BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  রবিবার ২২ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

পুজোয় শহরে নাগরদোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত ১

Published by: Shammi Ara Huda |    Posted: October 15, 2018 2:01 pm|    Updated: October 15, 2018 2:01 pm

Man dies of electrocution in Kolkata

ছবি: প্রতীকী

অর্ণব আইচ:  পুজো শুরু হতে না হতেই মৃত্যুর ঘটনা ঘটল পোস্তায়। নাগরদোলায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। মৃতের নাম তাজ খান(৪০)। বাড়ি উল্টোডাঙার বেলগাছিয়া রোডে। ঘটনাস্থল পোস্তা এলাকার তারাসুন্দরী পার্ক। চাঞ্চল্যকর ঘটনাটি ঘটেছে পঞ্চমীর দিন রাতে। গোটা ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

জানা গিয়েছে, তারাসুন্দরী পার্কে মেলা হচ্ছে। সেই মেলাতেই বৈদ্যুতিন নাগরদোলা বসিয়েছিলেন তাজ খান। গতকাল মেলা চলাকালীন নাগরদোলায় যান্ত্রিক ত্রুটি ধরা পড়ে। সেই ত্রুটি নিজেই সারানোর চেষ্টা করছিলেন তিনি। রাত আটটা নাগাদ আচমকাই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হন তিনি। মেলায় উপস্থিত লোকজনই তাঁকে তড়িঘড়ি স্থানীয় হাসপাতলে নিয়ে যান। সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুজো শুরু হতে না হতেই মৃত্যুর ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমেছে।

[লড়াই শেষ, মারা গেলেন নাগেরবাজার বিস্ফোরণে জখম ফল বিক্রেতা]

এদিকে পঞ্চমীর রাতে শহরে খুন বৃদ্ধা৷ বেলেঘাটার বাসিন্দা ওই বৃদ্ধা বাড়িতে একাই থাকতেন৷ রবিবার রাতেও একাই বাড়িতে ছিলেন তিনি৷ গভীর রাতে আচমকাই বৃদ্ধা চিৎকারের শব্দ শুনতে পান প্রতিবেশীরা৷ কেন বৃদ্ধা এমন আর্তনাদ করছেন তা প্রথমে কেউই বুঝতে পারেননি৷ স্থানীয় এক মহিলাই প্রথম বৃদ্ধার বাড়ির সামনে ছুটে আসেন৷ তিনি দেখেন, বৃদ্ধার ঘরের দরমা কাটা রয়েছে৷ দরজাও খোলা রয়েছে৷ এদিকে তখনও ঘরের ভিতরে চিৎকার করছেন ওই বৃদ্ধা৷ তড়িঘড়ি ঘরে ঢুকে পড়েন প্রতিবেশী ওই মহিলা৷ ঘরের ভিতরে ঢুকেই অবাক হয়ে যান তিনি৷ দেখেন ঘরের মধ্যেই রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে রয়েছেন বৃদ্ধা৷ তার বুকের উপর উঠে বসে রয়েছে এক যুবক৷ ওই প্রতিবেশী মহিলার চিৎকারে ততক্ষণে বৃদ্ধার বাড়ির সামনে ভিড় জমে গিয়েছে৷ প্রতিবেশীরা ওই যুবককে ঘিরে ধরে পুলিশে খবর দেয়৷ স্থানীয় থানার পুলিশ আধিকারিকরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে৷ বৃদ্ধাকেও স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ তবে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে জানান৷ প্রতিবেশীদের দাবি, অভিযুক্ত ওই যুবক এলাকায় কল সারানোর কাজ করত৷ বৃদ্ধার সঙ্গে আলাপ পরিচয়ও ছিল তার৷ স্থানীয়দের অনুমান, চুরির উদ্দেশ্যেই ওই যুবক বৃদ্ধার বাড়িতে আসে৷ বৃদ্ধা বাধা দেওয়ায় বাধ্য হয়েই তাঁকে ওই যুবক খুন করেছে বলেই অভিযোগ তাঁদের৷ যদিও পুলিশ খুনের কারণ নিয়ে এখনই মুখ খুলতে নারাজ৷ অভিযুক্তকে জেরা করে কী তথ্য পাওয়া যায়, সেদিকেই তাকিয়ে রয়েছেন পুলিশ আধিকারিকরা৷

[পুজোর আবহে শহরে জোড়া খুন, ছড়াল চাঞ্চল্য]

বৃদ্ধার পাশাপাশি পঞ্চমীর বিকেলে লেদার কমপ্লেক্স থানা এলাকায় এক যুবতীরও দেহ উদ্ধার  হয়। প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে ওই তরুণীকে৷ ধর্ষণ করে খুন নাকি খুনের নেপথ্যে রয়েছে অন্য কোনও কারণ, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে