৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ২৯ বছর আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর হামলার ঘটনায় বেকসুর খালাস পেলেন মূল অভিযুক্ত লালু আলম। ১৯৯০ সালে হাজরা মোড়ে মমতার উপর হামলায় অভিযুক্ত এই সিপিএম নেতাকে বৃহস্পতিবার বেকসুর খালাস করে দেয় আলিপুর আদালত। সাক্ষীর অভাবে তাঁর অপরাধ প্রমাণিত হয়নি। সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রীও তাঁকে ক্ষমা করে দিয়েছিলেন।

১৯৯০ সালের ১৬ আগস্ট। তখন যুব কংগ্রেস নেত্রী মমতা। সেদিন প্রদেশ কংগ্রেসের ডাকা বনধের সমর্থনে হাজরা মোড়ে নেমেছিলেন তিনি। রাজ্যে তখন বামফ্রন্ট জমানা। বনধের বিরোধিতায় পথে নেমেছিল সিপিএম নেতা-কর্মীরা। সেইদলে ছিলেন লালু আলম ও তাঁর অনুগামীরা। বনধ তুলতে হাজরা মোড়ে মমতার উপর লালু আলম ও তাঁর অনুগামীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ ওঠে। মমতার মাথায় বাঁশ দিয়ে মারা হয়। গুরুতর জখম অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে ভরতি করা হয়। সেদিনের সেই আঘাত মমতার রাজনৈতিক জীবনে এক অন্য গতি দেয়।

ঘটনার ২৮ বছর পর সেই মামলার চার্জ গঠন হয়। সাক্ষ্যদান আংশিক সম্পূর্ণ হলেও অভিযুক্ত পক্ষের আইনজীবী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে জিজ্ঞাসাবাদ করেননি। ফলে মূল বিচারপ্রক্রিয়া শুরু করা যায়নি। রাজনৈতিক কাজকর্মের ব্যস্ততা ও আইনশৃঙ্খলার কারণ দেখিয়ে আদালতে উপস্থিত হতে পারেননি। গত বছর ফেব্রুয়ারি মাসে এই মামলার শুনানি শুরু হয়। তখন ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে মমতার সাক্ষ্য নেওয়া হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু তাও উপযুক্ত পরিকাঠামোর অভাবে নেওয়া সম্ভবপর হয়নি।

সরকারি কৌঁসুলি রাধাকান্ত মুখোপাধ্যায় আদালতে চিঠি দিয়ে জানান, ২৯ বছর ধরে চলা এই মামলার ভবিষ্যৎ কী? তাই বৃহস্পতিবার আলিপুর আদালত এই মামলায় লালু আলমকে বেকসুর খালাস করে দেয়।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং