BREAKING NEWS

৬ মাঘ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ২০ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

কাদের সংস্পর্শে এসেছিলেন করোনা আক্রান্ত তরুণ? রাজ্যজুড়ে নজরদারি স্বাস্থ্য দপ্তরের

Published by: Bishakha Pal |    Posted: March 18, 2020 9:45 am|    Updated: March 18, 2020 10:11 am

Health department monitoring movement of coronavirus victims

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রাজ্যের প্রথম করোনা আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে কলকাতায়। আর তারপর থেকেই নড়চড়ে বসেছে স্বাস্থ্য দপ্তর। গত তিন দিন ওই তরুণের সংস্পর্শে যাঁরা এসেছেন, তাঁদের সকলকে পর্যবেক্ষণে রাখার চিন্তাভাবনা করা হয়েছে। রবিবার লন্ডন থেকে এয়ার ইন্ডিয়ার বিমানে শহরে ফেরেন তিনি। ওই তরুণের সঙ্গে যাঁরা বিমানে ফিরেছিলেন, তাঁদের প্রত্যেকের সন্ধান শুরু করেছে দপ্তর। ইতিমধ্যেই বিমানযাত্রীদের তালিকা চেয়ে পাঠিয়েছে স্বাস্থ্য দপ্তর। ওই বিমানের চালক, কো-পাইলট ও কেবিন ক্রুদেরও কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর কথা ভাবা হচ্ছে বলে সূত্রের খবর। স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রের খবর, আক্রান্ত তরুণের মা রাজ্যের একজন উচ্চপদস্থ আমলা। স্বরাষ্ট্র দপ্তরে কর্মরত তিনি। তাঁর ছেলের দেহে করোনা পজিটিভ হওয়ায় এখন খতিয়ে দেখা হচ্ছে গত সোম ও মঙ্গলবার নবান্নে ওই আমলার সংস্পর্শে কারা এসেছেন। তাঁদের কারও মধ্যে কোনও উপসর্গ দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে যাতে আইসোলেশনে পাঠানো যায়, সেই ব‌্যবস্থাও তৈরি রাখা হচ্ছে।

[ আরও পড়ুন: কলকাতায় প্রথম করোনার থাবা, ইংল্যান্ড ফেরত তরুণ ভরতি বেলেঘাটা আইডিতে ]

ওই তরুণ অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ‌্যালয়ের ছাত্র। ইংল‌্যান্ডে একটি জন্মদিনের পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন। সেই পার্টিতেই বেশ কয়েকজন করোনা সংক্রামিত যুবক-যুবতী উপস্থিত ছিলেন বলে জানা গিয়েছে। সেখান থেকেই ওই তরুণের শরীরে ছড়িয়েছে করোনা। কিন্তু কলকাতা বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক‌্যানিংয়ে উপসর্গ ধরা পড়েনি। চিকিৎসকদের মতে, ভাইরাস ইনকিউবেশনে থাকায় যন্ত্র তা বুঝতে পারেনি। বাড়ি ফেরার পর ওই পার্টির কথা জানতে পারে তরুণের পরিবার। স্বাস্থ্য দপ্তরে যোগাযোগ করেন বাড়ির লোকজন। দপ্তরের পরামর্শে তরুণকে বাড়িতে সেল্‌ফ কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। তাঁর লালারসের নমুনা পরীক্ষায় Covid-19 পজিটিভ পাওয়া যায়। তাঁকে বেলেঘাটা আইডিতে করোনা পজিটিভ রোগীদের জন্য তৈরি বিশেষ আইসোলশনে রাখা হয়েছে। তাঁর বাবা, মা ও গাড়ির চালককে রাজারহাটে কোয়ারেন্টাইন করা হয়েছে। জানা গিয়েছে, বেলেঘাটা আইডিতে আসার আগে তিনি এম আর বাঙুর হাসপাতালে গিয়েছিলেন। তাই হাসপাতালের নোডাল অফিসার আইসোলেশনে চলে গিয়েছেন।

দেশে ফিরে তিনি আর কাদের সংস্পর্শে এসেছেন, তার বিস্তারিত খোঁজ চলছে। স্বাস্থ্য দপ্তরের তরফে নাইসেডের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। এখানেই তরুণের সোয়াব টেস্ট হয়েছে। লালার নমুনা পাঠানো হচ্ছে পুণের ইনস্টিটিউট অফ ভাইরোলজিতে। ফের লালার নমুনা সংগ্রহ করে নাইসেডে পাঠানো হচ্ছে। জানা গিয়েছে, আক্রান্ত তরুণের শরীরে করোনা আক্রান্ত হওয়ার উপসর্গ অর্থাৎ জ্বর, কাশি, শ্বাসকষ্ট, কিছুই নেই। অর্থাৎ ‘অ্যাসিম্পটোম্যাটিক’। অথচ, শ্বাসনালিতে রয়েছে করোনার উপস্থিতি। এর পাশাপাশি গত ৩ দিনে ওই যুবক কোথায় কোথায় গিয়েছিলেন, তার খোঁজ নিচ্ছে স্বাস্থ্য দপ্তর। যদি কেউ তরুণের সংস্পর্শে এসে থাকেন, তাহলে তাঁকে সেল্‌ফ কোয়ারেন্টাইনে যাওয়ার অনুরোধ করা হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: করোনা ঠেকাতে গোমূত্র পান করানোর অভিযোগ, গ্রেপ্তার কলকাতার বিজেপি নেতা ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে