২৮ আশ্বিন  ১৪২৬  বুধবার ১৬ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: শ্রাবণের শেষ দিনে প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত মহানগরী। শুক্রবার বিকেল থেকে যে বৃষ্টি শুরু হয়েছিল, তা রাতের দিকে গতি কিছুটা কমালেও শেষরাত থেকে ফের হাঁকিয়ে ব্যাট করেতে শুরু করে দিয়েছে। শনিবার সারাদিন কলকাতা-সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর। বৃষ্টির জেরে হাওড়ার কারশেডে জল জমে রেল পরিষেবা ব্যহত হয়েছে। বাতিল হয়েছে বর্ধমান মেন লাইনের ছ’টি ট্রেন। এছাড়া  শ্রীরামপুর, শেওড়াফুলি ও বেলুরমঠ লোকাল বাতিল করা হয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, বঙ্গোপসাগরে একটি গভীর নিম্নচাপ সৃষ্টি হয়েছে। তার উপর ভরা শ্রাবণে এখন সক্রিয় রয়েছে মৌসুমী অক্ষরেখা। এই দুইয়ের জোড়া ফলায় বৃষ্টি নেমেছে ঝমঝমিয়ে। কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলায় শুক্রবার বিকেল থেকেই মুষলধারায় বৃষ্টি নামে। তবে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ বেশ বেশি। গতকালই অনেক জায়গায় জল জমে যায়। জল জমে যায় কলেজ স্ট্রিট, সেন্ট্রাল অ্যাভেনিউ, মহাত্মা গান্ধী রোড, ঠনঠনিয়া, আমহার্স্ট স্ট্রিট, মুক্তারাম বাবু স্ট্রিট এবং বড়বাজার এলাকায় নিচু জায়গায়। রাতভর বৃষ্টিতে আলিপুর, একবারপুল, বেহালার মতো জায়গায় হাঁটু পর্যন্ত জল জমে যায়। ফলে ভোগান্তির শিকার হন স্থানীয় বাসিন্দারা৷

[ আরও পড়ুন: বৃষ্টির সঙ্গে বজ্রপাত? প্রাণহানি এড়াতে মেনে চলুন বিশেষজ্ঞের টিপস ]

একাধিক জায়গায় জল জমে যাওয়ার কারণে ব্যাহত হয় যান চলাচল। খারাপ আবহাওয়ার কারণে বিমান অবতরণেও সমস্যা দেখা দিয়েছে। বিমানবন্দরের অ্যাপ্রন এলাকায় জল জমে যাওয়ায় যাত্রীদের সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে। খারাপ আবহাওয়ার কারণে তিনটি বিমান অবতরণে দেরি হয়েছে। দু’টি গন্তব্যে পৌঁছতে দেরি করেছে। বৃষ্টির কারণে জীবনানেন্দু সেতু মেরামতির কাজ আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। আজ থেকে সেতু মেরামত শুরু হওযার কথা ছিল। কিন্তু প্রবল বৃষ্টির কারণে পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া বিমানের পণ্য ওঠানামার ক্ষেত্রেও সমস্যা দেখা দেয়। আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, আরও চার ঘণ্টা এমন দুর্যোগ চলতে পারে শহর ও শহরতলীতে।

 

rain-1

প্রবল বৃষ্টিতে শহরবাসীর যাতে কোনও সমস্যা না হয়, তাই কন্ট্রোল রুম চালু করেছিল কলকাতা পুরসভা। সেখান থেকে এখনও চলছে নজরদারি। বিপর্যয় মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত নবান্নও। আবহাওয়া দপ্তরের সঙ্গে বৈঠক করেন কর্তাব্যক্তিরা। বিপর্যয় মোকাবিলা দপ্তরের কর্মীদেরও প্রস্তুত থাকতে বলা হয়েছে।

[ আরও পড়ুন: শোভনে মুগ্ধ দিলীপ, কলকাতায় ফিরলেই প্রাক্তন মেয়রকে সংবর্ধনার ঘোষণা রাজ্য সভাপতির ]

কলকাতার পাশাপাশি হাওড়া, দুই ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর, নদিয়া, মুর্শিদাবাদেও প্রবল বৃষ্টিপাত চলছে। হাওড়ার একাধিক এলাকা জলমগ্ন। রায়দিঘি, ডায়মন্ড হারবার ও ক্যানিংয়ের বেশ অনেক এলাকাতেও জল জমে যায়। হুগলির শ্রীরামপুরের আন্ডারপাসে জলজমায় সমস্যায় পড়েন নিত্যযাত্রীরা। এছাড়া পানিহাটি পৌরসভার একাধিক ওয়ার্ডও জলমগ্ন। দক্ষিণবঙ্গের পাশাপাশি উত্তরবঙ্গেও বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। আজ থেকে সেখানে বৃষ্টি বাড়বে বলে খবর।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং