১৯ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  সোমবার ৬ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

‘সরকারি বিজ্ঞাপনে CAA বিরোধী প্রচার করতে পারেন না’, মমতাকে কটাক্ষ ধনকড়ের

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: December 15, 2019 7:33 pm|    Updated: December 15, 2019 7:33 pm

Governor asks Bengal CM to withdraw Government advertisement

ধ্রুবজ্যোতি বন্দ্যোপাধ্যায়: রাজধর্ম পালন করুন। সরকারের টাকায় তৈরি বিজ্ঞাপনে নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রচার করবেন না। এটা অপরাধ, সংবিধান বিরোধী। রবিবার এই ভাষাতেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে পরামর্শ দিলেন রাজ্যপাল। এদিন রাজভবনে সাংবাদিক সম্মেলন ডেকে জগদীপ ধনকড় বলেন, ‘একজন নির্বাচিত প্রশাসনিত প্রধান হিসাবে মুখ্যমন্ত্রী যেটা প্রচার করছেন সেটা কার্যত অন্যায়। সংবিধান বিরোধী কাজ। সরকারি বিজ্ঞাপনে যা প্রচার করছেন তা অবিলম্বে প্রত্যাহার করুন। জনগণের টাকায় এটা করা অপরাধ।’ এরপরই রাজধর্ম পালন করার বার্তা দিয়ে ধনকড়ের আবেদন, ‘যদি পরিস্থিতি সামলাতে না পারেন তাহলে সহায়তা চান, সংবিধানে এর উল্লেখ রয়েছে।’

CAA বিরোধী বিক্ষোভে উত্তাল গোটা রাজ্য। বিভিন্ন স্টেশনে ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগের মতো ঘটনা লেগেই রয়েছে। শুক্র, শনির পরে রবিবারও রাজ্যের পরিস্থিতি প্রায় একইরকম। বাধ্য হয়ে ৪টি জেলায় পুরোপুরি এবং ২ জেলায় আংশিক ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন। বেশ কিছু জায়গায় আইন-শৃঙ্খলা হাতের বাইরে চলে গিয়েছে। মুর্শিদাবাদের তিলডাঙা স্টেশনে ভাঙচুর-অগ্নিসংযোগের জেরে বাধ্য হয়ে হাতে লাঠি নিয়ে বিক্ষোভাকারীদের সরিয়ে দেন বিধায়ক মইনুল হক। রাজ্যে শান্তি-শৃঙ্খলা বজায় রাখার জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আবেদন করেছেন। সাধারণ মানুষের ভোগান্তি ও সরকারি সম্পত্তি নষ্ট করলে কাউকে রেয়াত করা হবে না বলে কড়া বার্তাও দিয়েছেন কিন্তু। প্রশাসনিক প্রধানের কথাতেও কোনও কাজ হয়নি। এদিন রাজ্যপাল মুখ্যমন্ত্রীকে কড়া হাতে রাজধর্ম পালন করার পরামর্শ দিয়েছেন। হিংসা ছড়াচ্ছে যারা তাদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন এদিন ধনকড়।

[আরও পড়ুন: CAA’র প্রতিবাদে রণক্ষেত্র তিলডাঙা স্টেশন, লাঠি হাতে পরিস্থিতি সামাল বিধায়কের]

এছাড়াও পুলিশ প্রশাসনকে একহাত নিয়েছেন রাজ্যপাল। বলেছেন, ‘পুলিশকে আরও সক্রিয় হয়ে অশান্তি দমন করতে হবে। দোষীদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে হবে।’ মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে তাঁর মন্তব্য, ‘পরিস্থিতি সামাল দিতে না পারলে সহায়তা চান। সংবিধানে এর বিধান আছে। প্রশাসনিক প্রধান হিসাবে নিজের কর্তব্য পালন করুন। এনআরসি-নাগরিকত্ব আইন বিরোধী প্রচার করলে তা প্ররোচনার কাজ করবে। এটা অন্যায়, সংবিধান বিরোধী।’

দেখুন কী বললেন রাজ্যপাল-

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে