১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে অভিযোগের পাহাড়, প্রতিবাদে গণইস্তফা যাদবপুরের SFI সদস্যদের

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: January 5, 2020 5:56 pm|    Updated: January 5, 2020 6:02 pm

Mass resignation of SFI members in Jadavpur University

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ছাত্র সংসদের ভোটের আগে বড়সড় ভাঙন যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের বামপন্থী ছাত্র সংগঠনে। শীর্ষ নেতৃত্বের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ তুলে বিশ্ববিদ্যালয়ে সংগঠনের সম্পাদকের জমা পড়ল গণইস্তফা। যাদবপুরের পদত্যাগী এসএফআই সদস্যদের পাশে দাঁড়িয়েছে জেলা নেতৃত্বও। ফলে ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি সময়ে ভোটের আগে যাদবপুরের এসএফআই নেতৃত্ব বেশ প্রতিকূল পরিস্থিতিতে পড়ল, তা বলাই বাহুল্য।

কিন্তু কী এমন অভিযোগ, যার জন্য সংগঠন এভাবে গণহারে সংগঠন ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন তরুণ নেতানেত্রীরা? উত্তর খুঁজতে গিয়ে উঠে আসছে চমকপ্রদ তথ্য। জানা যাচ্ছে, এসএফআই নেত্রীদের একটা বড় অংশই ধর্ষণ এবং যৌন হেনস্থার অভিযোগে সরব। এসব অভিযোগ নেতৃত্বের নজরে আনার পর দীর্ঘ সময় ধরে কোনও সুরাহা হয়নি। তাতে আশাহত তাঁরা। এবার দলীয় নেতৃত্বের বিরুদ্ধে অসহযোগিতা, উদাসীনতার অভিযোগ এনে তাঁরা স্পষ্টই জানাচ্ছেন, এই পরিস্থিতিতে সংগঠনে থাকা তাঁদের পক্ষে আর সম্ভব নয়। সূত্রের খবর, গণইস্তফায় সই করেছেন তিরিশ জনেরও বেশি।

[আরও পড়ুন: মধ্যরাতে পানশালায় বচসা, শ্লীলতাহানি ও মারধরের অভিযোগ অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে]

অভিযোগের পাহাড় পেরতে গিয়ে দেখা যাচ্ছে কলকাতা জেলা সিপিএম নেতৃত্বকেও কাঠগড়ায় তোলা হচ্ছে। তরুণ নেত্রীদের একাংশের মতে, পক্ককেশের বামপন্থী নেতাদের মধ্যে অতিরিক্ত রক্ষণশীলতা কাজ করছে। তাঁরা সংগঠনের মহিলা সদস্যদের আধুনিক খোলামেলা পোশাক কিংবা কায়দা পছন্দ করছেন না। তাঁদের সঙ্গে আলোচনায় বিমুখ হয়ে পড়ছেন। এমনকী কখনও কখনও মতামত চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে। ফলে কাজের কাজ কিছু হচ্ছে না।

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা বিভাগের ছাত্র সংগঠনের দখল রেখেছে এসএফআই। ইঞ্জিনিয়ারিং এবং বিজ্ঞান বিভাগে ছাত্র সংগঠন আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় না থাকলেও, কার্যত বামপন্থী ভাবাদর্শেই উদ্বুদ্ধ। এসএফআইয়ে গণইস্তফার প্রভাব যে প্রায় সর্বত্রই পড়বে, তেমনই আশঙ্কা ছাত্র সংগঠনের অন্যান্য সদস্যদের। আগামী ১৯ ফেব্রুয়ারি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রভোট। ২০ তারিখ ফলাফল। আর্টস, সায়েন্স এবং ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগে আলাদা করে ভোটের মাধ্যমে তৈরি হবে ইউনিয়ন। রাজ্য সরকারের প্রস্তাবিত ছাত্র কাউন্সিল যাদবপুরে হবে না। এই প্রথম এম ফিলের গবেষকরাও ভোটে অংশগ্রহণ করতে পারবেন বলে নয়া নিয়ম জারি হয়েছে।

[আরও পড়ুন: কলকাতা থেকে এবার আরও দ্রুত দিল্লি পৌঁছবে রাজধানী এক্সপ্রেস]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে