BREAKING NEWS

১০  আশ্বিন  ১৪২৯  বুধবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

জেশপ অগ্নিকাণ্ড: অন্তর্ঘাতের অভিযোগ দমকলমন্ত্রীর

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 18, 2016 2:46 pm|    Updated: January 28, 2020 5:03 pm

Jeshop fire issue: minister complains sabotage

স্টাফ রিপোর্টার: সাত দিনের মাথায় আবারও দমদমের জেশপ কারখানায় আগুন লাগল৷ আর এই আগুন লাগার ঘটনাতে উঠছে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ৷ সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য সরকার৷ সেই মতো মঙ্গলবার বেলা সাড়ে বারোটা নাগাদ সিআইডি’র টিম সেখানে পৌঁছয়৷ ছিলেন বারাকপুরের পুলিশ কমিশনার তন্ময় রায়চৌধুরি৷ তিনি জানিয়েছেন, “জেশপের নিরাপত্তায় বাড়তি পুলিশ থাকবে৷ রাখা হবে কমব্যাট ফোর্স৷” আগাছা পরিষ্কার করবে পুরসভা৷ কারখানা কর্তৃপক্ষ পরিকল্পিতভাবে প্রোমোটারদের হাতে জমি হস্তান্তরের জন্য এমন আগুন লাগিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন কারখানার কর্মীরাই৷ ঘটনাস্থল পরিদর্শনের পর রাজ্যের দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় স্পষ্ট অভিযোগ করেছেন, হাই কোর্টের নির্দেশ মেনে কাজ করছে না কর্তৃপক্ষ৷ ফরেনসিক তদন্তের রিপোর্ট পেলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান৷

আগুন লাগার পিছনে কারখানার মালিক রুইয়াদের ভূমিকাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না৷ মন্ত্রীর অভিযোগ, “এটি নাশকতা ছাড়া আর কিছু নয়৷ কারখানাকে অন্যভাবে ব্যবহারের চেষ্টা করা হচ্ছে৷”

গতকাল সন্ধে ছ’টা নাগাদ জেশপের ২৮ নম্বর গেটের কাছে আগুন লাগে৷ একইসঙ্গে পাঁচটি জায়গায় আগুন লাগে৷ এই প্রেক্ষিতেই অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা করা হয়েছে৷ আগুন লাগার খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে যান দমকলমন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায় ও স্থানীয় বিধায়ক রাজ্যের তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রী ব্রাত্য বসু৷ ব্রাত্যবাবুর অভিযোগ, সাবোতাজ করার চেষ্টা করা হচ্ছে, যা শিল্পায়নের পরিপন্থী৷ সদিচ্ছা দরকার বলে মন্তব্য করেছেন তিনি৷ কয়েক ঘণ্টার চেষ্টায় দমকলের কর্মীরা আগুন আয়ত্তে আনেন৷ অভিযোগ উঠেছে, হাই কোর্টের নির্দেশ সত্ত্বেও সত্তর একর জমি ঘিরে রাখা হয়নি৷ আলোর ব্যবস্থা করারও কথা ছিল কারখানা কর্তৃপক্ষের৷ যন্ত্র রক্ষণাবেক্ষণেরও কোনও ব্যবস্থা করেনি৷ সন্ধ্যায় একই সঙ্গে পাঁচটি জায়গায় আগুন লাগে৷ তফাত ছিল একশো বা দু’শো মিটারের৷

২৮ নম্বর গেটের কাছে পুজোর সময় পুলিশ নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিল৷ বারবার সেখান দিয়ে সমাজবিরোধীরা বিভিন্ন সামগ্রী সরাচ্ছিলেন৷ উৎসবের পর পুলিশ সরে যেতেই আগুন লাগে৷ দমকলের পক্ষ থেকে এফআইআর করা হয়েছে৷ বিমানবন্দর এলাকার কাছে এলাকার জমির দাম আকাশছোঁয়া৷ বিধানসভায় জেশপ অধিগ্রহণ বিল পাস করিয়েছে রাজ্য৷ ত্রিশঙ্কু অবস্থায় জেশপের মালিকানা৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে