BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দাবদাহ থেকে মুক্তি দিয়ে মুষলধারে বৃষ্টি দক্ষিণবঙ্গে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: June 13, 2016 9:48 am|    Updated: June 13, 2016 9:53 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত ৪৮ ঘন্টার তীব্র দাবদাহ ও ঘেমো গরমের হাত থেকে মুক্তি পেল দক্ষিণবঙ্গ৷ সোমবার ভোর থেকে কলকাতা, দুই ২৪ পরগনা-সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে মুষলধারে বৃষ্টিপাত শুরু হয়৷ বৃষ্টি হয়েছে ৩১.৭ মিলিমিটার৷ তবে এই বৃষ্টি প্রাক-বর্ষা বা বর্ষার আগমনের জন্য নয় বলেই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর৷ বিহারের উপর তৈরি হওয়া ঘূর্ণাবর্ত গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপর সরে আসায় স্থানীয়ভাবে কিছু বজ্রগর্ভ মেঘ তৈরি হয়েছে৷ সেই মেঘ থেকেই বৃষ্টি বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস৷ আজ শহরের সর্ব্বোচ্চ তাপমাত্রা থাকবে ৩৪ ডিগ্রির আশেপাশে, সর্বনিম্ন ২৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷

প্রায় দু’মাস তীব্র গরমের পর আজ ভোর থেকে হঠাৎ করেই পরিস্থিতির বদল৷ অবশ্য শনিবারের তুলনায় রবিবার দু’ডিগ্রি কমে তাপমাত্রা ছিল ৪০ ডিগ্রি৷ যদিও তা স্বাভাবিকের তুলনায় প্রায় ছ’ডিগ্রি বেশি৷ মেঘলা আকাশ ও হালকা হাওয়া থাকায় পরিস্থিতি কিছু অনুকূল ছিল৷ আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, কেরলে ঢুকে সাধারণত বঙ্গোপসাগর হয়ে ওড়িশা উপকূলে আছড়ে পড়ার পর রাজ্যে ঢোকে বর্ষা৷ কিন্তু এবার বর্ষা মধ্য বঙ্গোপসাগরে এসে আচমকাই গতি কমিয়েছে৷ কারণ এল নিনোর শেষবেলার প্রভাব৷ যার জেরে রাজস্থানের দিক থেকে আসা গরম হাওয়া দেওয়াল তুলে রেখেছে মধ্য বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত৷ দাবদাহের সঙ্গে বাড়ছিল আর্দ্রতার প্রভাব৷ আজকের বৃষ্টি স্থানীয়ভাবে সঞ্চার হওয়া বজ্রগর্ভ মেঘের কারণে হয়েছে৷ পাকাপাকিভাবে বর্ষা কবে আসবে তা নিয়ে এখনই নিশ্চিত নন বিশেষজ্ঞরা৷

বেলা গড়ালেও কোথাও কোথাও বৃষ্টিপাত এখনও চলছে৷ আজ দিনভর শহরের আকাশ মেঘে ঢাকা থাকবে৷ বিকেলের দিকে ফের একপ্রস্থ বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টিপাত হতে পারে৷ সকালের কয়েক ঘন্টার বৃষ্টিতেই মধ্য কলকাতার কোনও কোনও এলাকায় জল জমে গিয়েছে৷ যদিও কলকাতা পুরসভার সৌজন্যে কোথাও জল বেশিক্ষণ জল জমেনি৷

এদিকে আজ থেকেই খুলে গেল সব সরকারি স্কুল৷ সকালে পড়ুয়াদের স্কুলে পৌঁছে দিতে বেগ পেতে হয় অভিভাবকদের৷ শ্যামবাজার, মৌলালি, শিয়ালদহের মতো ব্যস্ত এলাকায় সকাল ৭টা থেকে ট্রাফিক জ্যাম শুরু হয়ে যায়৷ বৃষ্টির জেরে আজ কয়েকটি বিমান ওঠানামাতেও দেরি হয়েছে বলে খবর৷ শিয়ালদহ ও হাওড়া স্টেশনে ট্রেন চলাচলের গতি ছিল ধীর৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement