Advertisement
Advertisement

Breaking News

খিদিরপুরে মেলার দোলনা থেকে ছিটকে পড়ে গুরুতর জখম নাবালিকা, ভরতি ICU-তে

৮ বছরের সমৃদ্ধি এখন হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে।

Minor girl ‘critical’ after joyride accident in Khidirpur
Published by: Sangbad Pratidin Digital
  • Posted:February 24, 2018 10:26 am
  • Updated:September 16, 2019 4:04 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চোখের নিমেষে আনন্দ যেন বদলে গেল আতঙ্কে! খিদিরপুরে ভুকৈলাশ রাজবাড়ি এলাকায় মামারবাড়িতে বেড়াতে এসেছিল ৮ বছরের সমৃদ্ধি মিশ্র। শিবরাত্রি উপলক্ষে মায়ের হাত ধরে স্থানীয় মেলায় গিয়ে বায়না করে দোলনা চড়বে বলে। একরত্তি মেয়ের আবদারে মা’ও অ-রাজি হননি। কিন্তু কে জানত, সেই দোলনাই এভাবে সমৃদ্ধির জীবনে বিপত্তি ডেকে আনবে! মেলার যন্ত্রচালিত দোলনা থেকে আচমকাই মাটিতে ছিটকে পড়ে সমৃদ্ধি। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সন্ধ্যায়। পুলিশ মেলার জয় রাইড বন্ধ করে দিয়েছে। যে সংস্থা ওই জয় রাইড তৈরি করেছে, তাদের বিরুদ্ধে উঠছে গাফিলতির অভিযোগ।

[বহুজাতিক সংস্থার পানীয় জলের বোতলে কলিফর্ম, নোটিস পাঠাচ্ছে পুরসভা]

মেয়েকে জয় রাইডে তুলে দিয়ে নিচেই দাঁড়িয়ে ছিলেন মা। তাঁর চোখের সামনেই সমৃদ্ধি ছিটকে পড়ে মাটিতে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানাচ্ছেন, মেলার ময়ূরপঙ্খী নৌকাটি সে সময় প্রবল বেগে দুলছিল। যাঁরা চেপে বসেছিলেন, তাঁরাও চিৎকার করছিলেন। প্রবল ঝাঁকানিতে রাইডের বাইরে ছিটকে পড়ে যায় সমৃদ্ধি। তার মাথা ফেটে গলগল করে রক্ত বেরোতে থাকে। আতঙ্কে তার মা খানিকক্ষণের জন্য হতবাক হয়ে যান। তারপর মেয়েকে কোলে তুলে ছুটতে শুরু করে দেন হাসপাতালের উদ্দেশে। এগিয়ে আসেন অন্যান্যরাও। প্রথমে আহত সমৃদ্ধিকে নিয়ে যাওয়া হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। সেখান থেকে তাকে সিএমআরআই হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এখন সেখানেই আইসিইউতে চিকিৎসাধীন একরত্তি সমৃদ্ধি। চলছে যমে-মানুষে টানাটানি। তার কপালের হাড় ভেঙেছে, জ্ঞান ফেরেনি এখনও। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দক্ষিণ বন্দর থাকার পুলিশ। শুক্রবার রাতেই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে মেলা।

Advertisement

মেলার উদ্যোক্তারা অবশ্য গোটা ঘটনায় গাফিলতির অভিযোগ মানতে নারাজ। তাঁদের মতে, এটা নিছকই দুর্ঘটনা। কিন্তু আক্রান্ত শিশুর পরিবারের দাবি, মেলায় কোনও যন্ত্রচালিত জয় রাইডেই কীভাবে চড়তে হবে, তার কোনও নিয়মাবলী ছিল না। বস্তুত, শহর ও শহরতলির মেলাগুলির সঙ্গে যাঁরা পরিচিত, তাঁরা জানেন, এই ধরনের মেলাতে প্রচুর জয় রাইড থাকলেও সেগুলির উপর নজরদারি থাকে ঢিলেঢালা। কোনও রাইডের সব যন্ত্রাংশই মজবুত কি না, দেখার জন্য কোনও নজরদারি সংস্থাও থাকে না সেভাবে। আপৎকালীন পরিস্থিতির জন্য থাকে না কোনও অ্যাম্বুল্যান্স। কলকাতা ও সংলগ্ন অঞ্চলে এর আগেও একাধিক দুর্ঘটনা জয় রাইডের নিরাপত্তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। এমনকী, প্রাণও হারিয়েছেন বেশ কয়েকজন। ২০১৭-র ১৬ মে অ্যাকোয়াটিকার একটি জয় রাইডে দুর্ঘটনায় এক যুবক প্রাণ হারান। ২০১৬-তে হাওড়ার একটি পার্কে জয় রাইড থেকে পড়ে ২৩ বছরের নেহা সিংয়ের মৃত্যু হয়। আর এবার হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে একরত্তির সমৃদ্ধি।

Advertisement

[স্নেহই ডেকে আনছে বিপদ, ভাইরাসের হানায় বিপন্ন বাড়ির বয়স্করা]

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ