BREAKING NEWS

১৫  আষাঢ়  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৩০ জুন ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আন্দোলনের জেরে প্রবেশিকা ফিরল যাদবপুরে, সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত উপাচার্যের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 10, 2018 9:09 pm|    Updated: July 10, 2018 11:33 pm

JU to conduct entrance exam for admission in Arts section,

রিংকি দাস ভট্টাচার্য: পড়ুয়া ও অধ্যাপকদের একাংশের আন্দোলনের চাপে পিছু হটল কর্তৃপক্ষ৷ ভরতিতে প্রবেশিকা পরীক্ষা ফিরল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা বিভাগে৷ কিন্তু, দায়িত্ব থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন খোদ উপাচার্য সুরঞ্জন দাস ও সহ-উপাচার্য প্রদীপকুমার ঘোষ। উপাচার্য সুরঞ্জন দাস জানিয়েছেন, ‘এভাবে বিশ্ববিদ্যালয় চালানো সম্ভব নয়৷ রাজ্যপাল তথা আচার্যে কাছে অব্যাহতি চাইব আমি ও সহ-উপাচার্য৷’ এদিকে, দাবিপূরণ হওয়ায় স্বভাবতই খুশি আন্দোলনকারী পড়ুয়ারা৷ বৈঠকে বসে অনশন প্রত্যাহার করার সিদ্ধান্ত নেন পড়ুয়ারা। তারপর তারা অনশন প্রত্যাহার করে নেন।

[যাদবপুরের অচলাবস্থা কাটার ইঙ্গিত, পড়ুয়াদের কাছে অনশন প্রত্যাহারের আরজি কর্তৃপক্ষের]

প্রথমে স্থগিত, শেষপর্যন্ত বাতিল৷ মাঝে দু’বার প্রবেশিকা পরীক্ষা দিন ঘোষণা৷ কলা বিভাগে স্রেফ বোর্ডের পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে ভরতির প্রতিবাদে আন্দোলনে নেমেছিলেন যাদবপুরের পড়ুয়ারা৷ টানা ৩১ ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখা হয়েছিল উপাচার্য ও রেজিস্ট্রারকে৷ শেষপর্যন্ত ঘেরাও প্রত্যাহার করে নেওয়া হলেও, জারি ছিল আন্দোলন৷ গত শুক্রবার আন্দোলনে শামিল হয়েছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়াদের একাংশ৷ অধ্যাপকদের পাশে পেয়ে বাড়তি উদ্যমে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ে পড়ুয়ারা৷ শুরু হয়ে যায় আমরণ অনশন৷ পরিস্থিতি এমন জায়গায় পৌঁছয় যে, আন্দোলনকারীদের মুখোমুখি হয়ে কৌশলী অবস্থান নেন যাদবপুরের উপাচার্য সুরঞ্জন দাস৷ জানিয়ে দেন, উপাচার্য হিসেবে কর্মসমিতির সিদ্ধান্ত কার্যকর করতে তিনি বাধ্য৷ শেষপর্যন্ত যাদবপুরে প্রবেশিকা বিতর্কে কিন্তু জয় হল আন্দোলনকারী পড়ুযা ও অধ্যাপকদেরই৷

গত ২৭ জুন প্রবেশিকা ও বোর্ডের পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তি কলা বিভাগের ভরতির সিদ্ধান্ত নিয়েছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতি৷ দুটি পরীক্ষার ৫০ শতাংশ নম্বরের ভিত্তি মেধাতালিকা তৈরির কথা ঘোষণা করা হয়েছিল৷ কিন্তু, এক সপ্তাহের মধ্যে সেই সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়৷ বাতিল হয়ে যায় প্রবেশিকা পরীক্ষা৷ যাদবপুরে অচলাবস্থা কাটাতে মঙ্গলবার ফের বৈঠকে বসেন কর্মসমিতির সদস্য৷ বৈঠকে ২৭ জুনের নির্দেশই বহাল রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়৷ তবে কর্মসমিতির সিদ্ধান্তের সঙ্গে সহমত নন খোদ উপাচার্য সুরঞ্জন দাস, সহ উপাচার্য-সহ ৫ জন সদস্য৷ রাজ্যপাল তথা আচার্যের কাছে অব্যাহতি চাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ও সহ-উপাচার্য৷

[পোস্টে ধাক্কা খেয়ে চলন্ত ট্রেন থেকে পড়ে মৃত্যু যুবকের, উত্তেজনা বালিগঞ্জ স্টেশনে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে