ad
ad

Breaking News

সল্টলেকের প্রোমোটার গ্রেপ্তার

কারচুপি করে সরকারি জমি হাতানোর অভিযোগ, CID’র হাতে ধৃত প্রভাবশালী প্রোমোটার

সল্টলেকের ওই প্রোমোটারকে হেফাজতে নিয়ে গোটা চক্রের হদিশ পেতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

Influencial promoter in Salt Lake arrested by CID for illegal acquiaring of govt. land
Published by: Sucheta Sengupta
  • Posted:July 1, 2020 5:43 pm
  • Updated:July 1, 2020 6:04 pm

কলহার মুখোপাধ্যায়, বিধাননগর: কারচুপি করে সরকারি জমি হাতিয়ে নেওয়ার মতো বেআইনি কাজের অভিযোগে সিআইডি’র (CID) হাতে গ্রেপ্তার সল্টলেকের এক প্রোমোটার। রাজীব রঞ্জন কুমার নামে ওই ব্যক্তিকে আজ বিধাননগর মহকুমা আদালতে পেশ করে সিআইডি নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানিয়েছে।

ঘটনার সূত্রপাত কয়েক বছর আগে, সল্টলেকের ডিবি ১২২ নং প্লট নিয়ে। এই জমিটি নগরোন্নয়ন দপ্তরকে দিয়েছিলেন সল্টলেকের ডিবি ব্লকের বাসিন্দা এক বৃদ্ধা। এরপর তিনি মুম্বইয়ে মেয়ের কাছে চলে যান। ২০১৯-এ নগরোন্নয়ন দপ্তরের কর্মীর ভুয়ো পরিচয় দিয়ে মুম্বইয়ের সেই ঠিকানায় পৌঁছে যান দুই ব্যক্তি। বৃদ্ধাকে ওই জমির জন্য ১৫ লক্ষ টাকার চেক দিয়ে সই করিয়ে নেন। এতে সন্দেহ হয় বৃদ্ধার মেয়ের। তিনি দু’জনের পরিচয়পত্র দেখতে চান। তাঁরা পরিচয়পত্র দেখালে সেই নথি রেখে দেন মেয়ে। এরপর কলকাতায় নগরোন্নয়ন দপ্তরের সঙ্গে তিনি যোগাযোগ করে সবটা জানান। নগরোন্নয়ন দপ্তরের খোঁজখবর নিয়ে জানানো হয়, ওই দু’জন আদৌ তাঁদের দপ্তরের কর্মী নন।

[আরও পড়ুন: লকডাউনে তীব্র আর্থিক অনটন, মানসিক অবসাদে আত্মঘাতী বাসচালক]

ব্যক্তিরা যে ভুয়ো পরিচয় দিয়ে কোনও বেআইনি কাজ করছেন, এই সন্দেহ দৃঢ় হওয়ায় মুম্বই থেকে ওই বৃদ্ধা বিধাননগর উত্তর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অন্যদিকে, নগরোয়ন্নয়ন দপ্তরও গোটা বিষয়টি জানার পর নিজেদের মতো করে তদন্ত করে। জানা যায়, একটি প্লট নয়, সল্টলেকের অন্তত তিনটি সরকারি জমি হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে। ব্যাপারটির গুরুত্ব বুঝে সিআইডি পরে এর তদন্তভার গ্রহণ করে। পাশাপাশি, বিধাননগর উত্তর থানায় নগরোন্নয়ন দপ্তরও অভিযোগ দায়ের করে।

সিআইডি ঘটনার তদন্তে নেমে জানতে পারে, প্রভাবশালী কয়েকজন জমি ব্যবসায়ী এবং সল্টলেকের কয়েকজন প্রোমোটার এই বেআইনি কাজের সঙ্গে জড়িত। এর নেপথ্যে তৎকালীন পুরসভার কয়েকজন কর্মী, আধিকারিকের ভূমিকাও তদন্ত করে দেখা হয়। তাতেই সল্টলেকের অন্যতম প্রভাবশালী প্রোমোটার রাজীব রঞ্জনের যোগ পান তদন্তকারীরা। খবর পাওয়া যায়, ডিবি ১২২ প্লটের বেআইনি কাজ নিয়ে সেসময় ডিবি ব্লকের নাগরিক সমাজও সরব হয়েছিল। সেসব তথ্যের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাজীব রঞ্জনকে ডেকে দিনভর জেরা করা হয়। তাতে সরকারি জমি নিয়ে কারচুপিতে তাঁর যুক্ত থাকার কয়েকটি মেলে বলে দাবি সিআইডি কর্তাদের। এরপর তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

[আরও পড়ুন: প্রাতঃভ্রমণে বেরিয়ে আক্রান্ত দিলীপ ঘোষ, গাড়িতে ভাঙচুর চালাল ‘তৃণমূল’]

সূত্রের খবর, রাজীব রঞ্জন কুমার সল্টলেকের বেশ প্রভাবশালী প্রোমোটার। তাঁর সঙ্গে রাজ্যের উচ্চমহলের ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল বলেও মত একাংশের। সেই সুযোগেই কি এমন সরকারি জমি নিয়ে এমন বেআইনি কাজ? রাজীব রঞ্জনকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে গোটা চক্রের হদিশ পেতে চাইছেন তদন্তকারীরা।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ