BREAKING NEWS

২ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শিয়রে ভোটের ফল: সিপিএমের মনোবল তলানিতে

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: May 15, 2016 9:09 am|    Updated: May 15, 2016 9:09 am

An Images

ফাইল চিত্র

দিন যত এগোচ্ছে ততই ভাঙছে সিপিএম৷ গণনার শেষে অশান্তির আশঙ্কায় মেডিক্যাল টিম তৈরির পরিকল্পনার পর এবার কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখার আর্জি জানাল সিপিএম৷ গণনার শেষে অন্তত দু’সপ্তাহ রাজ্যে মোতায়েন রাখা হোক কেন্দ্রীয় বাহিনী– এই আর্জি নিয়ে শনিবার রাজ্য মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সুনীল গুপ্তার কাছে দরবারে রবীন দেবরা৷  গণনার দিন যত এগোচ্ছে নিজেদের অবস্থান থেকে সরে আসছেন সিপিএম নেতারা৷ জোট সেনাপতি সূর্যকান্ত মিশ্রর বডি ল্যাঙ্গুয়েজ হঠাৎ বদলে যাওয়ায় হারের আশঙ্কা আরও ঘনীভূত হয়েছে৷

জোটের সাফল্য নিয়ে সন্দিহান সঙ্গী কংগ্রেসও৷ সিপিএমের অন্দরমহলে এ নিয়ে ইতিমধ্যে চর্চাও শুরু হয়েছে৷ বহু ভোট খুব কাছ থেকে দেখেছেন এমন নেতাদের অ্যাসেসমেন্ট ম্যাজিক ফিগার থেকে বহু দূরে৷ অবশ্য সূর্যকান্ত মিশ্রর মতো নেতারা তা উপেক্ষা করে এক সময় জোটের ডবল সেঞ্চুরির কথাও শুনিয়েছিলেন৷ সেই অবস্থান থেকে সরে এসে সূর্যকান্ত মিশ্রকে বলতে শোনা গিয়েছে, “নিছক ক্ষমতায় আসার জন্য লড়াই করছি না৷ সরকার বদলাক না বদলাক, ময়দানে থাকতে হবে৷ সরকারে কে আছে কে নেই, বিরোধীদলে কে আছে সেসব না দেখে সাদাকে সাদা ও কালোকে কালো বলতে হবে৷”

জোট ক্ষমতায় আসা শুধু সময়ের অপেক্ষা– একাধিকবার একথা শুনিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরিও৷ কিন্তু সেসব উড়িয়ে দিয়ে জোট মুখ থুবড়ে পড়লে দায় কার উপর বর্তাবে এ নিয়ে বিধানভবনেও শুরু হয়েছে চুলচেরা বিশ্লেষণ৷ এই পরিস্থিতিতে গণনার পর অন্তত দু’সপ্তাহ রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী রাখার আর্জি প্রসঙ্গে রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, হারের আশঙ্কা করেই সমর্থকদের সুরক্ষিত করতে চাইছে সিপিএম৷ শুক্রবার একই দাবিতে সরব হয় রাজ্য বিজেপিও৷

কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখার দাবির কারণ হিসাবে নির্বাচন পরবর্তী হিংসার তত্ত্বও খাড়া করছে সিপিএম৷ এদিন সুনীল গুপ্তার কাছে ডেপুটেশন দেওয়ার পর রবীন দেবের অভিযোগ, রাজ্যে দিকে দিকে নির্বাচন পরবর্তী হিংসার ঘটনা ঘটে চলেছে৷ কেন্দ্রীয় বাহিনীকে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে৷ যে সংখ্যক কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রয়েছে তাদের স্ট্রং রুম পাহারার কাজে রাখা হয়েছে৷ নির্বাচন পরবর্তী হিংসা নিয়ে একাধিকবার অভিযোগ জানানো হলেও তা নিয়ে কোনও ব্যবস্থা নিচ্ছে না পুলিশ৷ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক৷ সে কারণেই গণনার পরও কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখা প্রয়োজন৷ কিন্তু নির্বাচনের পর কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখার আর্জির পিছনে অন্য কারণ দেখছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা৷ তাদের ব্যাখ্যা, ভোটের পর দলের অভ্যন্তরীণ সমীক্ষা রিপোর্টে জোটের ক্ষমতায় আসা নিয়ে ঘোরতর বিরোধ রয়েছে৷ একাধিক নেতাই ভোটের ফল নিয়ে আশঙ্কিত৷ তাই গণনার পর দলীয়স্তরে রুখে দাঁড়ানোর পাশাপাশি কেন্দ্রীয় বাহিনী মোতায়েন রাখতে এখন থেকেই চাপ সৃষ্টি করছে সিপিএম৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement