BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বচসার জেরে মুখে থুতু ফেলার অভিযোগ, করোনা আতঙ্কে থানায় গেলেন দম্পতি

Published by: Subhamay Mandal |    Posted: April 21, 2020 9:17 pm|    Updated: April 21, 2020 9:17 pm

An Images

অর্ণব আইচ: বচসার জেরে মুখে থুতু ফেলার অভিযোগ। করোনার আশঙ্কায় থানায় গেলেন দম্পতি। এই বিষয়ে লেক থানায় অভিযোগ দায়ের হয়েছে। অভিযুক্ত প্রতিবেশী বীর বিক্রম সিংয়ের বিরুদ্ধে পুলিশ আইনি ব্যবস্থা নিয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, লেক গার্ডেন্সে ঘটেছে এই ঘটনা।

কিছুদিন আগেই লেক অ্যাভিনিউয়ের এক বাসিন্দার শরীরে করোনা ভাইরাস মেলে। এরপরই লেক ও রবীন্দ্র সরোবর এলাকাজুড়ে সৃষ্টি হয় আতঙ্ক। ওই অঞ্চলের একটি অংশ সিল করে দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যেই দম্পতির সঙ্গে অভিযুক্ত শুরু হয় বচসা। দম্পতির অভিযোগ, প্রতিবেশী ব্যক্তিটি প্রায়ই বাড়ির সামনে থুতু ফেলেন। এর আগেও তাঁকে বারণ করা হয়েছে। কিন্তু তিনি কান দেননি। এই বিষয়টি নিয়ে একাধিকবার গোলমাল হয়েছে প্রতিবেশীদের মধ্যে।

[আরও পড়ুন: শহরবাসীকে সচেতন করতে এবার মাইক হাতে স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী, রাস্তায় গাড়িতে বসেই প্রচার]

দিন দুয়েক আগে ফের শুরু হয় এই গোলমাল। কেন তিনি বাড়ির সামনে থুতু ফেলেছেন তা নিয়ে প্রতিবেশীরা তাঁকে প্রশ্ন করতে শুরু করেন। শুরু হয় চিৎকার-চেঁচামেচি। বচসা চরম পর্যায়ে যায়। অভিযোগ, এর মধ্যেই ওই ব্যক্তি ওই দম্পতির মুখে থুতু ছোড়েন। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা নিজেদের বাড়িতে ঢুকে যান। মুখ পরিষ্কার করেন। কিন্তু তার পর থেকেই শুরু হয় করোনা আতঙ্ক। কারণ, থুতু থেকেই যে ছড়িয়ে পড়তে পারে করোনা সংক্রমণ। দুদিন পর অনেকটা আতঙ্কের বশেই ওই দম্পতি চলে যান লেক থানায়। অভিযুক্ত প্রতিবেশীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগের ভিত্তিতেই মারাত্মক রোগ ছড়ানোর ধারা প্রয়োগ করা হয়েছে। এ ছাড়াও রয়েছে হুমকি ও হেনস্তার ধারা।

পুলিশের সূত্র জানিয়েছে, ইতিমধ্যেই থুতু ফেলার বিরুদ্ধে শহরের বিভিন্ন জায়গায় পুলিশ অভিযান শুরু করেছে। মাস্ক না পরা ও থুতু বা পিক ফেলার অভিযোগে কয়েকশো মানুষকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এভাবে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করার চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

[আরও পড়ুন: ​লকডাউনের প্রভাবে বন্ধ হতে পারে ৩০% রেস্তরাঁ, বিপুল ক্ষতিতে মাথায় হাত ব্যবসায়ীদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement