BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

সল্টলেক গণধর্ষণ-কাণ্ডে গ্রেফতার ৩

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 31, 2016 2:14 pm|    Updated: May 31, 2016 2:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সল্টলেক গণধর্ষণ কাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তিন যুবককে গ্রেফতার করল বিধাননগর সিটি পুলিশ৷ ঘটনার একদিনের মধ্যেই ওই তিন যুবককে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ এছাড়া একটি টাটা সুমো গাড়িকেও আটক করেছে পুলিশ৷ গোয়েন্দাদের সন্দেহ, ওই গাড়িতেই গণধর্ষণ করা হয় তরুণীকে৷

পুলিশ সূত্রে খবর, অর্ণব দে এবং শুভেন্দু নাথ নামে দুই যুবককে বাগুইআটি থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ সৌরব বেরা নামে অপর এক যুবককে সায়েন্স সিটির সামনে থেকে ধরা হয়েছে৷ ধৃত তিনজন গাড়ি চালায় বলে জানায় গোয়েন্দাদের৷ এছাড়াও উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট থেকে গাড়িটিকেও আটক করেছে পুলিশ৷ চালক-সহ গাড়িতে ছিল চার জন৷ গাড়িটিকে তথ্যপ্রযুক্তি অফিসগুলিতে ভাড়া খাটানো হত বলে জানা গিয়েছে৷ চতুর্থ অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে পুলিশ৷ এদিন ঘটনার প্রতিবাদে ইলেকট্রনিক্স কমপ্লেক্স থানার বাইরে রূপা গঙ্গোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বিক্ষোভ দেখায় বিজেপি-র মহিলা মোর্চা৷

প্রসঙ্গত, রবিবার রাতে বিধাননগর কমিশনারেটের অধীন সেক্টর ফাইভের একটি রেস্তোরাঁর সামনে থেকে গাড়িতে জোর করে তোলা হয় নির্যাতিতা ওই তরুণীকে৷ এরপর ঘণ্টা তিনেক ধরে বিধাননগর এবং সেক্টর ফাইভের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে থাকে গাড়িটি৷ অভিযোগ, চলন্ত গাড়ির মধ্যে ধর্ষণ করা ওই তরুণীকে৷ এরপর সল্টলেকের বৈশাখী মোড়ের কাছে এক কফিশপের বাইরে নির্জন রাস্তায় ওই তরুনীকে ফেলে রেখে গাড়ি নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা৷ সেখানে তখন গাড়ি দাঁড় করিয়ে ঘুমোচ্ছিলেন এক ট্যাক্সিচালক৷ তিনিই প্রথম দেখতে পান রাস্তার ধারে পড়ে রয়েছেন ওই তরুণী৷ ভেসে আসছে গোঙানির শব্দ৷ তরুণীর গায়ে অবিন্যস্ত পোশাক দেখে সন্দেহ হয় ওই ট্যাক্সি চালকের৷ তিনিই কাছে থাকা পুলিশ কিয়স্ক থেকে দুই পুলিশকর্মীকে ডেকে নিয়ে আসেন৷ ওই তরুণীকে উদ্ধার করেন বিধাননগর উত্তর থানার মহিলা পুলিশকর্মীরা৷ পেশায় পানশালার গায়িকা ওই তরুণী বাগুইআটি থানা এলাকার চিনারপার্কে একটি ফ্ল্যাটে ভাড়া থাকেন৷ রবিবার রাতে বাগুইআটি থেকে একটি লাক্সারি ট্যাক্সি ধরেন৷ কিন্তু নেমে যান চিংড়িহাটা মোড়ের কাছে৷ কিছুক্ষণ পর সেক্টর ফাইভের একটি অফিস এবং একটি রেস্তোরাঁর সিসিটিভিতে ধরা পড়ে ওই তরুণীর ছবি৷ কিছুক্ষণ পর সিসিটিভি ফুটেজে দেখা যায় এই তরুনীর সামনে এসে দাঁড়ায় একটি গাড়ি৷ কার্যত টেনে হিঁচড়ে ওই তরুণীকে গাড়িতে তোলা হয়৷ বিধাননগরের কমিশনার জাভেদ শামিম জানিয়েছেন, এই তরুণীর বয়ান খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷ তাঁর বাড়ি এবং কর্মস্থল দুইই সেক্টর ফাইভের থেকে অনেক দূরে, তাই অত রাতে তিনি একাকী সেক্টর ফাইভে কী করছিলেন তাও জানার চেষ্টা করছেন গোয়েন্দারা৷ খতিয়ে দেখা হচ্ছে তরুণীর মোবাইলের কললিস্টও৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement