2019 7:56 pm

Goutam Gambhir, Sunny Deol likely to inaugurate Durga Puja in Bengal

রূপায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়: হাই কমান্ডের নির্দেশে জনসংযোগের জন্য আগেই বাঙালির সবচেয়ে বড় উৎসব দুর্গাপুজোকে টার্গেট করেছে গেরুয়া শিবির৷ আর সেজন্যই একঝাঁক কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এবারের ঠিকানা হতে চলেছে বাংলা। কলকাতা ও শহরতলির পুজোগুলিতে কোন কোন কেন্দ্রীয় মন্ত্রীকে আমন্ত্রণ করা হবে পছন্দের সেই তালিকা তৈরি করে দিল্লিতে পাঠানোর প্রস্তুতিও চলছে রাজ্য বিজেপির সদর দপ্তরে। গৌতম গম্ভীর, সানি দেওলদের মতো সেলিব্রিটি নেতাদের৷

[ আরও পড়ুন: এটিএম স্কিমিং জালিয়াতিতে দুই রোমানিয়ানকে ৬ মাসের কারাদণ্ড আদালতের ]

জানা গিয়েছে, এবার সারা রাজ্যেই দুর্গাপুজোর সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে জড়াতে চাইছে গেরুয়া শিবির। বিভিন্ন ক্লাব-সংগঠনগুলি, যারা দুর্গাপুজো করে তাদের সঙ্গে জেলা  থেকে রাজ্যস্তরে স্থানীয় বিজেপি নেতারা যোগাযোগ রাখছেন। উদ্বোধনে কেন্দ্রীয় নেতা-মন্ত্রী আনা থেকে শুরু করে পুজো কমিটিগুলির পাশে থেকে সমস্ত রকম সাহায্যের আশ্বাসও দিচ্ছে গেরুয়া শিবির। রাজ্য বিজেপির অন্যতম সম্পাদক তুষারকান্তি ঘোষ জানিয়েছেন, কলকাতা ও পার্শ্ববর্তী জেলাগুলি থেকে অনুরোধ আসছে। পুজো উদ্বোধনে রাজ্যের ১৮ জন বিজেপি সাংসদ-সহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের চাইছেন উদ্যোক্তারা। রাজ্য বিজেপির নির্বাচিত ১৮ জন সাংসদদের মধ্যে দিলীপ ঘোষ, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী দেবশ্রী চৌধুরী ও বাবুল সুপ্রিয়, লকেট চট্টোপাধ্যায়দের বিভিন্ন পুজো কমিটিগুলি উদ্বোধনে চাইছে। নিজেদের জেলাতেই থাকছেন অন্য সাংসদরা। এছাড়াও, কেন্দ্রের একাধিক হেভিওয়েট মন্ত্রীরাও এবার দুর্গাপুজোর সময় বাংলায় ঘাঁটি গাড়তে পারেন। কলকাতা ও শহরতলির পুজো উদ্বোধনে কেন্দ্রের হেভিওয়েট মন্ত্রীদের
চাহিদা রয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত সাহ থেকে শুরু করে বিজেপির কার্যকরী সভাপতি জে পি নাড্ডা, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী স্মৃতি ইরানি আবার সানি দেউল, গৌতম গম্ভীরদের মতো বিজেপির তারকা সাংসদদের চাহিদাও তুঙ্গে। বিভিন্ন পুজো কমিটি থেকেই অনুরোধ আসছে বিজেপির রাজ্য নেতাদের কাছে।

[ আরও পড়ুন: কুকুরের ভয়, বেড়াতে এসে আতঙ্কে ছাদ থেকে ঝাঁপ খুদের ]

আবার মুকুল রায়, সায়ন্তন বসু, রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় প্রমুখ বিজেপি নেতারাও বিভিন্ন পুজোর উদ্বোধনে যাবেন। দুর্গাপুজোয় দলের কেন্দ্রীয় মন্ত্রী-নেতা ও তারকা সাংসদের আনার বিষয়টি প্রতিটি জেলায় বিজেপির জেলা সভাপতিরা দেখছেন। উত্তর কলকাতার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে রাজ্য সম্পাদক তুষারকান্তি ঘোষকে। দুর্গাপুজোয় ব্যাপকভাবে অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে জনসংযোগ বাড়াতে এবার মরিয়া বঙ্গ বিজেপি।

[ আরও পড়ুন: মায়ের চালচিত্র সাজবে দৃষ্টিহীনদের সৃষ্টিতে, অভিনব উদ্যোগ জয়রামপুর সর্বজনীনের ] 

প্রসঙ্গত, লোকসভা নির্বাচনে প্রাপ্ত আসন ৪২-এর মধ্যে এক লাফে ২
থেকে ১৮ জন সাংসদ হয়ে যাওয়ার উচ্ছ্বসিত গেরুয়া শিবির। বাংলায় চোখ ধাঁধানো মার্কশিটের কারণে নয়াদিল্লির পণ্ডিত দিনদয়াল উপাধ্যায় মার্গে আজ বেজায় কদর বাংলার নেতাদের! বাংলার সাংসদদের নিয়ে নিজের সরকারি বাসভবনে প্রাতরাশ ও বৈঠক করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। বাংলায় দলের ভিত শক্ত করতে সাংসদদের ধর্মীয় এবং সামাজিক, দুই বিষয়ের সঙ্গেই যুক্ত হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। দুর্গাপুজো-সহ অন্য পুজোগুলির সঙ্গেও নিজেদের যুক্ত করতে হবে বলেবাংলার সাংসদদের উদ্দেশে বার্তা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে