৩০ ভাদ্র  ১৪২৬  মঙ্গলবার ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

অর্ণব আইচ: বাড়িওয়ালা-ভাড়াটের গোলমাল। তারই জেরে পোষা কুকুরের গায়ে গরম জল ঢালার অভিযোগ তুললেন ভাড়াটে। বাড়িওয়ালার পালটা অভিযোগ, ভাড়াটেরা বাড়ির জলের রিজার্ভারে বিষ ও নোংরা মিশিয়েছে। এই বিষয়ে বালিগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ইস্যু ‘আক্রান্ত বিদ্যাসাগর’, সংস্কৃতির আবেগে ভর করেই শেষ দফায় বাজিমাত তৃণমূল]

পুলিশ জানিয়েছে, বালিগঞ্জের ডোভার রোডে এই ঘটনাটি ঘটে। সম্প্রতি এখানেই একটি বাড়ির এক বাসিন্দা অভিযোগ তোলেন, তাঁদের বাড়িওয়ালা হঠাৎই তাঁর পোষা কুকুরের উপর অত্যাচার শুরু করে। কুকুরটি বাড়ির মধ্যে ঘোরাফেরা করত। মওকা বুঝে কুকুরটির শরীরের উপর গরম জল ঢেলে দেন বাড়িওয়ালা ও তাঁর লোকেরা। তার দিকে তাক করে যথেচ্ছ ইট মারতে শুরু করেন তাঁরা। কোনওমতে কুকুরটি ভিতরে এসে আশ্রয় নেয়। কিন্তু জল এতটাই গরম ছিল যে, পোষ্যটির লোম পুড়ে যায়। সেটি ভিতরে এসেও আর্তনাদ করতে থাকে। শব্দ শুনে বাড়ির লোকেরা ছুটে এসে কুকুরটিকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যান।

[আরও পড়ুন: কবিতায় প্রতিক্রিয়া, ভোটের ফলপ্রকাশের পর মুখ্যমন্ত্রীর কলমে এল ‘মানি না’]

তাঁর অবস্থা দেখে পুলিশের কাছে পশুক্লেশের অভিযোগ দায়ের করা হয়। এদিকে, বাড়িওয়ালার পালটা অভিযোগ, গত এপ্রিল মাসে গোলমালের সূত্রপাত। তিনি জলের কল খুলতেই দেখেন জলের সঙ্গে ময়লা মেশানো ও জলের গন্ধও খুব বাজে। ওই জল তিনি মুখে দিতে পারেননি। লোক ডাকিয়ে রিজার্ভার পরিষ্কার করতে গিয়ে দেখেন, জলে মেশানো হয়েছে কালো রঙের কোনও রায়াসনিক ও বিষ্ঠা। এই জল ব্যবহার করার পর তাঁরা অসুস্থও হয়ে পড়েন বলে অভিযোগ। এই বিষয়ে পালটা অভিযোগও দায়ের করা হয়। একসঙ্গে দু’টি ঘটনারই তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।মনে করা হচ্ছে প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়েই এমন কাণ্ড ঘটিয়েছেন ওই বাড়িওয়লা। যদিও, প্রতিহিংসার জেরে নিরীহ পোষ্যের উপর আক্রমণ কতটা মনুষ্যচিত কাজ তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং