৩ শ্রাবণ  ১৪২৬  শুক্রবার ১৯ জুলাই ২০১৯ 

Menu Logo বিলেতে বিশ্বযুদ্ধ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

রিংকি দাস ভট্টাচার্য: ক্রমশই চড়চড়িয়ে বাড়ছে তাপমাত্রার পারদ৷ শুক্রবার মরশুমের উষ্ণতম দিন ছিল কলকাতায়৷ এদিন তাপমাত্রার পারদ ছুঁল ৩৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷ বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ ৬০ শতাংশ৷ দুয়ে মিলে জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহে নাভিশ্বাস আমজনতার৷ হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, আগামী কয়েকদিন একইরকম আবহাওয়া বজায় থাকবে৷

আরও পড়ুন: ইটের ঘায়ে আক্রান্ত জুনিয়র চিকিতসক, ফের উত্তেজনা ন্যাশনাল মেডিক্যালে ]

চলতি মরশুমের শুরু থেকেই চওড়া ব্যাটিং করছে গ্রীষ্ম৷ তাপমাত্রার পারদ ক্রমশই বাড়ছে৷ সকাল থেকে তীব্র রোদ৷ সঙ্গে আর্দ্রতার রমরমা৷ দুয়ে মিলে হাসফাঁস অবস্থা আমজনতার৷ সকাল আটটা থেকে গলদঘর্ম অবস্থায় গন্তব্যে পৌঁছাতে হচ্ছে সকলকেই৷ বেলা যত বাড়ছে, ততই চড়ছে তাপমাত্রার পারদ৷ ৮ জুন রাজ্যে বর্ষা প্রবেশের কথা৷ জুনের দ্বিতীয় সপ্তাহেও দেখা নেই তার৷ পরিবর্তে ঊর্ধ্বমুখী তাপমাত্রার পারদ৷ শুক্রবারের পরিস্থিতিও একইরকম৷ এদিন শহরের তাপমাত্রা ৩৯.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস৷ বাতাসে আর্দ্রতার পরিমাণ প্রায় ৬০ শতাংশ৷ আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, কলকাতায় এদিন মরশুমের উষ্ণতম দিন৷ বাঁকুড়া, পুরুলিয়া-সহ রাজ্যের পশ্চিমের জেলাগুলিতে তাপমাত্রার পারদ ৪০ ডিগ্রি তাপমাত্রা পেরিয়ে গিয়েছে৷ তবে কলকাতায় এই প্রথমবার ৩৯.৬ সেলসিয়াস ছুঁল তাপমাত্রার পারদ৷

[ আরও পড়ুন: NRS কাণ্ডের জের, কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে বিক্ষোভের মুখে নির্মল মাজি ]

হাওয়া অফিস সূত্রে খবর, আগামী দুদিন এই আবহাওয়া বজায় থাকবে৷ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের তুলনায় প্রায় ২ থেকে ৩ ডিগ্রি বেশি থাকবে৷ তার ফলে চরম অস্বস্তিতে দিন কাটাতে হতে পারে কলকাতা, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুর, বর্ধমান, ঝাড়গ্রামের বাসিন্দাদের৷ আগামী কয়েকদিন পশ্চিমের জেলাগুলিতে লু বওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলেই জানান আবহবিদরা৷ তবে তীব্র গরম থেকে বাঁচার কোনও আশার বাণী শোনাতে পারেন হাওয়া অফিস৷ আলিপুর আবহাওয়া দপ্তর সূত্রে খবর, দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে৷ তাই  প্রচণ্ড গরমে রাস্তায় বেরনোর আগে যথোপযুক্ত সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসকেরা৷ 

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং