BREAKING NEWS

৩১ আশ্বিন  ১৪২৮  সোমবার ১৮ অক্টোবর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

সোমবারের বদলে বুধবার, শপথগ্রহণের দিন পরিবর্তন করলেন কুমারস্বামী

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 19, 2018 9:05 pm|    Updated: May 19, 2018 11:09 pm

Kumaraswamy  invited Mamata Banerjee for the oath taking ceremony on Wednesday

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক:  বিজেপি মুক্ত ভারত গড়তে আগেই বার্তা দিয়েছিলেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিজেপিকে পর্যুদস্ত করতে এবার আঞ্চলিক ফ্রন্টগুলিকে এক ছাতার নিচে আনতে কর্ণাটক সফরে যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ জানা গিয়েছে, আগামী বুধবার কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে হাজির থাকবেন মুখ্যমন্ত্রী৷ প্রথমে ঠিক ছিল সোমবার কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী হিসাবে শপথগ্রহণ করবেন কুমারস্বামী৷ কিন্তু ওই দিন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধীর মৃত্যুদিন৷ আর সেই কারণেই কুমারস্বামী শপথগ্রহণের দিন পরিবর্তনের সিদ্ধান্ত নেন৷ বুধবার অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ শুধু মমতাই নয়, অখিলেশ যাদব, মায়াবতীরও হাজির থাকার সম্ভাবনা রয়েছে৷ সেদিনই দাক্ষিণাত্য কংগ্রেস-জনতা দলের নতুন সরকারের শপথ অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকেই শুরু হতে পারে অ-বিজেপি রাজনৈতিক জোট বাধার কাজ৷

[কোথায় গেল দেশভক্তি, বিজেপির বিরুদ্ধে জাতীয় সংগীত অবমাননার অভিযোগ রাহুলের]

সোমবারের বদলে বুধবার বেলা ১১টা নাগাদ শপথ নেবেন কুমারস্বামী৷ তার আগে রাজ্যপালের কাছে সরকার গঠনের জন্য যাবতীয় প্রশাসনিক কাজও মিটিয়ে ফেলা হয়েছে৷ শপথ অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে আমন্ত্রিতদের তালিকাও তৈরি করা হয়ে গিয়েছে৷ আমন্ত্রিতদের তালিকার শীর্ষে রয়েছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ এদিন টুইট করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘একটু আগেই কুমারস্বামীকে অভিনন্দন জানালাম৷ কুমারস্বামী আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন৷’’

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি, অ-বিজেপি রাজ্যগুলির প্রধানদেরও আমন্ত্রণ পাঠানো হয়েছে৷ অখিলেশ যাদব, মায়াবতী, লালুপ্রসাদ-সহ বাম নেতৃত্বকেও এদিনের শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নিতে আরজি জানানো হয়৷ মনে করা হচ্ছে, বুধবার কর্ণাটকে নতুন সরকার গঠনের পাশাপাশি অ-বিজেপি শক্তিগুলিকে একত্রিত করে জোট গঠনের প্রাথমিক প্রক্রিয়া সেরে ফেলতে চাইছেন সোনিয়া পুত্র রাহুল গান্ধী৷

[কর্ণাটকে বিজেপির স্বপ্নভঙ্গের নেপথ্যে আঞ্চলিক ফ্রন্টের জয়, জোটের পাশে মমতা]

কারণ, এর আগেও একইভাবে বিহার ও উত্তরপ্রদেশ নির্বাচনে বিজেপির বিরুদ্ধে আঞ্চলিক দলগুলির সঙ্গে জোট বেঁধেছিল কংগ্রেস৷ বিহারে কয়েক মাসের জন্য কংগ্রেসের সাফল্য এলেও উত্তরপ্রদেশ একটুর জন্য হাতছাড়া হয়েছে৷ গোয়া নির্বাচনেও একই ঘটনার পুনরাবৃত্তি ঘটেছে৷ ফলে, এবারের কর্ণাটক নির্বাচন ছিল রাহুলের ঠেকে শেখার লড়াই৷ সেই লড়াইয়ে সাফল্য মিলতেই এবার রাজ্য-আঞ্চলিক দলগুলির সঙ্গে জোটের পথ খুলতে চাইছেন রাহুল গান্ধী৷ ফলে, এই সুযোগে দেশের সমস্ত অ-বিজেপি শক্তিগুলিকে এক ছাতার নিচে এনে একপ্রস্থ জোট গঠনের কথা আগেই পড়ে রাখতে চাইছেন কংগ্রেস সভাপতি৷ বর্তমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট যা, তাতে আঞ্চলিক দলের প্রতিনিধি হিসাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কর্ণাটক সফর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠতে পারে বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement