BREAKING NEWS

৯ শ্রাবণ  ১৪২৮  সোমবার ২৬ জুলাই ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

পার্থর সংগঠনে ভুয়ো তৃণমূল নেতা! ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি অভিষেককে

Published by: Suparna Majumder |    Posted: July 2, 2021 8:55 pm|    Updated: July 2, 2021 9:48 pm

Letler to Abhishek Banerjee about intimation regarding misuse of WB State Government Employees Federation's Name | Sangbad Pratidin

দীপঙ্কর মণ্ডল: ভুয়ো আইএস, ভুয়ো পুলিশের (অর্কপ্রভ মজুমদার) পর এবার ভুয়ো তৃণমূল নেতার (TMC Leader) খোঁজ পাওয়া গেল। রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের নাম করে একটি নকল প্যাড ছাপানো হয়েছে। ঠিকানা দেওয়া হয়েছে তপসিয়ার তৃণমূল ভবনের। এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আরজি জানিয়ে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে (Abhishek Banerjee) চিঠি লেখা হল।

রাজ্য সরকারি কর্মচারী ফেডারেশনের চেয়ারম্যান তৃণমূল মহাসচিব তথা শিল্পমন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় (Partha Chatterjee)। চিঠির একটি কপি তাঁকেও দেওয়া হয়েছে। যাতে সংগঠনের রাজ্য কনভেনর দিব্যেন্দু রায় অভিযোগ জানিয়েছেন, তাঁর নামের বদলে কনভেনর হিসেবে ‘দীপ্তেন্দু’ লিখে বদলি-সহ সরকারি অফিসারদের নানা রকম কাজ করে দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। সম্প্রতি ওই ভুয়ো তৃণমূল নেতা পূর্ত দপ্তরের সোশ্যাল সেক্টরের এক চিফ ইঞ্জিনিয়ারকে চিঠি দিয়ে মুর্শিদাবাদে কর্মরত এক সরকারি কর্মীর বদলির নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

Letler to Abhishek Banerjee about intimation regarding misuse of WB State Government Employees Federation's Name

[আরও পড়ুন: শুভেন্দুর সঙ্গে গোপন বৈঠক খারিজের চেষ্টা করছেন তুষার মেহতা, তোপ অভিষেকের]

দিব্যেন্দুবাবুর অভিযোগ, এটি একটি বড় চক্রান্ত। অবিলম্বে ভুয়ো তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার আবেদন জানিয়েছেন তিনি। পরবর্তী পদক্ষেপ কি করা উচিত তাও তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদকের কাছে জানতে চাওয়া হয়েছে।  কসবার ভ্যাকসিন জালিয়াতি ফাঁস হওয়ার পর থেকেই সংবাদের শিরোনামে দেবাঞ্জন দেবের নাম। ইতিমধ্যেই দেবাঞ্জনের একাধিক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। ঘটনার মূল কোথায়? তা জানার চেষ্টা করছেন তদন্তকারী আধিকারিকরা। উল্লেখ্য, ভ্যাকসিন জালিয়াতি কাণ্ডে ধৃত দেবাঞ্জন দেবও (Debanjan Deb) নিজেকে একটি ফেডারেশনের সভাপতি হিসেবে ঘোষণা করেছিল। পুলিশের হাতে সেই সংক্রান্ত কিছু কাগজপত্র এসেছে। এই ভুয়ো কর্মী সংগঠনে দীপ্তেন্দু নামে আদৌ কেউ আছে নাকি এর মধ্যেও দেবাঞ্জনের হাত রয়েছে? তা নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়েছে সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে।  

[আরও পড়ুন: শীঘ্রই কাটছে জট? রাজ্যে ৭ বিধানসভা, দু’টি রাজ্যসভা আসনে উপনির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু EC’র]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement