২২ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  বৃহস্পতিবার ৯ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

জেএনইউ জয়ের পর ঘরে ফিরল দুর্গাপুরের ঐশী, পুজো কাটবে বামপন্থী বইয়ের স্টলে

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: October 3, 2019 5:03 pm|    Updated: October 3, 2019 5:03 pm

New JNU president Oishi Ghosh to celebrate Durga Puja in Durgapur

সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়, দুর্গাপুর:  সংগঠনের তীব্র রক্তক্ষরণের সময়েও দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে এবিভিপিকে হেলায় হারিয়েছেন। বামপন্থী পরিচালিত ছাত্র সংসদের সভানেত্রী হয়েছেন দুর্গাপুরের মেয়ে ঐশী ঘোষ। সেই কঠিন যুদ্ধজয়ের পর বুধবারই দুর্গাপুরে পা রাখলেন ঘরের মেয়ে। স্টেশনে নামতেই তাঁকে শুভেচ্ছা, অভিনন্দনে ভরিয়ে দেন বাম ছাত্র সংগঠন এসএফআই, ডিওয়াইএফআইয়ের সদস্যরা। তবে দায়িত্বশীল মেয়েটি শুধু শুভেচ্ছায় আপ্লুতই হলেন না ঐশী। বললেন, “দায়িত্ব আরও বাড়ল। বাম সংগঠনের বিশেষ করে এসএফআইয়ের নিরন্তর কর্মসূচির মাধ্যমে সংগঠনকে আরও শক্তিশালী করে তুলতে হবে।”

[আরও পড়ুন: ডুয়ার্সে ফের বন্ধ চা বাগান, পুজোর মুখে কর্মহীন বহু শ্রমিক]

এটা যে স্রেফ কথার কথা নয়, তা ঐশীর কর্মসূচিতেই পরিষ্কার। তিনি জানান, পুজোর সময় পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানোর পাশাপাশি বিভিন্ন পুজো মণ্ডপের বাইরে বামেদের বইয়ের স্টলগুলিতে ঐশী থাকবেন সারাদিন। সংগঠনের স্বার্থেই তাঁর এই কর্মসূচি বলে জানিয়েছেন জেএনইউ ছাত্র সংসদের সভানেত্রী। বুধবার ট্রেন থেকে নেমে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারকে একযোগে তুলোধনা করেন তিনি। দেশে বিজেপির প্রভাব ধীরে ধীরে কমবে বলে দাবি করে ঐশী বলেন, “মহিলাদের প্রতি ন্যূনতম মর্যাদা দেখায় না এই সাম্প্রদায়িক দলটি। তাই উদারমনস্ক ভারতবাসী এই দলকে বিশ্বাস করে না। অনেকটাই প্রভাব কমেছে এদের।” এই রাজ্যে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নেই, এই অভিযোগ তুলে ঐশীর মন্তব্য, “এসএফআইয়ের কর্মসূচির উপর বর্বরোচিত আক্রমণ করছে রাজ্য সরকার। নিজেদের দাবি জানাতে গিয়েই সরকারি রোষের মুখে পড়তে হচ্ছে বাম সংগঠনকে। বিরোধী দলগুলিকে কোণঠাসা করতে চাইছে রাজ্য সরকার।”

[আরও পড়ুন: পুজোর প্যান্ডেল তৈরির সময় দুর্ঘটনা, পড়ে গিয়ে মৃত ১]

বুধবার দিল্লি-শিয়ালদহ রাজধানী এক্সপ্রেসে দুর্গাপুর স্টেশনে নামেন ঐশী। স্টেশনেই তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানায় ডিওয়াইএফআই ও এসএফআই। স্টেশনের বাইরে এসে সিটুর কার্যালয়ে ফের একপ্রস্ত সংবর্ধনা দেওয়া হয়। এখানে ডিভিসি ডিটিপিএস সিটু ইউনিয়নের পক্ষ থেকে ও সিপিএমের পক্ষ থেকে ফুলের স্তবক, স্মারক, উপহার-সহ মিষ্টির হাঁড়ি জেএনইউয়ের নবনির্বাচিত সভানেত্রী ঐশীর হাতে তুলে দেওয়া হয়। ঘরের মেয়েকে শুভেচ্ছা জানাতে দুর্গাপুর স্টেশনেও সাধারণ মানুষ জড়ো হয়েছিলেন। ঐশী জানায়, “দিল্লিতে এসএফআইয়ের সংগঠনকে মজবুত করে জেএনইউ দখল করা সহজ ছিল না। একদিকে প্রবল বিজেপির দাপট ও এভিপির তাণ্ডবের মাঝেও আমরা আমাদের নির্দিষ্ট কর্মসূচির মাধ্যমে ছাত্রছাত্রীদের সমর্থন পেয়েছি। তারই ফলস্বরূপ এসএফআইয়ের দখলে এসেছে ছাত্র সংসদ।” আপাতত ক’টা দিন দুর্গাপুরের বামপন্থীদের বইয়ের স্টলগুলিতেই সময় কাটবে ঐশীর। পুজোর পর ফিরে আবার বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র সংসদের হাল ধরবেন বঙ্গকন্যা।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে